15 C
Toronto
শনিবার, মে ১৮, ২০২৪

অন্টারিও লিবারেল পার্টির নেতৃত্বে দৌড়ে নেই আদিল শামসি

অন্টারিও লিবারেল পার্টির নেতৃত্বে দৌড়ে নেই আদিল শামসি
<br >অন্টারিও লিবারেল পার্টির নেতৃত্বের প্রতিযোগিতা থেকে ছিটকে গেলেন আদিল শামসি

অন্টারিও লিবারেল পার্টির নেতৃত্বের প্রতিযোগিতা থেকে ছিটকে গেলেন আদিল শামসি। এর পরিবর্তে তিনি মিসিসোগার মেয়র বনি ক্রম্বির প্রতি তার সমর্থন ব্যক্ত করেছেন।

প্রতিযোগিতা থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করে দেওয়া এক বিবৃতিতে শামসি বলেছেন, শুরু থেকেই আমিসহ দারুণ চারজন প্রার্থীকে আমি চিনি। আমাদের দল থেকে একজন মাত্র প্রার্থী নেতা হিসেবে নির্বাচিত হবেন। আজ আমি এটা স্বীকার করছি যে, সেই নেতা আমি নই।

- Advertisement -

ডন ভ্যালি ইস্টের এমপিপি শামসি গত জুলাইয়ে অন্টারিও লিবারেল পার্টির নেতৃত্বের দৌড়ে নিজের নাম অন্তর্ভুক্ত করেন। স্বাস্থ্যসেবা, সাশ্রয়ী আবাসন এবং শিক্ষাকে প্রাধান্য দিয়ে প্ল্যাটফরমও গঠন করেন। কেন তিনি নেতৃত্বের প্রতিযোগিতায় নিজেকে অন্তর্ভুক্ত করলেন সে ব্যাপারে শামসি বলেন, সবার জন্য বড় পরিসরে বড় মঞ্চে তিনি লড়াই করতে চেয়েছিলেন। একসময় সেটাকে আমার সীমার মধ্যে বলে মনে করেছিলাম। কিন্তু এখন সেটাকে অনেক দূরের মনে হচ্ছে।

সিপি২৪কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে শামসি বলেন, অন্টারিও লিবারেল পার্টির নেতা হিসেবে তিনি ক্রম্বির পাল্লাই বেশি ভারি দেখতে পাচ্ছেন। পেশাগতভাবে আমি একজন ইমার্জেন্সি চিকিৎসক। আমার সাধ্যের মধ্যে বড় ধরনের প্রভাব রাখতেই আমি রাজনীতিতে এসেছিলাম। কিন্তু এখন আমার কাছে মনে হচ্ছে বিজয়ের সংজ্ঞাটা আলাদা। যোগ্য ব্যক্তির নেতৃত্বই অন্টারিওবাসীর জীবনে পরিবর্তন বয়ে আনতে পারে। আমার কাজ হচ্ছে যতটা সম্ভব বেশি সংখ্যক মানুষের ওপর প্রভাব ফেলতে সহায়তা করা। এটাই আমাকে সিদ্ধান্ত গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করেছে।

এদিকে শামসির সমর্থন পেয়ে উৎফুল্ল বলে সিটিভি নিউজ টরন্টোকে দেওয়া এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন ক্রম্বি। তিনি বলেন, শামসি এখন মেধাবি এবং নিবেদিতপ্রাণ এমপিপি, যিনি কুইন’স পার্ক এবং এই নেতৃত্বের প্রতিযোগিতায় মেধা ও সমানুভূতি নিয়ে এসেছেন। আদিল এবং আমি উভয়েই মনে করি যে, ২০২৬ সালে ডগ ফোর্ড সরকারকে বিদায় নিতেই হবে। সেটা যাতে সম্ভব হয় সেজন্য প্রত্যেক লিবারেলের লক্ষ্য হওয়া উচিত একই।

অন্টারিও লিবারেল পার্টির নেতৃত্বের প্রতিযোগিতায় ক্রম্বি ছাড়াও আরও যে তিনজন প্রার্থী রয়েছেন তারা হলেন ফেডারেল লিবারেল আইনপ্রণেতা ইয়াসির নাকভী ও নাথানিয়েল আরস্কিন-স্মিথ এবং প্রাদেশিক আইনপ্রণেতা টেড সু। নতুন নেতৃত্ব নির্বাচনে নভেম্বরের শেষ দিকে ভোট দেবেন দলীয় সদস্যরা। ফলাফল প্রকাশিত হবে ২ ডিসেম্বর।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles