30.6 C
Toronto
রবিবার, আগস্ট ৭, ২০২২

নগরীর স্বয়ংক্রিয় স্পিড ক্যামেরার নতুন উপাত্ত

- Advertisement -
নগরীর স্বয়ংক্রিয় স্পিড ক্যামেরার নতুন উপাত্ত
টরন্টো সিটি মেয়র জন টরি

টরন্টোজুড়ে যানবাহনের গতিসীমা নিয়ন্ত্রণে আনার উদ্যোগের অংশ হিসেবে এপ্রিলে মোট ২২ হাজার ৬৩৫টি টিকিট ইস্যু করা হয়েছে। জুনের শুরুর দিকে ক্যামেরাগুলো অন্য স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। মার্চে সিটি কর্তৃপক্ষ সর্বমোট ৩০ হাজার ৪৬৬টি টিকিট ইস্যুর কথা জানিয়েছিল। এর মধ্যে একাধিকবার গতিসীমা লঙ্ঘনের ঘটনা ছিল ২ হাজার ৫০১টি। সম্প্রতি গতিসীমা লঙ্ঘনের দায়ে টরন্টোর এক চালকের নামে এক মাসেই ১৫বার টিকিট ইস্যু করা হয়েছে। নগরীর স্বয়ংক্রিয় স্পিড ক্যামেরার নতুন উপাত্তে এই তথ্য উঠে এসেছে।

সিটি কর্মকর্তাদের তথ্য অনুযায়ী, ওই ব্যক্তিকে ডোরিস এভেনিউ, স্প্রিং গার্ডেন এভিনিউয়ের উত্তরে, শেফার্ড এভিনিউ ইস্ট এবং ডন মিলস রোডের পশ্চিমে ১৫বার গতি সীমা লঙ্ঘন করতে দেখা গেছে। এপ্রিলে নগরীর ৫০টি স্বয়ংক্রিয় স্পিড ক্যামেরার ছবিতে যে ১ হাজার ৫০৬ জনকে গতিসীমা লঙ্ঘন করতে দেখা গেছে ই চালক তাদের একজন।

সিটি কর্তৃপক্ষের দেওয়া উপাত্ত অনুযায়ী, একজন চালককে সর্বোচ্চ ৭১৮ ডলার জরিমানা করা হয়। ডন মিলস রোডের পশ্চিমে শেফার্ড এভিনিউ ইস্টে যানবাহনের সর্বোচ্চ গতিসীমা ঘণ্টায় ৫০ কিলোমিটার হলেও ওই চালকের গাড়ির গতি ছিল ঘণ্টায় ৯৯ কিলোমিটার।

টরন্টো মেয়র জন টরি এক বিবৃতিতে বলেন, মার্চ থেকে এপ্রিল পর্যন্ত ক্যামেরার টিকিট ইস্যুর সংখ্যা হ্রাস পাওয়ার বিষয়টি উৎসাহব্যঞ্জক। এর অর্থ হলো ক্যামেরা স্থাপনের একটা প্রভাব সংশ্লিষ্ট অঞ্চলের ওপর পড়ছে।

গত বছরের জুলাই থেকে এএসই ডিভাইস স্বয়ংক্রিয়ভাবে গতিসীমা লঙ্ঘনকারী চালকদের নামে টিকিট ইস্যু করে আসছে। নির্দিষ্ট গতিসীমার চেয়ে ১ থেকে ১৯ কিলোমিটার পর্যন্ত অতিরিক্ত গতিতে গাড়ি চালালে প্রতি কিলোমিটারে জরিমানার পরিমাণ ৫ ডলার। নির্ধারিত গতিসীমার চেয়ে ২০ থেকে ২৯ কিলোমিটার বেশি গতিতে গাড়ি চালানোর শাস্তি কিলোমিটারপ্রতি সাড়ে ৭ ডলার জরিমানা। নির্ধারিত সীমার চেয়ে ঘণ্টায় ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার বাড়তি গতিতে গাড়ি চালালে প্রতি কিলোমিটারে চালককে জরিমান গুনতে হয় ১২ ডলার। তবে কেউ যদি নির্ধারিত গতিসীমার অতিরিক্ত ঘণ্টায় ৪৯ কিলোমিটার গতিতে গাড়ি চালান এবং ক্যামেরায় তা ধরা পড়ে তাহলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে তার নামে ৫৮৮ ডলারের টিকিট ইস্যু হয়ে যাবে। আরও ১৩০ ডলার গুনতে হবে সারচার্জ ও আদালতের খরচ বাবদ। আর কোনো গাড়ির মালিক নির্ধারিত সীমার চেয়ে ঘণ্টায় ৫০ কিলোমিটার বেশি গতিতে গাড়ি চালালে বিচারকের সামনে হাজির হওয়ার জন্য তার নামে সমন জারি করা হবে।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles