সাম্প্রদায়িক উস্কানির মামলা : ইসলামি বক্তার স্বীকারোক্তি

- Advertisement -
ইসলামি বক্তা আব্দুর রহিম বিপ্লবী।

শারদীয় দুর্গোৎসব চলাকালে কুমিল্লার নানুয়া দীঘির পাড় এলাকার একটি মণ্ডপে পবিত্র কোরআন পাওয়ার বিষয়ে ঢাকার একটি ওয়াজ মাহফিলে সাম্প্রদায়িক উস্কানি দেওয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার ইসলামি বক্তা আব্দুর রহিম বিপ্লবী আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। আজ রোববার ঢাকা মহানগর হাকিম সাদবীর ইয়াছির আহসান চৌধুরী এ আসামির জবানবন্দি রেকর্ড করেন। এরপর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

পল্টন থানায় দায়ের করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় দুই দিনের রিমান্ড শেষে আব্দুর রহিমকে আদালতে হাজির করে তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির উপ-পরিদর্শক (এসআই) তরিকুল স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করার আবেদন করেন। এর আগে, গত ২১ অক্টোবর সকাল সোয়া ৭টার দিকে ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার শুভাঢ্যা ইউনিয়নের চুনকুটিয়া পূর্বপাড়া (আমিনপাড়া) জামে মসজিদের সামনে থেকে আব্দুর রহিমকে গ্রেপ্তার করে সিআইডি। তার বিরুদ্ধে এসআই প্রদীপ কুমার দাস পল্টন থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করেন।

- Advertisement -

আরও পড়ুন : রেজা-নূরের নতুন দল গণপরিষদ

আব্দুর রহমান বিপ্লবী ফেনীর পরশুরাম উপজেলার পশ্চিম সাহেব নগর এলাকার মৃত আব্দুল কালামের ছেলে। তিনি গত ১৫ অক্টোবর জুমার নামাজ শেষে ঢাকার পশ্চিম ধোলাইপাড় এলাকায় একটি ওয়াজ মাহফিলে হিন্দু সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে উস্কানিমূলক বক্তব্য দেন।

সিআইডি বলছে, তার ওই বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে সাধারণ জনগণের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়। পরে আইনশৃঙ্খলার মারাত্মক অবনতি ঘটে। দেশের বিভিন্ন জায়গায় হিন্দু সম্প্রদায়ের উপাসনালয়, বাড়িঘরে হামলা হয়। পরে আব্দুর রহিম বিপ্লবীকে গ্রেপ্তারের জন্য বিভিন্ন মহল থেকে দাবি জানানো হয়।

সূত্র : আমাদের সময়

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles