21.7 C
Toronto
মঙ্গলবার, জুলাই ১৬, ২০২৪

ওয়েবসাইটে শিক্ষিকার নগ্ন ছবি, অতঃপর…

ওয়েবসাইটে শিক্ষিকার নগ্ন ছবি, অতঃপর…

প্রাপ্তবয়স্কদের ওয়েবসাইট ওনলি ফ্যানস-এ যুক্তরাষ্ট্রের এক স্কুল শিক্ষিকার নগ্ন ছবি পাওয়ার ঘটনায় তাকে রখাস্ত করা হয়েছে।

- Advertisement -

সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল জানিয়েছে, সম্প্রতি ওই শিক্ষিকার ছাত্ররাই তার এসব পর্নোগ্রাফিক ছবি দেখতে পেয়ে অভিযোগ করেন।

প্রতিবেদনে জানানো হয়, ওই শিক্ষিকা একজন বিবাহিত নারী এবং তার সন্তানও আছে। অভিযোগ পাওয়ার পর স্কুল কর্তৃপক্ষ তাকে বরখাস্ত করেছে।

২৮ বছর বয়সী ওই শিক্ষিকার নাম ব্রায়ানা কপেজ। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের মিসৌরির সেন্ট ক্লেয়ার হাই স্কুলে কাজ করেন। তিনি শিক্ষার্থীদের ইংরেজি পড়ান।

বুধবার (৪ অক্টোবর) যুক্তরাষ্ট্রের ওই হাই স্কুলের প্রশাসন বিভাগের দু’জন কর্মকর্তা তার সাক্ষাৎকার নেন। এরপর তাকে ছুটিতে পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে স্কুল কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে বলা হয়নি যে তাকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে কিনা। ব্রায়ানা কপেজও নিশ্চিত নন যে স্কুলে তিনি ফিরতে পারবেন কিনা।

এসব কারণে তাকে স্কুল থেকে ছুটি দেওয়ার পর সাবেক একজন শিক্ষার্থীর আত্মীয় তার পক্ষ নিয়েছেন। তিনি চেঞ্জ ডট অর্গে একটি আবেদন করেছেন। আবেদনে ব্রায়ানা কপেজের চাকরি ফিরিয়ে দেওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে। কিন্তু এটিতে এখন পর্যন্ত মাত্র ৪০টি স্বাক্ষর জমা হয়েছে।

আবেদনকারী এতে বলেছেন, অতি সম্প্রতি ব্রায়ানা কপেজ নামে আমার ভাতিজার স্কুলের শিক্ষিকাকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। এর কারণ, তার অনলিফ্যানস সাইটে একাউন্ট আছে। স্কুল তাকে অনেক কম বেতন দেয় বলে তিনি এটা করতে বাধ্য হয়েছেন। তার অনলিফ্যানের একাউন্ট সম্পর্কে স্কুল কর্তৃপক্ষকে কেউ একজন জানিয়েছে। ফলে স্কুল তাকে ছুটিতে পাঠিয়েছে। ব্রায়ানা কপেজ একজন চমৎকার মানুষ এবং শিক্ষার্থীদের প্রতি তিনি খুব যত্ন নেন। যদি তার ওপর ক্ষোভ থাকে, হতাশ হয় কর্তৃপক্ষ, তবু তাকে স্কুলে ফিরতে দেওয়া উচিত।

এদিকে ব্রায়ানা কপেজের আগের কিছু শিক্ষার্থীও এই আবেদনে সাড়া দিয়েছে। তারা তাকে একজন চমৎকার শিক্ষিকা হিসেবে বর্ণনা করেছে।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles