21.3 C
Toronto
রবিবার, জুন ২৩, ২০২৪

নিষিদ্ধ সাইটে প্রবেশ করলেই শনাক্ত হবে ডিভাইস!

নিষিদ্ধ সাইটে প্রবেশ করলেই শনাক্ত হবে ডিভাইস!

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) শহীদ মসিয়ূর রহমান হলে রুমভিত্তিক ইন্টারনেট সংযোগের উদ্বোধন করা হয়েছে। এ সময় প্রেস ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, এই ইন্টারনেট সংযোগ ব্যবহার করে নিষিদ্ধ ওয়েবসাইটে প্রবেশ করা মাত্রই আইপি এড্রেসের মাধ্যমে ডিভাইস শনাক্ত করবে বাংলাদেশ রিসার্চ এডুকেশন নেটওয়ার্কস (বিডিরিন)। একই সঙ্গে বিচ্ছিন্ন করা হবে ওই ডিভাইসের ইন্টারনেট সংযোগ। প্রাথমিক পর্যায়ে সর্বোচ্চ ২০০ এমবিপিএস গতিসম্পন্ন ইন্টারনেট সংযোগ প্রদান করা হয়েছে।

- Advertisement -

রোববার (১৫ অক্টোবর) বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সংবাদ সম্মেলন কক্ষে আইসিটি সেলের আওয়াতাধীন এ প্রজেক্টের শুভ উদ্বোধন করেন যবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন। প্রাথমিক পর্যায়ে পরীক্ষামূলকভাবে এ নেটওয়ার্ক সিস্টেম চালু করা হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে যবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘ আমাদের লক্ষ্য ছিল শিক্ষার্থীদের কাছে দ্রুত গতির ইন্টারনেট পৌঁছায় দেওয়া। শিক্ষার্থীদের দোরগোড়ায় দ্রুতগতির ইন্টারনেট পৌঁছে দেওয়ার জন্য বদ্ধপরিকর ছিল যবিপ্রবি প্রশাসন। যবিপ্রবি শিক্ষা ও গবেষণায় এগিয়ে যাচ্ছে, সেটাকে আরও ত্বরান্বিত করার জন্য এ দ্রুতগতির ইন্টাননেট সংযোগ দেওয়া হয়েছে।’

ড. মো. আনোয়ার হোসেন আরও বলেন, ‘উন্নতমানের শিক্ষা ও যোগাযোগ ব্যবস্থার জন্য এখন এ ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবে শিক্ষার্থীরা। এই ইন্টারনেট সংযোগ যেন অপব্যবহার না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। দ্রুতগতি সম্পন্ন এই ইন্টারনেট সংযোগের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা তাদের গবেষণা, একাডেমিক পড়াশোনা, বিশ্বের সব তথ্য পাওয়াসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে উপকৃত হবে শিক্ষার্থীরা।

এ সময় দ্রুত সময়ের মধ্যে শেখ হাসিনা ছাত্রী হলের রিডিং রুমকে ডিজিটাল করতে উন্নতমানের ফার্নিচার, এসি, দ্রুতগতির ইন্টারনেট সংযোগ স্থাপনের নির্দেশ দেন তিনি।

আইসিটি সেলের পরিচালক ড. ইঞ্জি. ইমরান খান বলেন, ‘প্রাথমিক পর্যায়ে পরীক্ষামূলকভাবে এটি চালু করা হচ্ছে। তবে কেউ অপব্যবহার করলে সেই ডিভাইস অথবা রুমের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হতে পারে। ল্যান পোর্ট থেকে রাউটারে কীভাবে সংযোগ দিতে হবে সেবিষয়ে ভিডিও প্রকাশ করা হবে যেন শিক্ষার্থীরা নিজেরাই সংযোগ দিতে পারে। তিনি শিক্ষার্থীদের এই ইন্টারনেট সঠিকভাবে ব্যবহারের জন্য অনুরোধ জানান।’

ড. ইঞ্জি. ইমরান খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন, যবিপ্রবির কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. আনিছুর রহমান, ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা পরিচালক ড. মো. আলম হোসেন, শহীদ মসিয়ূর হলের প্রভোস্ট ড. মো. আশরাফুজ্জামান জাহিদ, শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. সৈয়দ মো. গালিব প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে ড. মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, অধ্যাপক ড. মো. নাজমুল হাসান, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ এমদাদুল হক, অধ্যাপক ড. মঞ্জুরুল হক, ড. কিশোর মজুমদার, হিসাব পরিচালক মোঃ জাকির হোসাইন, পরিকল্পনা, উন্নয়ন ও পূর্ত পরিচালক পরিতোষ কুমার বিশ্বাস, প্রধান চিকিৎসা কর্মকর্তা দীপক কুমার মন্ডল, প্রকৌশলী (সিভিল) ইঞ্জি. নাজমুস সাকিব প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র : কালবেলা

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles