-2.2 C
Toronto
সোমবার, জানুয়ারী ৩০, ২০২৩

রাশিয়াকে বিচ্ছিন্ন করার চেষ্টায় নেতৃত্ব দিচ্ছে কানাডা: রাষ্ট্রদূত

রাশিয়াকে বিচ্ছিন্ন করার চেষ্টায় নেতৃত্ব দিচ্ছে কানাডা: রাষ্ট্রদূত
রাশিয়াকে সারাবিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন করার চেষ্টায় অটোয়া নেতৃত্ব দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন কারাডায় নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত ওলেগ স্টিপানভ

রাশিয়াকে সারাবিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন করার চেষ্টায় অটোয়া নেতৃত্ব দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন কারাডায় নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত ওলেগ স্টিপানভ। রাশিয়ার রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত গণমাধ্যমকে তিনি

আরআইএ নবোস্টিকে গত সপ্তাহে তিনি বলেন, ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে কানাডার পররাষ্ট্র বিভাগের অসত্য তথ্য প্রকাশ করে টুইটে তিনি হতাশ। বিশেষ করে সাম্প্রতিক বেশ কিছু টুইট, যেখানে সেনাবাহিনী থেকে লোকজনের পালিয়ে যাওয়ার কথা বলা হয়েছে।
স্টিপানভ বলেন, কানাডিয়ান পক্ষ থেকে সত্যিকার কূটনৈতিক চেষ্টা নেই। রাশিয়ার সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো মীমাংসার কোনো সামর্থ্য বা আগ্রহও তাদের নেই। তারা এগুলো টুইটারে টেনে আনছে। পশ্চিমা বিশ^ রাশিয়াকে বিচ্ছিন্ন করার যে চেষ্টা করছে, কানাডা তার নেতৃত্ব দিচ্ছে বলে মনে হচ্ছে।

- Advertisement -

গত ফেব্রুয়ারিতে রাশিয়া ইউক্রেন আক্রমণ করার পর থেকে মস্কোর সঙ্গে অটোয়ার সম্পর্কে টানাপড়েন শুরু হয়েছে। অভিজ্ঞতা নেই এমন ব্যক্তিকে গত সেপ্টেম্বরে সেনাবাহিনীতে অন্তর্ভুক্ত করে মস্কো। সেই সঙ্গে প্রতিবেশি রাশিয়া থেকে লোকজন পালিয়ে যাওয়ার ঘটনা বেড়ে যাওয়ার ব্যাপারে জর্জিয়া ও কাজাখস্তান সরকারের দাবি প্রত্যাখ্যান করে তারা।

গ্লোবাল অ্যাফেয়ার্স কানাডা গত সপ্তাহে এক টুইটে জানায়, সংখ্যালঘু জাতিগোষ্ঠীকে উদ্দেশ্য করে এই ড্রাফট এবং এর ফলে বিক্ষোভ দেখা দেয়, যার ফলে হাজার হাজার রাশিয়ার নাগরিক পালিয়ে যায়।

এ দাবি অস্বীকার করে পালিয়ে যাওয়া ব্যক্তিদের কাপুরুষ হিসেবে আখ্যায়িত করেন স্টিপানভ। তিনি বলেন, রাজনৈতিক মতাদর্শ ভুলে সত্যিকারের রাশিয়ানের দেশকে রক্ষা করার কথা। দেশের জাতীয় সেনাবাহিনীর পাশে দাঁড়ানোর নৈতিক কোনো বিকল্প নেই।
এ মাসের গোড়ার দিকে মস্কোতে কানাডার রাষ্ট্রদূতকে তলব করে রাশিয়া। এর প্রতিবাদে অটোয়াও চলতি বছর স্টিপানভকে পাঁচবার তলব করেছে। রাষ্ট্রদূতকে তলব করা কোনো স্বাভাবিক ঘটনা নয় এবং বিদেশি কোনো রাষ্ট্রের নীতি বা তাদের কূটনৈতিক মিশনের কোনো

আচরণের আনুষ্ঠানিক প্রতিবাদ জানাতেই রাষ্ট্রদূতকে ডেকে পাঠানো হয়ে থাকে। ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেন হামলার কিছুদিন পরই স্টিপানভকে প্রথম তলব করে অটোয়া। এরপর এপ্রিলে বুচায় তা-ব চালানোর পর আরেকবার তলব করা হয়। অক্টোবরে কিয়েভে রাশিয়ান বাহিনীর বোমা হামলার পর তৃতীয়বার তাকে ডেকে পাঠায় অটোয়া। কানাডায় রুশ দূতাবাস এলজিবিটিকিউবিরোধী বার্তা টুইট করলে গত নভেম্বরে চতুর্থবারের মতো তলব করা হয় স্টিপানভকে। এছাড়া হলোদোমোর নামে পরিচিত ১৯৩০ এর দশকের ইউক্রেন দুর্ভিক্ষ নিয়ে বিতর্কের কারণে চলতি মাসে আরেকবার তাকে ডেকে পাঠায় অটোয়া।

 

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles