27.7 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, জুন ২০, ২০২৪

যেভাবে মারা গেলেন গাজী মাজহারুল আনোয়ার

যেভাবে মারা গেলেন গাজী মাজহারুল আনোয়ার
ছবি সংগৃহীত

কিংবদন্তি গীতিকবি, চলচ্চিত্র পরিচালক ও প্রযোজক গাজী মাজহারুল আনোয়ার আর আমাদের মাঝে নেই। তার হঠাৎ মৃত্যুতে সাংস্কৃতিক অঙ্গনে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

রোববার (৪ সেপ্টেম্বর) সকালে গাজী মাজহারুল আনোয়ারের পুত্রবধূ শাহানা মির্জা গণমাধ্যমকে জানান, ঘুম থেকে উঠে বাথরুমে যাওয়ার সময় হঠাৎই পড়ে যান বাবা। অবস্থা খারাপের দিকে গেলে দ্রুত তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়। এরপর ইউনাইটেড হাসপাতালে নেওয়ার পথেই মারা যান তিনি।

- Advertisement -

শাহানা মির্জা আরও জানান, কয়েকদিন ধরে এসিডিটির সমস্যায় ভুগছিলেন বাবা। শনিবার ডাক্তারের কাছে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। রক্ত পরীক্ষা করানো হয়েছিল। আজ (রোববার) আরও কিছু পরীক্ষা করার কথা ছিল।

অনেক কালজয়ী গানের স্রষ্টা, কিংবদন্তি গীতিকার, চলচ্চিত্র পরিচালক ও প্রযোজক ছিলেন তিনি। মিডিয়ায় ১৯৬৪ সাল থেকে কাজ শুরু করেন। তৎকালীন রেডিও পাকিস্তানে ৫০ টাকা আয়ের মাধ্যমে গান লেখার জগতে পা রেখেছিলেন। এরপর তাকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি।

দীর্ঘ ৬০ বছরের ক্যারিয়ারে তিনি ২০ হাজারের বেশি গান রচনা করেছেন। তার লেখা কিছু কালজয়ী গান হলো- জয় বাংলা, বাংলার জয়, আছেন আমার মোক্তার আছেন আমার ব্যারিস্টার, একতারা তুই দেশের কথা বল রে এবার বল, একবার যেতে দে না আমার ছোট্ট সোনার গাঁয়, গানের খাতায় স্বরলিপি লিখে, আকাশের হাতে আছে একরাশ নীল, শুধু গান গেয়ে পরিচয়, ও পাখি তোর যন্ত্রণা, ইশারায় শীষ দিয়ে, চোখের নজর এমনি কইরা, এই মন তোমাকে দিলাম, চলে আমার সাইকেল হাওয়ার বেগে ইত্যাদি।

স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন এই গীতিকার। তার মেয়ে দিঠি আনোয়ারও একজন কণ্ঠশিল্পী। বর্তমানে তিনি দেশের বাইরে আছেন। মেয়ে দেশে ফিরলেই গাজী মাজহারুল আনোয়ারের দাফন সম্পন্ন হবে বলে জানিয়েছেন ছেলে সারফরাজ আনোয়ার।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles