29.9 C
Toronto
বুধবার, জুন ১৯, ২০২৪

৫৮ বছরের নারীকে ধর্ষণের পর হত্যা করল কিশোর

৫৮ বছরের নারীকে ধর্ষণের পর হত্যা করল কিশোর
প্রতীকী ছবি

দুই বছর আগে মোবাইল চুরির ঘটনার জেরে ৫৮ বছর বয়সী এক নারীকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ উঠেছে ১৬ বছরের এক কিশোরের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ভারতের মধ্যপ্রদেশের রেউয়া জেলার কৈলাসপুর গ্রামের। খবর এনডিটিভির।

স্থানীয় কর্মকর্তাদের বরাতে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দুই বছর আগে ওই কিশোরের বিরুদ্ধে মোবাইল চুরির অভিযোগ করে ভুক্তভোগীর পরিবার। এর প্রতিশোধ নিতেই ভুক্তভোগীকে হত্যা করেছে অভিযুক্ত কিশোর।

- Advertisement -

রোববার (৫ ফেব্রুয়ারি) পুলিশের অতিরিক্ত সুপার (এএসপি) বিবেক লাল বলেন, গত ১ ফেব্রুয়ারি, কৈলাসপুরী গ্রামের এক নির্মাণাধীন বাড়িতে ৫৮ বছর বয়সী মহিলার নিথর দেহ উদ্ধার করেছিল পুলিশ। তদন্তে পুলিশ দেখে, নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে ওই মহিলাকে। তার মাথা, হাত, গলা, বুকে ধারালো অস্ত্রের আঘাত ছিল। তার গোপণাঙ্গেও আঘাতের চিহ্ন ছিল।

পরিবারের সন্দেহের ভিত্তিতে ওই কিশোরকে আটক করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে হত্যা ও ধর্ষণের কথা স্বীকার করে ওই কিশোর।

পুলিশ জানায়, ঘটনার দিন ভুক্তভোগীর স্বামী ও ছেলে বাড়িতে ছিলেন না। একাই বাড়িতে ঘুমাচ্ছিলেন তিনি। এ সময় তার ওপর হামলা করে ওই কিশোর। তার মুখে প্লাস্টিক ও কাপড় গুজে দিয়ে তাকে বাড়ির নির্মাণাধীন একটি অংশে নিয়ে যায়। দম বন্ধ হয়ে অজ্ঞান হয়ে গেলে তাকে ধর্ষণ ও পরে কাস্তে দিয়ে আঘাত করে হত্যা করে ওই কিশোর। পরে বাড়িতে রাখা গয়না ও এক হাজার টাকা নিয়ে পালিয়ে যায় সে।

পুলিশ আরও জানিয়েছে, ওই কিশোরকে আটক করে জুভেনাইল হোমে পাঠানো হয়েছে। তার বিরুদ্ধে, ধর্ষণ, হত্যা, রাতের অন্ধকারে কারো বাড়িতে হানা দেয়া, চুরিসহ ভারতীয় দণ্ডবিধির বিভিন্ন ধারায় মামলা করা হয়েছে।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles