15.9 C
Toronto
শুক্রবার, মে ২৪, ২০২৪

‘প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেড় ঘণ্টা ছিলাম, সিন্ডিকেট বিষয়ে কথা হয়নি’

‘প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেড় ঘণ্টা ছিলাম, সিন্ডিকেট বিষয়ে কথা হয়নি’

সিন্ডিকেট বিষয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, ‘আমি ঠিক জানি না কি অবস্থাতে প্রধানমন্ত্রী কথাটা বলেছেন। আমি জানি না কালকে প্রশ্নটা কী ছিল, আর প্রধানমন্ত্রী কী মিন করে বলেছেন। ওই মিটিংয়ের পরে আমি তো প্রায় দেড় ঘণ্টা তার সঙ্গেই ছিলাম। আমেরিকান চেম্বার্সের প্রতিনিধিরাও‌ ছিলেন। তখন আমার সঙ্গে কোনো কথা হয়নি।’

- Advertisement -

আজ বুধবার দুপুর ১২টায় রাজধানীর একটি হোটেলে সফররত ‌‘ইউএস- বাংলাদেশ বিজনেস কাউন্সিল’ এর উচ্চপর্যায়ের একটি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

গতকাল মঙ্গলবার ব্রিকস নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর কাছে সিন্ডিকেট নিয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বাণিজ্যমন্ত্রীকে ধরবেন বলে জানান। সেই বিষয়ে জানতে চাইলে টিপু মুনশি বলেন, ‘সিন্ডিকেট আছে, সিন্ডিকেট ভাঙবো এ ধরনের কথা তো আমি বলিনি। বলেছি যে, আমাদের যখন জিনিস পত্রের দাম বাড়ে তখন আমরা চেষ্টা করি- যে দামে ন্যায্য বিক্রি হওয়া উচিত সেটা ভোক্তা অধিকার দিয়ে চেষ্টা করি। কখনো কখনো আমাদের লোকবল কম হওয়ার কারণে কিছুটা শ্লথ হয়। আমি এ কথাটাই বলেছি।’

সিন্ডিকেটের বিষয়ে হাত দেওয়া যাবে না- বক্তব্য প্রসঙ্গে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘যে কথাটা আমি বলেছিলাম, জেল-জুলুম এ ধরনের ব্যবস্থা নিলে পরে…। আমরা সেটেল করেছি আলোচনার মাধ্যমে, যেন একটা লজিক্যাল হওয়া উচিত। হঠাৎ করে জেল-জুলুম দিলে পরে মানুষের দুর্ভোগ আরও বাড়বে। সে কথাটাই বলেছিলাম। তবে আলোচনা করে আমরা ব্যবস্থা নিতে চাই।’

তিনি বলেন, ‘ডিমের দাম যখন বেড়ে গেল, তখন আমি বলেছিলাম সাপ্লাই ঠিক রাখার জন্য আমরা প্রয়োজনে আমদানি করব। সে ধরণের ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেছিলাম।’

ডিমের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমি সেদিনও বলেছি, ডিমের কী দাম হওয়া উচিত সেটা বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ঠিক করবে না। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্তণালয় দাম ঠিক করে দিয়েছে এরকম হওয়া উচিত। আমরা চেষ্টা করছি তারা যে দামটা নির্ধারণ করে দিয়েছে সেটা যেন বাজারে থাকে সে রকম চেষ্টা করছি।’

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার বিকালে গণভবনে নিত্যপণ্যের দাম নিয়ে সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘বাণিজ্যমন্ত্রীকে আমি ধরছি। কে বলেছে সিন্ডিকেটে হাত দেওয়া যাবে না?’ তখন সাংবাদিক বলেন, দু’জন মন্ত্রী সরাসরি বলেছেন, ওখানে হাত দিলে বিপদ আছে।

সূত্র : আমাদের সময়

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles