17 C
Toronto
সোমবার, মে ২৭, ২০২৪

নারী সহকর্মীর সঙ্গে প্রধানশিক্ষকের আপত্তিকর ভিডিও ফাঁস, অতঃপর…

নারী সহকর্মীর সঙ্গে প্রধানশিক্ষকের আপত্তিকর ভিডিও ফাঁস, অতঃপর...
সিসিটিভি ফুটেজ থেকে নেয়া শিক্ষক শিক্ষিকার ছবি

নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার বেগুন জোয়ার উচ্চ বিদ্যালয়ে দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে উঠা অনৈতিক কর্মকাণ্ডের অভিযোগ তদন্তে কমিটি গঠন করা হয়েছে। উপজেলা সহকারী মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল্লা আল মামুনকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের ওই কমিটি গঠন করা হয়। অন্য দুই সদস্য হলেন, উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার অঞ্জন কুমার কুণ্ড ও বেগুনজোয়ার উচ্চবিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক রেজাউল করিম।

বদলগাছী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ওয়াসিউর রহমান বুধবার (৫ জুলাই) বিকেলে ওই তদন্ত কমিটি গঠনের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওগুলো পর্যালোচনা করবে কমিটি। পাশাপাশি কথা বলা হবে সব পক্ষের সঙ্গেই। আগামী ১২ জুলাইয়ের মধ্যে কমিটি তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেবেন বলেও জানান তিনি।

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, গত দুইদিন ধরে নওগাঁয় প্রধানশিক্ষক ও শিক্ষিকার অসামাজিক কর্মকাণ্ডের ভিডিও ফুটেজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ছড়িয়ে পড়ে। দাবি করা হয় ওই ভিডিওগুলো বদলগাছী উপজেলার বেগুন জোয়ার উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষক আবু সাদাত শামীম আহমেদ ও একই বিদ্যালয় সহকারী এক শিক্ষিকার।

সিসি ক্যামেরায় ধারণ করা ভিডিওগুলোর প্রথম ক্লিপটি ১ মিনিট ১২ সেকেন্ড, দ্বিতীয়টি ১ মিনিট ৫১ সেকেন্ড, তৃতীয়টি ৪ মিনিট ১১ সেকেন্ড এবং চতুর্থটি ৪ মিনিট ৫৮ সেকেন্ড। মোট চারটি আলাদা ভিডিও ক্লিপে দেখা যায় অভিযুক্ত ওই প্রধানশিক্ষক তার অফিস কক্ষে দফায় দফায় ওই নারী শিক্ষিকাকে গিয়ে জড়িয়ে ধরে চুম্বন করছেন। ভিডিওতে তাদের পোশাকও অস্বাভাবিক দেখা গেছে। অফিস কক্ষের দিকে কেউ আসছে কি না দেখতে প্রধানশিক্ষক মাঝে মাঝে জানালার কাছে গিয়ে উঁকি দিয়ে দেখে আসছেন। আবার মাঝে মাঝে ওই শিক্ষিকাকে মারধর করতেও দেখা গেছে ভিডিও ফুটেজে।

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আ.স.ম শফি মাহমুদ বলেন, প্রায় ৫ বছর থেকে স্কুলের সভাপতির দায়িত্বে আছি। এর আগে প্রধানশিক্ষকের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীর সঙ্গে অনৈতিক কর্মকাণ্ডের কথা শুনেছি। বিষয়টি নিয়ে ভুক্তভোগীর পরিবারের সঙ্গে বসতে চেয়েছিলাম। পরে শুনি তারা আপস করেছে। বর্তমানে প্রধানশিক্ষক ও সহকারী শিক্ষিকার যে ভিডিওটি দেখা যাচ্ছে তাদের সঙ্গে কথা বলেছি, তারা ষড়যন্ত্রের স্বীকার বলে দাবি করছেন।

ভিডিও ফুটেজ গুলোর সত্যতা ও ঘটনার যৌক্তিকতার বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত ওই প্রধানশিক্ষক ও শিক্ষিকার সঙ্গে মুঠোফোন ও ফেসবুক মেসেঞ্জারে যোগাযোগ করে সাড়া মেলেনি। তবে গণমাধ্যমের কাছে ঘটনা মিথ্যা বলে তারা দাবি করেছেন।

সূত্র : চ্যানেল ২৪

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles