10.1 C
Toronto
বুধবার, অক্টোবর ৫, ২০২২

‘পালিয়ে যাননি, মেয়েকে শিগগিরই ইতালি নিয়ে যাবেন আমাদের জামাই’

- Advertisement -

‘পালিয়ে যাননি, মেয়েকে শিগগিরই ইতালি নিয়ে যাবেন আমাদের জামাই’

ঠাকুরগাঁওয়ের বালীয়াডাঙ্গীতে বিয়ের এক মাস পর রত্নাকে রেখে ইতালিয়ান যুবকের চলে যাওয়া নিয়ে বিভিন্ন ধরনের কথা উঠেছে। তবে এ বিষয়ে মুখ খোলেননি রত্নার পরিবারের কেউ।

১৯ বছর বয়সী রত্না রানী দাস বালীয়াডাঙ্গীর চাড়োল ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের খোকোপাড়া গ্রামের দিনমজুর মারকুস দাসের মেয়ে।

স্থানীয়রা জানায়, ২৫ জুলাই রত্নার ভালোবাসার টানে নিজের জন্মভূমি ইতালি ছেড়ে ঠাকুরগাঁওয়ে আসেন ৩৯ বছরের আলী সান্দ্রে চিয়ারোমিন্তে। এরপর ধর্মীয় রীতি মেনে তাদের বিয়ে দেওয়া হয়।

রত্নার চাচা সমবারু বলেন, আমাদের জামাই পালিয়ে যাননি। অনেকে বিষয়টি ভুল বুঝছেন। আমাদের ও রত্নার সঙ্গে জামাইয়ের যোগাযোগ রয়েছে। এমনকি রত্নাকেও খুব শিগগিরই ইতালি নেবেন বলে জানিয়েছেন আমাদের জামাই।

ইউপি সদস্য আরিফুল ইসলাম বলেন, ইতালিয়ান যুবকের নামে আমরাও নানা ধরনের কথা শুনেছি। এরপর রত্নার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করি। কিন্তু জামাইয়ের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রয়েছে বলে জানিয়েছে তার পরিবার।

তিনি আরো বলেন, ইতালিয়ান সেই যুবকের সঙ্গে কাজ করেন মেয়েটির চাচা জোসেফ। তার চাচা নিজে দেশে এসে তাদের বিয়ে দেন। একজন চাচা তার আপন ভাতিজিকে কখনো বিপদে ফেলবেন না বলে মনে করছি।

চাড়োল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দিলীপ কুমার চ্যাটার্জি বলেন, সেই ইতালিয়ান যুবক চলে গেছেন বলে আমরা শুনেছি। এরপর অনেকে বিভিন্ন ধরনের মন্তব্য করেন।

সূত্র : ডেইলি বাংলাদেশ

Related Articles

Latest Articles