22.9 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, জুন ২০, ২০২৪

উত্তরার দুর্ঘটনা, তদন্তে সামনে এলো আসল কারণ

উত্তরার দুর্ঘটনা, তদন্তে সামনে এলো আসল কারণ

রাজধানী উত্তরায় বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) প্রকল্পের গার্ডারে চাপায় পাঁচজন নিহতের ঘটনায় চীনা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের দায় পেয়েছে তদন্ত কমিটি। কমিটি ওই ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানকে শাস্তি দেওয়ার সুপারিশ করেছে।

- Advertisement -

তবে চুক্তি বাতিল করে ঠিকাদারকে কালো তালিকাভুক্ত করার মতো কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে কিনা- তা মন্ত্রণালয়ের হাতে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) সড়ক পরিবহন সচিবের কাছে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছে কমিটি।

সাত সদস্যের তদন্ত কমিটির কারোরই বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

কমিটি সূত্রে জানা গেছে, তদন্ত প্রতিবেদনে কারাবন্দি ক্রেন অপারেটর আল আমিন হোসেন হৃদয়সহ প্রায় ২০ জনের জবানবন্দি রয়েছে। কারাফটকে হৃদয়ের জবানবন্দি নেওয়া হয়েছে। একইসাথে নেওয়া হয়েছে ১০ জন চীনা নাগরিকের জবানবন্দি। তারা তদন্তে মারাত্মক অসহযোগিতা করেছে। সে কারণেই তদন্তে বিলম্ব হয়েছে। এ বিষয়টিও প্রতিবেদনে রয়েছে।

গার্ডার দুর্ঘটনায় ১০ বাংলাদেশি নাগরিক গ্রেপ্তার করা হলেও সংশ্লিষ্ট চীনা ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের কারো বিরুদ্ধে কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। গার্ডার পড়ে পাঁচজন নিহত হয়েছেন যেখানে, বিআরটির সেই অংশের ঠিকাদার চায়না গেঝুবা গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড। বিআরটির উড়াল অংশের ঠিকাদার চীনের আরেক প্রতিষ্ঠান জিয়াংশু প্রভিন্সিয়াল ট্রান্সপোর্টেশন ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড।

তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আর্থিক সংকটের কারণ চীনা ঠিকাদার গত পাঁচ বছরে কখনোই ঠিকভাবে কাজ করেনি।

তদন্ত কমিটি সূত্র জানিয়েছে, জামিনে বেরিয়ে আসা আসামিদের খুঁজে বের করে জবানবন্দি নেওয়া ছিল সবচেয়ে কঠিন কাজ। তাদের জবানবন্দি, প্রত্যক্ষদর্শীদের বর্ণনায় পুরো ঘটনা উঠে এসেছে। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের নির্দেশেই ছুটির দিনে কাজ করছিলেন সাধারণ কর্মীরা। এতে তাদের কোনো দায় ছিল না। এর দায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles