15.7 C
Toronto
শুক্রবার, আগস্ট ১২, ২০২২

একে একে ৬টি বিয়ে, সব বউ এক হয়ে যা করলো স্বামীকে

- Advertisement -
প্রতীকী ছবি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বিয়ের নামে প্রতারণার অভিযোগে ৩৩ বছরের আদপা শিব শঙ্কর বাবুকে গ্রেফতার করেছে অন্ধ্রপ্রদেশ পুলিশ। পুলিশ সূত্রে খবর অভিযুক্ত ব্যক্তি ছয় মহিলাকে বিয়ে করলেও, কেউ কাউকে চিনতো না। অভিযুক্তের নজরে ছিল বিবাহবিচ্ছেদকারীরা।

আর এ জন্য সাহায্য নিত অন্ধ্রপ্রদেশের একটি মেট্রিমোনিয়াল সাইটের। ধৃত নিজেকে একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়র হিসেবে পরিচয় দিত। আর বিয়ের পর যৌতুক হিসেবে পাওয়া নগদ টাকা এবং সোনা নিয়ে উধাও হতো।

এও কী সম্ভব! একটি দু’টি নয়, ছয় ছয়টি বিয়ে। সম্পত্তির লোভে প্রত্যেকবারই বিয়ে করে প্রতারণা করত। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নিজেকে রক্ষা করতে পারেনি ওই ব্যক্তি। বিয়ের নামে প্রতারণার অভিযোগে ৩৩ বছরের আদপা শিব শঙ্কর বাবুকে গ্রেফতার করেছে অন্ধ্রপ্রদেশ পুলিশ। পুলিশ সূত্রে খবর অভিযুক্ত ব্যক্তি ছয় মহিলাকে বিয়ে করলেও, কেউ কাউকে চিনতো না।

অভিযুক্তের নজরে ছিল বিবাহবিচ্ছেদকারীরা। আর এ জন্য সাহায্য নিত অন্ধ্রপ্রদেশের একটি মেট্রিমোনিয়াল সাইটের। পুলিশ জানিয়েছে, ধৃত মঙ্গলাগিরির বাসিন্দা আদপা শিব শঙ্কর বাবু নিজেকে একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়র হিসেবে পরিচয় দিত। আর বিয়ের পর যৌতুক হিসেবে পাওয়া নগদ টাকা এবং সোনা নিয়ে উধাও হতো।

পুলিশ আরও জানিয়েছে, এভাবে পাঁচ জন মহিলার সঙ্গে প্রতারণা করে অভিযুক্ত। কিন্তু ষষ্ঠ বিয়ের পর ধৃতের সমস্ত কীর্তি ফাঁস হয়ে যায়। কোন্ডাপুরের এক মহিলা কয়েকদিন আগে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন, ওই ব্যক্তি ২০২১ সালে বৈবাহিক সাইটে তাঁর প্রোফাইল দেখে এবং তাঁকে বিয়ে করে। কিন্তু বিয়ের কিছুদিনের মধ্যে ২০ লক্ষ টাকা ও সোনা নিয়ে চম্পট দেয় অভিযুক্ত।

পুলিশ অভিযুক্তের সন্ধানে তদন্তে নেমে জানতে পারে তার বিরুদ্ধে রাজ্যের আরসি থানায় আরও একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন এক মহিলা। মঙ্গলাগিরির বাসিন্দাকে ধরতে এরপরই তৎপর হয় পুলিশ এবং বিশাখাপত্তনম থেকে ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে হায়দরবাদ নিয়ে আসা হয়।

আদপা শিব শঙ্কর বাবুর বিরুদ্ধে প্রতারণা, অপরাধমূলক বিশ্বাস ভঙ্গ এবং গোপন করে বিয়ে করার অভিযোগ এনেছে পুলিশ। মঙ্গলাগিরির বাসিন্দার বিরুদ্ধে তেলেঙ্গানা এবং অন্ধপ্রদেশে একাধিক অভিযোগ রয়েছে। ঘটনার তদন্ত করে দেখছে পুলিশ।

৩৩ বছরের আদপা শিব শঙ্কর বাবুর এই কীর্তি যে কোনও সিনেমার গল্পকেও হার মানাবে। এ যেন কপিল শর্মার ২০১৫ সালের ছবি ‘ কিস কিসকো পেয়ার করু‘ ছবির মতো। যেখানে নায়ক তিনজন মহিলাকে বিয়ে করে একই অ্যাপার্টমেন্টে থাকতেন এবং সবার শেষ সম্পর্ক বজায় রাখার চেষ্টা করতেন।

কিন্তু মঙ্গলাগিরির বাসিন্দা বিয়ে করলেও, প্রতারণায় ছিলেন সিদ্ধহস্ত। শুধু অন্ধ্রপ্রদেশ নয়, এমন ঘটনার সাক্ষী ওড়িশাও। মাত্র ৪৮ বছর বয়েসে সাতটি রাজ্যের ১৪ জন মহিলাকে বিয়ে করে সংবাদের শিরোনামে উঠেছিল ওড়িশার বাসিন্দা অ্যাসেজেনারিয়ান। বিয়ে করত, তারপরই টাকা সম্পত্তি নিয়ে চম্পট দিত সে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছিল ভুবনেশ্বর পুলিশ।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles