5.6 C
Toronto
মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ৬, ২০২২

ঘনিষ্ঠ চুম্বনদৃশ্য কি শুধুই ক্যামেরার কারসাজি? জেনে নিন কিছু তথ্য

ঘনিষ্ঠ চুম্বনদৃশ্য কি শুধুই ক্যামেরার কারসাজি? জেনে নিন কিছু তথ্য
একটি চুমুর দৃশ্য শুট করার জন্য বেশ কিছু প্রযুক্তি, কৌশল ব্যবহার করা হয়

সিনেমায় গুচ্ছ গুচ্ছ চুমুর দৃশ্য, কিছুক্ষণ পর পরই চুমু খাচ্ছেন নায়ক-নায়িকা, কিভাবে শুটিং হয় এগুলোর? আচ্ছা, নায়ক আর নায়িকা অস্বস্তিতে পড়েন না? যখন এসব দৃশ্য ক্যামেরাবন্দি করা হয়, তখন ফ্লোরে কজন থাকেন? এ সব প্রশ্ন সিনেমা দেখার সময় কমবেশি সকলের মাথাতেই আসে। সিনেমা শেষে উবেও যায়।

সত্যি কি চুম্বন করতে হয় নায়ক-নায়িকাকে? নাকি সবটাই ক্যামেরার কারসাজি! না কি সম্পাদকের কৃতিত্ব! এ সব নিয়ে জলঘোলা নেহাত কম হয়নি। তর্কবিতর্কও হয়েছে।

- Advertisement -

ক্যামেরার কারসাজি কিছু ক্ষেত্রে থাকে বটে, তবে মুখ্য ভূমিকা নিতে হয় নায়ক-নায়িকাকেই। চুমুটা কিন্তু তাদের খেতেই হয়। ক্যামেরার সামনে। আবার অনেক ক্ষেত্রে নায়ক-নায়িকা হয়তো একটু কাছাকাছি আসেন। কিন্তু চুম্বন করেন না। তখন ক্যামেরাকেই এদিক-ওদিক ঘুরিয়ে-বেঁকিয়ে ছবি তোলা হয়। বিভিন্ন অ্যাঙ্গেলে দৃশ্যগুলো ধরে রাখা হয়। বাকিটা করেন সম্পাদক।

একটি চুমুর দৃশ্য শুট করার জন্য বেশ কিছু প্রযুক্তি, কৌশল ব্যবহার করা হয়। তবে কোন কৌশলে শুট করা হবে, তা ঠিক করেন পরিচালক। শুট করার কৌশল নিয়ে অভিনেতা-অভিনেত্রীও নিজের মতামত দিতে পারেন। অনেক সময়ই অভিনেতা-অভিনেত্রীরা ততটা স্বচ্ছন্দ হন না এসব দৃশ্যে। তাই তাদের মতামতটাও জরুরি।

অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রী চুম্বনের দৃশ্যে একেবারেই রাজি হন না। সে ক্ষেত্রে পরস্পরের সঙ্গে না করে অভিনেতা বা অভিনেত্রী ক্যামেরার লেন্সে চুম্বন করেন। দর্শকের মনে হয়, যুগলের ঠোঁটের ভেতরে ঢুকে গিয়েছে ক্যামেরা। সবটাই মনে হওয়া।

অনেক সময় অভিনেতা-অভিনেত্রী রাজি না হলে নেওয়া হয় অন্য পন্থা। কাছাকাছি আসেন তারা। সে সময় ক্যামেরা দূরে কোথাও এমন একটা জায়গায় রাখা হয়, যেখানে অভিনেতা-অভিনেত্রীর ঠোঁট দেখা যায় না। মাথার পেছন থেকে দেখে মনে হয় ঘনিষ্ঠ হয়ে চুম্বন করছেন তারা।

নায়ক-নায়িকার ঠোঁট খুলে বা বন্ধ রেখেও চুম্বনের দৃশ্য তোলা হয়। ঠোঁট বুজে চুমু খাওয়ার দৃশ্য এখন প্রায় প্রতি সিনেমাতেই থাকে। হলিউড শুধু নয়, বলিউডের ছবিতেও এধরনের চুমুর দৃশ্য এখন খুব স্বাভাবিক। নায়ক এবং নায়িকা পরস্পরের ঠোঁটে ঠোঁট চেপে চুমু খান। সরাসরি সেই দৃশ্য ধরে রাখে ক্যামেরা। কিছু দৃশ্যে আবার নায়ক বা নায়িকা অন্যজনের অধরোষ্ঠ চেপে ধরেন নিজের ঠোঁট দিয়ে। হালকা করে চুম্বন করে ছেড়ে দেন ঠোঁট।

কিছু ক্ষেত্রে ঠোঁট খুলে চুম্বন করেন নায়ক এবং নায়িকা। এসব দৃশ্যে ব্যবহার করা হয় জিভ। জিভ দিয়ে অন্যজনের ঠোঁট ছুঁতে চাওয়া হয়। ফরাসি চুম্বনের ঢঙে। কম ছবিতেই এ ধরনের সাহসী চুম্বনের দৃশ্য থাকে। নায়ক-নায়িকা রাজি হতে চান না বেশির ভাগ সময়। এসব ঘনিষ্ঠ দৃশ্য পরিচালনার জন্য অনেক ছবিতে অন্য একজন পরিচালক নিয়োগ করা হয়। তিনি ওই সব ঘনিষ্ঠ চুম্বনদৃশ্য পরিচালনা করেন। যেমন হয়েছিল দীপিকা পাড়ুকোন অভিনীত ‘গেহরাইয়া’ ছবিতে। অনেক পরিচালকই মনে করেন, ঘনিষ্ঠ দৃশ্য কোনো অতিথি পরিচালক পরিচালনা করলে অভিনেতা-অভিনেত্রীরা স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন।

চুম্বনের দৃশ্যে অভিনয়ের কিছু আদবকায়দা রয়েছে। সে সব মানতে হয় অভিনেতা এবং অভিনেত্রী- দুজনকেই। চুম্বনের দৃশ্যে অভিনয়ের আগে চিত্রনাট্য নিয়ে নায়ক-নায়িকার কথা বলাটাই নিয়ম। কিভাবে অভিনয় করবেন তারা, কতটা ঘনিষ্ঠ হবেন, সে সময় নিয়ে কথা বলে নেন অভিনেতারা। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে চুম্বনের দৃশ্যে মহড়া দিয়ে নেন অভিনেতারা। যাতে শুটিংয়ের সময় কোনো জড়তা ধরা না পড়ে।

নায়ক-নায়িকা, দুজনকেই মাথায় রাখতে হয়, কতক্ষণ ধরে চলবে চুম্বনের দৃশ্য। নির্ধারিত সময়ে দৃশ্যটি শেষ করাই বাঞ্ছনীয়। নয়তো উভয়ই অস্বস্তিতে পড়তে পারেন। চুম্বনের দৃশ্য শুটের আগে অভিনেতাদের পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখা বাধ্যতামূলক। খেয়াল রাখতে হয়, যাতে মুখে কোনো দুর্গন্ধ না থাকে। নায়ক বা নায়িকা- একজনের মুখেও যদি দুর্গন্ধ থাকে, তাহলে শুটিং বাতিল করা হয় আমেরিকায়। ব্রিটেন বা অস্ট্রেলিয়ায় অবশ্য ততটা কঠোর নীতি নেই।

অভিনেতা বা অভিনেত্রী চাইলে কি ঘনিষ্ঠ চুম্বনের দৃশ্যে অভিনয়ের প্রস্তাব খারিজ করতে পারেন? সব সময় নয়। তবে কিছু কারণ দেখিয়ে এ প্রস্তাব খারিজ করতেই পারেন। খারিজ করার কারণ কী হতে পারে? ধর্মীয় কারণ বা শারীরিক অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে এ ধরনের দৃশ্যে অভিনয় করবেন না বলে জানাতে পারেন অভিনেতারা।

অনেক অভিনেতা বা অভিনেত্রীর সঙ্গীর সঙ্গে এধরনের দৃশ্যে অভিনয় করবেন না বলে চুক্তি থাকে। সে চুক্তি ভাঙতে পারবেন না জানিয়ে চুম্বনের দৃশ্যে অভিনয় করতে চান না অনেকে। অনেক অভিনেত্রী আবার পর্দার সঙ্গীকে পছন্দ করেন না। বা শুটিংয়ের সময় বিবাদের জেরে ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে অভিনয় করতে চান না।

অভিনেতা বা অভিনেত্রী ঘনিষ্ঠ চুম্বনের দৃশ্যে অভিনয় করতে না চাইলে অনেক সময় বডি ডাবল ব্যবহার করা হয়। ‘স্কারি মুভি ৫’-এই সহ-অভিনেতা চার্লি শিনকে চুম্বন করতে চাননি লিন্ডসে লোহান। ব্যবহার করা হয়েছিল নায়িকার বডি ডাবল। ‘সিন্ডরেলা ম্যান’ ছবিতে রেনি জেলওয়েগার সহ-অভিনেতা রাসেল ক্রো-কে চুম্বন করতে চাননি। এ ক্ষেত্রেও ব্যবহার করা হয়েছিল বডি ডাবল। সূত্র : বলিউডলাইফ ডটকম

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles