আরিয়ানকাণ্ডে নতুন মোড়!

- Advertisement -
শাহরুখপুত্র আরিয়ান খান

মাদক মামলায় বলিউড বাদশাহ শাহরুখপুত্র আরিয়ান খান কারামুক্ত হওয়ার পর এবার নতুন তথ্য সামনে এসেছে! আরিয়ানকাণ্ডের মূল নিয়ন্ত্রক এবং চক্রী সুনীল পাটিল। এমন অভিযোগ করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি)।

শনিবার (৬ নভেম্বর) মহারাষ্ট্র বিজেপি নেতা মোহিত কাম্বোজ সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ আনেন। খবর আনন্দবাজারের।

- Advertisement -

বিজেপির এই নেতা জানান, বিজেপিকে বদনাম করার জন্যই সুনীলকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করেছে মহারাষ্ট্র রাজ্যের আঞ্চলিক রাজনৈতিক দল জাতীয়তাবাদী কংগ্রেস পার্টির (এনসিপি) নেতারা।

মোহিত কাম্বোজ বলেন, গেরুয়া শিবিরকে বদনাম করতে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। সুনীল পাটিলকে সামনে রেখে ষড়যন্ত্র করছে মহারাষ্ট্রের যেসব মন্ত্রী, তাদের জবাবদিহি করতে হবে।

- Advertisement -

রাজ্যের বেশ কয়েকজন মন্ত্রীর ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন মোহিত। বলেন, মন্ত্রীরা কি মাদক মাফিয়াদের সমর্থন করছেন, নাকি একজন কর্মকর্তাকে নিশানা করতে চাইছেন? তবে রাজ্যেরই এক সাবেক মন্ত্রীকে দাউদ ইব্রাহিম ঘনিষ্ঠ মাদক মাফিয়ার সঙ্গে দেখা গিয়েছিল বলেও দাবি মোহিতের।

- Advertisement -

কম্বোজ বলেন, দীর্ঘ ২০ বছর ধরে এনসিপি নেতাদের সঙ্গে সুনীলের ওঠাবসা রয়েছে। মহারাষ্ট্রের সাবেক মন্ত্রী অনিল দেশমুখের ছেলে হৃষিকেশ দেশমুখের সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক। সরকারি দপ্তরে কাকে কোথায় বদলি করা হবে, তার একটা চক্র চালাতেন সুনীল।

বিজেপি নেতা আরও বলেন, এই মামলার অন্যতম সাক্ষী কিরণ গোসাভিও সুনীলের লোক। বিজেপির বিরুদ্ধে এটা একটা বড় ষড়যন্ত্র। সুনীলের সঙ্গে তাদের কী সম্পর্ক, তা স্পষ্ট করতে হবে এনসিপি নেতাদের। একটি বড় হোটেলের ঘর ভাড়া করেছিলেন সুনীল। সেখানে কোন কোন এনসিপি নেতা এসেছিলেন, তার জবাব দিতে হবে এনসিপি নেতা নবাব মালিককে।

তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের পাল্টা জবাব দেন নবাব। বলেছেন, সমীর ওয়াংখেড়ের ব্যক্তিগত দলের এক সদস্য সংবাদ সম্মেলন করে বিভ্রান্ত ছড়াতে চাইছেন। সত্যকে চাপা দিতে আসল বিষয়টির ওপর থেকে নজর ঘুরিয়ে দিতে চাইছেন। আগামীকাল রোববার (৭ নভেম্বর) সত্যটা সামনে আনব।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles