14.8 C
Toronto
রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২২

ধর্ষণের পর ভিডিও করে ব্ল্যাকমেইল, অতঃপর…

- Advertisement -
প্রতীকী ছবি

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় এক এসএসসি পরীক্ষার্থীকে (১৬) ধর্ষণের পর ভিডিও করে ব্ল্যাকমেইল করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় পরীক্ষার্থীর বাবা বাদী হয়ে সোমবার (১৫ আগস্ট) থানায় তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। এরপরই দুজনকে গ্রেফতার করা হয়।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) গ্রেফতার দুই আসামিকে নোয়াখালীর বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। একই দিন ভিকটিমকে ডাক্তার পরীক্ষার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেফতার আসামিরা হলেন- উপজেলার চরহাজারী ৯নং ওয়ার্ডের লাল খান বাড়ির মো. ইসমাইলের ছেলে তরিকুল ইসলাম বাবু (২১) এবং রামপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড ছমদ আলী মিয়াজি বাড়ির মৃত আবুল কালামের ছেলে আবুল খায়ের পুটন (২৩)।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত অপর আসামি রামপুর ইউনিয়ন ২নং ওয়ার্ডের কেরানীবাড়ির পরানের ছেলে ইমাম হোসেন রুবেল (২৫) পলাতক রয়েছেন।

জানা যায়, ওই এসএসসি পরীক্ষার্থীকে স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। তা প্রত্যাখ্যান করার একপর্যায়ে ওই পরীক্ষার্থী প্রেমের প্রস্তাবে রাজি হয়ে যায়। এ সরলতার সুযোগে গত ৪ আগস্ট (বৃহস্পতিবার) সকালে বিয়ের আশ্বাস দেখিয়ে তরিকুল ইসলাম বাবু ওই ছাত্রীকে উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের একটি একতলা ভবনে নিয়ে ধর্ষণ করে।

পুনরায় রোববার (১৪ আগস্ট) বিকেলে ভিকটিমকে বাবু একই স্থানে নিয়ে যাওয়ার পর পার্শ্ববর্তী আবুল খায়ের পুটন ও ইমাম হোসেন রুবেল ব্লাকমেইল করার জন্য ভিডিও ধারণ করেন। এ সময় ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে বাবুর কাছ থেকে রুবেল বিকাশে ২০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়।

সোমবার (১৫ আগস্ট) ভোরে পুটন ও রুবেলকে ওই বাড়িতে দেখে বাবু তার বন্ধু-বান্ধবকে খবর দিয়ে ঘটনাস্থলে নিয়ে আসে। এ সময় তাদের মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডা হলে সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রকৃত ঘটনা জানার পর বাবু ও ব্ল্যাকমেইলকারী পুটনকে গ্রেফতার করে। অপর আসামি ইমাম হোসেন রুবেল পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাদেকুর রহমান বলেন, ভিকটিম এসএসসি পরীক্ষার্থীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গ্রেফতার দুই আসামিকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Related Articles

Latest Articles