12.5 C
Toronto
মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২

কুইবেক নির্বাচনে ঈর্ষণীয় অবস্থানে লেগু

- Advertisement -
ফ্রাসোয়াঁ লেগু

৫০ বছর ধরে চলা ফেডারেলিস্ট বনাম সেপারেটিস্ট দ্বি-দলীয় শাসনের অবসান ঘটিয়ে ২০১৮ সালের প্রাদেশিক নির্বাচনে জয়লাভ করেন ফ্রাসোয়াঁ লেগু। এর মধ্যে কুইবেকের রাজনীতিতে নতুন যুগের শুরু হয়।

চার বছর পরে এসেও লেগু ও তার জোট অ্যাভেনির কুইবেক শুক্ত অবস্থানে রয়েছে। বিভিন্ন সমীক্ষার ফলাফল বলছে, ৩ অক্টোবরের নির্বাচনে দ্বিতীয়বারের মতো সংখ্যাগরিষ্ঠ আসন নিয়ে জয়লাভ করতে যাচ্ছেন তিনি। লেগুর বড় ব্যবধানে এগিয়ে থাকার একাধিক কারণ ব্যাখ্যা করছেন বিশেষজ্ঞরা। ফ্রাঙ্কোফোনদের মধ্যে জনপ্রিয়তা, বিরোধীদের মধ্যে বিভক্তি এবং কোভিড-১৯ মহামারির মধ্যে তার টেকসই জনপ্রিয়তা এর মধ্যে অন্যতম।

অধিকাংশ সমীক্ষার ফল বলছে, জনসমর্থনে লেগু লিবারেলদের চেয়ে ৪০ শতাংশেল মাঝামাঝি ব্যবধানে এগিয়ে আছেন। লেগুর দলের সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ার সম্ভাবনা ৯৯ শতাংশ বলে জানিয়েছে পোল-এগ্রিগেটর ওয়েবসাইট কিউসি১২৫।

লাভাল বিশ^বিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞানের সহকারি অধ্যাপক ভ্যালেরি-অ্যান মাহেও বলেন, মহামারির দুই বছর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে এবং লেগু ওই সময় সর্বক্ষেত্রেই উপস্থিত ছিলেন। প্রতিদিনই তিনি সংবাদ সম্মেলনে হাজির হয়েছেন। সব সময়ই আমরা তাঁকে দেখেছি এবং স্বাস্থ্য জরুরি অবস্থার কারণে ফরামনবলে তিনি শাসনকাজ চালিয়েছেন। বিরোধী দলগুলো জনগণের সামনে সেভাবে আসতে পারেনি। কারণ, মহামারি সংক্রান্ত অধিকাং আইনের ওপর
বিতর্ক স্থগিত হয়ে গেছে। তবে লেগুর এই উত্থান এবং ক্রমাগত শক্তি বৃদ্ধি যে কেবল পরিস্থিতির কারণে তেমনটা বলা যাবে না।

তিনি বলেন, নতুন রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট পরিবর্তন কাজে লাগাতে সক্ষম হয়েছেন বিদায়ী প্রিমিয়ার। যদিও এই পরিবর্তনটা শুরু হয়েছিল ২০১১ সালে তার দল গঠনের আগেই। ৫০ বছর ধরে কুইবেকের রাজনীতি সংজ্ঞায়িত হয়েছে দুটি লক্ষ্যকে ঘিরেÑপার্টি কুইবেকোয়িসের সার্বভৌমত্ব ও লিবারেল পার্টির ফেডারেলিজম দিয়ে। কিন্তু সার্বভৌমত্বের স্বার্থ মিইয়ে আসায় প্রথাগত ডান-বাম বিভক্তি আবির্ভুত হয়। এই পরিবর্তনের ফলে প্রথাগত দলগুলোর পায়ের তলা থেকে মাটি সরে গেছে। এর সুফল পেয়েছে মধ্য-ডানপন্থী সিএকিউ এবং বামপন্থী কুইবেক সলিডেয়ার।

বিভক্ত রাজনৈতিক দৃশ্যপট লেগুর জন্য সুবিধা এনে দিয়েছে বলে মনে করেন ম্যাকগিল ইনস্টিটিউট ফর দ্য স্টাডি অব কানাডার পরিচালক ড্যানিয়েল বেলান্দ। তিনি বলেন, চারটি বিরোধীদলের প্রতি জনসর্থন ১০ থেকে ২০ শতাংশের মধ্যে। অধিকাংশ দলই রক্ষণাত্মক অবস্থান নিয়েছে বলে মনে হচ্ছে। এর মধ্যে লিবারেল পার্টিও রয়েছে।

রেডিও ব্যক্তিত্ব এরিক দুহাইয়েমের নেতৃত্বে প্রায় অন্ধকার থেকে ফিরে আসা কনজার্ভেটিভ পার্টিকেই এই উত্থানে একমাত্র বিরোধীদল হিসেবে মনে করা হচ্ছে। তবে কুইবেক সিটিতে তাদের প্রতি নতুন সমর্থন ভোটে রূপান্তরিত হবে কিনা তা নিশ্চিত নয়।

গ্রীষ্মে আইনসভা বেঙে দেওয়ার সময় লেগুর দলের আসন ছিল ৭৬টি। এছাড়া কুইবেক লিবারেলদের আসন ছিল ২৭টি, কুইবেক সলিডেয়ারের ১০টি এবং পার্টি কুইবেকোয়িসের সাতটি। এছাড়া কনজার্ভেটিভ পার্টি অব কুইবেকের আসন ছিল এবং বাকি চারটি স্বতন্ত্র প্রার্থীদের।

 

Related Articles

Latest Articles