27.7 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, জুন ২০, ২০২৪

তৃতীয় প্রান্তিকে বাড়ির দাম কমেছে ৬%

তৃতীয় প্রান্তিকে বাড়ির দাম কমেছে ৬%
ছবি কনার স্যামুয়েল

গ্রেটার টরন্টো এরিয়াতে (জিটিএ) দ্বিতীয় প্রান্তিকের তুলনায় তৃতীয় প্রান্তিকে বাড়ির দাম প্রায় ৬ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে। সামনের মাসগুলোতে দাম আরও কমবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বছরওয়ারি হিসাব করলে ২০২২ সালের তৃতীয় প্রান্তিকে জিটিএতে বাড়ির গড় দাম আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ২ দশমিক ১ শতাংশ বেশি ছিল। তৃতীয় প্রান্তিকে জিটিএতে বাড়ির গড় দাম ছিল ১০ লাখ ৯ হাজার ডলার।

- Advertisement -

যদিও বছরের শেষ প্রান্তিকে জিটিএতে বাড়ির গড় দাম ১০ লাখ ৮ হাজার ডলারে নেমে আসতে পারে এবং সেটা হবে টানা তৃতীয় প্রান্তিক মূল্যহ্রাস। রিয়েলটরদের জুলাইয়ের পূর্বাভাসের পর এটা সবচেয়ে হতাশাজনক প্রতিবেদন। জুলাইয়ের পূর্বাভাসে চতুর্থ প্রান্তিতে বাড়ির দাম প্রায় ৩ শতাংশ বাড়বে বলে উল্লেখ করা হয়েছিল। এ অবস্থায় রয়্যাল লাপেজের বিশ্লেষকরা বলছেন, মূল্যহ্রাসের এই চক্রে বাড়ির দাম সবচেয়ে বেশি কমেছে দ্বিতীয় প্রান্তিকে এবং এই দাম বছরের বাকি সময়ে কম-বেশি বজায় থাকবে।

মূল্যস্ফীতির হার কমানোর কৌশল হিসেবে আগ্রাসীভাবে সুদের হার বাড়ানোর কারণে গত কয়েক মাসে কানাডাজুড়ে আবাসন বাজারে নি¤œমুখীতা দেখা যাচ্ছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মহামারির মাঝখানে বাড়ির দাম আকাশচুম্বি হওয়ার পর আবাসন বাজার ঐতিহাসিক মূল্য সংশোধনের মধ্যে আছে। এর কারণ মূলত সুদের হার বৃদ্ধি ও কানাডিয়ানদের ব্যয় করার মতো আয় হ্রাস পাওয়া।

গ্রীষ্মের ছুটি শেষে সেপ্টেম্বরে বাড়ি বিক্রি বাড়তে দেখি আমরা। কিন্তু এ বছর সেটা দেখা যাচ্ছে না। বিশেষ করে মাসভিত্তিক বিক্রি কমতে দেখা যাচ্ছে।
সুইজারল্যান্ডের ইউনিয়ন ব্যাংক সম্প্রতি তাদের গ্লোবাল রিয়েল এস্টেট বাবল ইনডেক্স ২০২২ প্রকাশ করেছে। কোন শহরে আবাসন বাজারের বুদবুদ সবচেয়ে বেশি সেটি উল্লেখ করা হয়েছে এতে। তালিকায় সবার ওপর রয়েছে টরন্টোর আবাসন বাজার। কানাডার আরেক শহর ভ্যানকুভারের অবস্থান তালিকায় ষষ্ঠ।

রয়্যাল লাপেজ ২০২২ সালের শেষ দিকে জিটিএতে বাড়ির গড় দাম ৩ লাখ ডলারে পৌঁছে যাবে বলে শুরুতে পূর্বাভাস দিয়েছিল। যদিও এখন তারা পূর্বাভাস সশোধন করে বাড়ির দাম কমবে বলে জানাচ্ছে।

রয়্যাল লাপেজের প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা কারেন ইয়োলেভস্কি এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলেন, প্রথমবারের মতো বাড়ি কিনতে আগহী অনেকেই তাদের পরিকল্পনা আপাতত স্থগিত করেছেন, যা ভাড়া বাড়ির চাহিদা বাড়িয়ে দিয়েছে। এর ফলে গত কয়েক মাস ধরে ভাড়া বাড়ছে আকাশচুম্বি।
ব্যাংক অব কানাডা চলতি বছরের এখন পর্যন্ত নীতিনির্ধারণী সুদের হার দশমিক ২৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ৩ দশমিক ২৫ শতাংশে উন্নীত করেছে। মূল্যস্ফীতি কমাতে আগামীতে সুদের হার আরও বাড়তে পারে বলেও সতর্ক করে দিয়েছে তারা।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles