21.3 C
Toronto
রবিবার, জুন ২৩, ২০২৪

ফার্মাকেয়ার ইস্যুতে সমর্থন তুলে নিতে পারে এনডিপি

ফার্মাকেয়ার ইস্যুতে সমর্থন তুলে নিতে পারে এনডিপি
এনডিপি নেতা জাগমিৎ সিং নীতি সম্মেলনে অংশ নেওয়া প্রায় ১ হাজার ২০০ প্রতিনিধির সামনে দেওয়া তার বক্তব্যে আশার বার্তা শোনান

বিরোধীদল প্রেসক্রিপশন ওষুধের দাম কমাতে আইনের যে প্রস্তাব করেছে তা পূরণ না হলে আগামী নির্বাচনে ফার্মাকেয়ারকে মূল ইস্যু করার পরিকল্পনা করছে ফেডারেল নিউ ডেমোক্রেটিক পার্টি। কনফিডেন্স অ্যান্ড সাপ্লাই চুক্তিতে এ বছরের মধ্যে ন্যাশনাল ফার্মাকেয়ারের জন্য একটি কর্মকাঠামো তৈরির লক্ষ্যে সরকারের বিল আনার কথা বলা হয়েছে। এই চুক্তির আওতায় এনডিপি হাউস অব কমন্সে গুরুত্বপূর্ণ ভোটে সংখ্যালঘু লিবারেল সরকারকে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছে।

এনডিপি সদস্যরা হ্যামিল্টনে অনুষ্ঠিত তাদের নীতি সম্মেলনে জরুরি প্রস্তাব পাশের মধ্য দিয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছে। প্রস্তাবে বলা হয়েছে, সার্বজনীন, সমন্বিত ও পুরোপুরি সরকারি ফার্মাকেয়ার কর্মসূচি গ্রহণ না করলে সরকারের ওপর থেকে সমর্থন তুলে নিতে পারে তারা।
নিউ ডেমোক্রেটিক পার্টির জাতীয় পরিচালক অ্যানি ম্যাকগ্রাথ বলেছেন, যে বিলে ধার আছে সেটা আনাই তার দলের প্রধান অগ্রাধিকার। সংসদ সমস্যরা হাউস অব কমন্সে ফেরার অপেক্ষায় আছেন। এনডিপি যদি এই ইস্যুকে কেন্দ্র করে চুক্তি থেকে বেরিয়ে আসে তাহলে ফার্মাকেয়ার ভোটের ইস্যু হয়ে দাঁড়াবে। অবশ্যই তাই হবে।

- Advertisement -

এনডিপি নেতা জাগমিৎ সিং নীতি সম্মেলনে অংশ নেওয়া প্রায় ১ হাজার ২০০ প্রতিনিধির সামনে দেওয়া তার বক্তব্যে আশার বার্তা শোনান। তিনি বলেন, আমরা সেই কানাডা গড়ে তুলব যেখানে প্রত্যেকেই প্রত্যেকের যতœ নেবে। এমন কানাডা যেখানে আমরা সবাই এক সঙ্গে উঠব।

সম্মেলনে প্রতিনিধিদের কাছ থেকে ৮১ শতাংশ আস্থা ভোট পান জাগমিৎ সিং। ২০২১ সালের সম্মেলনে যেখানে পেয়েছিলেন ৮৭ শতাংশ ভোট।

দুর্বল আইন নিউ ডেমোক্রেটদের কাছে গ্রহণযোগ্য নয় বলে জানান ম্যাকগ্রাথ। তিনি বলেন, আইন হতে হবে শক্তিশালী। এর দাত থাকতে হবে। আমি মনে করি এই প্রস্তাব জাগমিত সিং ও ককাসকে দর-কষাকষির ক্ষমতা দিয়েছে। প্রস্তাবটি তাদেরকে শক্তিশালী করেছে।

এ সংক্রান্ত বিল যদি ডিসেম্বরে উত্থাপন করা হয়-ও তাহলেও কবে নাগাদ এটি কার্যকর হবে তা স্পষ্ট নয়। কবে নাগাদ কানাডিয়ানরা প্রেসক্রিপশন ওষুধ বাবদ অর্থ সাশ্রয় করতে পারবে তা-ও নিশ্চিত নয়।

এনডিপির হেলথ ক্রিটিক ডন ডেভিস বলেন, চুক্তি থেকে বেরিয়ে যাওয়ার অর্থ এ নয় যে, এনডিপি নির্বাচন আনতে চাইছে। বরং, লিবারেলদের প্রস্তাবিত আইনে সমর্থন দেওয়া হবে কিনা সেটা ভেবে দেখা হবে।

পরবর্তী ফেডারেল নির্বাচন ২০২৫ সালের ২০ অক্টোবরের আগে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা নয়। কিন্তু লিবারেলদের হাউস অব কমন্সে যদি প্রয়োজনীয় সংখ্যক আসন না থাকে তাহলে আইন পাস ও আস্থঅ নভোটে উৎরে যেতে কমপক্ষে ডজনখানেক এমপির সমর্থন জোগাড় করতে হবে তাদেরকে।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles