11.3 C
Toronto
শনিবার, নভেম্বর ২৬, ২০২২

আমি খুবই খুশি, এবং গর্বিত: সাকিব

Shakib Al Hasan : আমি খুবই খুশি, এবং গর্বিত: সাকিব - the Bengali Times

পাওয়ার প্লে’র উড়ন্ত সূচনা আশা জাগিয়েছিল বড় কিছুর। কিন্তু বৃষ্টির বিরতিতে যেন বদলে গেল সবকিছু। লিটন দাস ছাড়া বাকি ব্যাটারদের দায়িত্বহীন ব্যাটিংয়ে শেষ হাসি হাসল ভারত। জয়ের খুব কাছ থেকে আরও একবার ফিরে আসতে হল বাংলাদেশকে। তারপরও অধিনায়ক সাকিবের তৃপ্তির সূর।

- Advertisement -

১৮৫ রানের লক্ষ্যে লিটনের ঝড়ো ফিফটি বাংলাদেশকে এগিয়ে দিয়েছিল অনেকটুকু। বৃষ্টি আসাতেও বৃষ্টি আঈনে সাকিববাহিনী এগিয়ে ছিল ১৭ রানে। কিন্তু বিরতির পর ৯ ওভারে ৮৫ রান করতে ব্যর্থ হয় পুরো দল। তবে পুরো ম্যাচে সতীর্থদের চেষ্টায় অধিনায়ক খুশি ও গর্বিত।

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে এসে সাকিব জানিয়েছেন, দুই পরিস্থিতিতে লক্ষ্য কঠিন মনে হয়নি তাদের। কিন্তু শেষ পর্যন্ত জয়ী দলের কাতারে না থাকতে পারাটা তার কাছে দুর্ভাগ্য। সাকিব বলেন, যে অবস্থায় আমরা ছিলাম কোনো রানটাই কঠিন মনে হচ্ছিল না।’

‘আপনি যদি দেখেন ৭ ওভার শেষে ৭০ কাছাকাছি রান, বিনা উইকেটে। এরকম একটা দিনে প্রতিদিন আপনি গ্রহণ করবেন। এবং আপনি আপনার দলকে ব্যাক ও করবেন যে জিততে পারে। আমি যেটা বললাম যে হ্যাঁ আমরা জিততে পারিনি দুর্ভাগ্যজনক ভাবে। আমি খুবই খুশি, এবং গর্বিত সবাই যেভাবে চেষ্টা করেছে মাঠে।’

বাংলাদেশ পাওয়ার প্লে’তে উড়লেও ভারতকে তাদের ইনিংসে চেপে ধরেছিল বোলাররা। ৬ ওভারে প্রতিপক্ষ তুলেছিল মাত্র ৩৭ রান। কিন্তু সেখান থেকে সুযোগ কাজে লাগাতে পারেনি বোলাররা। বিশেষ করে শরিফুল ইসলাম ছিলেন খরুচে, ৪ ওভারে দিয়েছেন ৫৭ রান।

হাসান মাহমুদ ৩ উইকেট নিলেও দিয়েছেন ৪৭ রান। সাকিব মনে করছেন, তরুণ দুই পেসার খেলতে খেলতেই শিখবে। প্রতি ম্যাচে যে সবার পক্ষে ভালো করা সম্ভব না তাও মানেন দলপতি। তবে পুরো ম্যাচ থেকেই অনেক কিছু শেখার আছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

সাকিবের ভাষ্যমতে, ‘খেলতে খেলতে শিখবে সবাই। প্রতি ম্যাচেই কেউ না কেউ ভালো করবে, কেউ না কেউ খারাপ করবে। কোনো নির্দিষ্ট খেলোয়াড়কে নিয়ে মন্তব্য করতে আমি কখনোই পছন্দ করি না।’

‘বোলিংয়ে কিছু জায়গায় আরেকটু ভালো করা যেত। হয়ত পরিস্থিতি আর অভিজ্ঞতার কমতির কারণে হয়ত হয়নি। তবে এখান থেকেই অনেক বেশি শেখার আছে।’

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles