12.5 C
Toronto
মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২

নিপুণকে সত্যিকার যৌনকর্মী ভেবে এগিয়ে আসেন খদ্দের

- Advertisement -

সম্প্রতি একটি সিনেমার গল্পের প্রয়োজনে দৌলতদিয়া ঘাটে যৌনপল্লিতে টানা পাঁচদিন ছিলেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী নিপুণ আক্তার। আর সেখানে থেকে খুব কাছ থেকে দেখেছেন যৌনকর্মীদের জীবনযাপন। এ বিষয়ে নিপুণ জানান, ‘চরিত্রের প্রয়োজনে সেখানে পাঁচদিন থাকতে হয়েছে। যা উঠে আসবে “বীরত্ব” সিনেমার গল্পে। যা দেখলে দর্শক বুঝবেন, কেন আমি সেখানে ছিলাম।’

আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে প্রেক্ষাগৃহে। মুক্তি উপলক্ষে মঙ্গলবার এফডিসির ভিআইপি প্রজেকশন হল রুমে একটি সংবাদ সম্মেলন হয়। যেখানে শুটিংয়ের সময়ের অনেক মজার মজার অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন এই সিনেমা সংশ্লিষ্ট অভিনেতা-অভিনেত্রীরা।

‘বীরত্ব’ সিনেমায় নিপুণের সঙ্গে অভিনয় করেছেন মামুনুন ইমন। সেখানকার শুটিংয়ের অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে গিয়ে এই নায়ক জানান, ‘নিপুণ যৌনকর্মীর সাজ নিয়েছিলেন। সঙ্গে ছিলেন আরেক অভিনেত্রী জেসমিন। নিপুণকে খুবই সুন্দর লাগছিল। শুটিংয়ের জন্য নিপুণ সেখানের কয়েকজন প্রকৃত যৌনকর্মীর সঙ্গে দাঁড়ান। যেভাবে ওখানে মেয়েরা দাঁড়িয়ে থাকেন। নিপুণকে দেখে কয়েকজন খদ্দের সত্যিই এগিয়ে আসেন। তারা নিপুণকে যৌনকর্মী ভেবে চায়…’

ইমন ফেসবুকেও পোস্ট দিয়ে লিখেছেন, লুৎফা যৌনপল্লীর সবচেয়ে সুন্দরী মেয়ে। সবাই তাকে কাছে পেতে চায়। আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর ‘বীরত্ব’ ছবি মুক্তি পাচ্ছে আপনার পাশের প্রেক্ষাগৃহে।

নিপুণ বলেন, ‘সিনেমায় আমি একজন যৌনকর্মীর চরিত্রে কাজ করেছি। আপনারা জানেন আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বর্তমানে যৌনকর্মীদের ভোটাধিকার দিয়েছেন। সিনেমায় তারই একটি অংশ উঠে আসবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা দৌলতদিয়া ঘাটেই শুটিং করেছি। করোনার কিছুটা শেষের দিকে অক্টোবর মাসে কাজ শুরু হয়। এমন চরিত্র আগে কখনও করিনি, তাই চরিত্রটি অনেক চ্যালেঞ্জিং ছিল। পাঁচদিন থাকার পর মোট ১৫ দিন ওখানে শুটিং করেছি। এটা অন্যরকম অভিজ্ঞতা। তাই হলে গিয়ে সিনেমাটি দেখার অনুরোধ জানাচ্ছি।’

Related Articles

Latest Articles