26.6 C
Toronto
রবিবার, জুলাই ২১, ২০২৪

চিপস নিয়ে ঝগড়া, প্রেমিককে গাড়ি চাপা দেয়ার চেষ্টা প্রেমিকার!

চিপস নিয়ে ঝগড়া, প্রেমিককে গাড়ি চাপা দেয়ার চেষ্টা প্রেমিকার!
ছবি সংগ্রহ

প্রেমিক চেয়েছিলেন এক টুকরো চিপস। আর তাতেই রেগে আগুন প্রেমিকা। ঝগড়ার বাগড়ার পরও ক্ষান্ত হননি ক্ষুব্ধ প্রেমিকা। প্রেমিককে তিনি গাড়ি চাপা দেওয়ারও চেষ্টা করেছেন।

এরপর অস্ট্রেলিয়ার প্রেমিক যুগলের সেই সংঘাত গড়িয়েছে আদালত পর্যন্ত।

- Advertisement -

অস্ট্রেলিয়ার সংবাদমাধ্যম নাইন নিউজ ডটকমের প্রতিবেদনে বলা হয়, ঘটনাটি অ্যাডিলেড শহরের। ওই প্রেমিকের নাম ম্যাথিউ ফিন। প্রেমিকা চার্লট হ্যারিসন। ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রেমিক ফিন বলেছেন, গত ২৬ ফেব্রুয়ারি প্রেমিকার সঙ্গে গাড়িতে করে তিনি যাচ্ছিলেন। তখনই এই চিপস-কাণ্ড ঘটেছে।
ম্যাথিউ ফিন বলেছেন, ‘আমি মনে করেছিলাম তার খাওয়া শেষ। এরপরও তার কাছে চিপস চাওয়া উচিত হয়নি। আমি যখন একটি চিপস নিলাম, তখন সে রাস্তার পাশে গাড়িটি থামাল এবং আমাকে বের হয়ে যেতে বলল।’ ফিনের অভিযোগ, তিনি যখন গাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন, তখন দেখলেন তার দিকেই ছুটে আসছে গাড়িটি। এ সময় প্রাণে বাঁচতে একপাশে লাফ দেন তিনি।

তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন চার্লট হ্যারিসন বলেছেন, ‘এটা নিছক দুর্ঘটনা ছিল। তিনি প্রেমিক ফিনকে হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছিলেন। পথে তার ওপর হামলা করেন ফিন। তাই নিজেকে বাঁচাতে গাড়ি থামিয়ে তাকে বের করে দেন।’

এদিকে গাড়িচাপা দেওয়ার চেষ্টার অভিযোগের বিষয়ে চার্লট হ্যারিসনের আইনজীবী বলেছেন, ‘প্রেমিককে নামিয়ে দেওয়ার পর হামলার বিষয়টি পুলিশকে জানানোর জন্য হ্যারিসন গাড়িটি উল্টো দিকে ঘুরাচ্ছিলেন। এ সময় দুর্ঘটনাবশত অ্যাক্সিলেটরে তার পা পড়ে যায়। ফলে গাড়িটি ছুটে গিয়ে বিপরীত দিক দিয়ে আসা একটি গাড়িতে আঘাত হানে।’

প্রেমিকা চার্লট হ্যারিসনের বিরুদ্ধে বিপজ্জনকভাবে গাড়ি চালানো এবং মানুষের জীবনকে হুমকির মুখে ফেলার অভিযোগ আনা হয়েছে। আদালতের নির্দেশ দিয়েছে, আগামী শুক্রবার পর্যন্ত তিনি বাসা থেকে বের হতে পারবেন না। সেদিনই বিচারকরা নির্ধারণ করবেন হ্যারিসন আদৌ জামিন পাবেন কি না।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles