22.7 C
Toronto
বুধবার, আগস্ট ১৭, ২০২২

একটা বেড অর্ডার করে তিনটা পেলেন পরীমনি

- Advertisement -

মা হতে চলেছেন আলোচিত নায়িকা পরীমনি। অপেক্ষা আর মাত্র কয়েক দিনের। সন্তানের আগমন উপলক্ষে ব্যাপক প্রস্তুতি নায়িকার। চলছে হরদম কেনাকাটা। দোকান ঘুরে ঘুরে কেনাকাটা শেষ। এখন ঢুঁ মারছেন অনলাইনে। ছোট্ট সোনামণির জন্য যা যা পছন্দ হচ্ছে তাই-ই অর্ডার করছেন পরীমনি। কোনো কিছুই বাদ রাখছেন না।

তারই ধারাবাহিকতায় ‘Xebec’ নামে একটি অনলাইন শপ থেকে অনাগত সন্তানের জন্য একটি বেড অর্ডার করেছিলেন ‘স্বপ্নজাল’-এর নায়িকা পরীমনি। তাকে অর্ডার কনফার্মও করা হয়। চমক পেলেন ডেলিভারি বক্স হাতে আসার পর। নায়িকা সেটি খুলে দেখেন, বাক্সে একটি নয়, তিন তিনটে বেবি বেড।

অর্থাৎ, এই পার্সেলটি ছিল পরীমনির অনাগত সন্তানের জন্য ‘Xebec’ অনলাইন শপটির জন্য বিশেষ উপহার। বাক্সের উপরে সাটানো ছিল একটা উপহার বার্তা। সেখানে লেখা, ‘আপনার এবং আপনার অনাগত সোনামণির সুস্বাস্থ্য ও সুন্দর ভবিষ্যত কামনা করছি। আমরা গর্বিত আপনার প্রিয় বাবুটিকে আমাদের এই ক্যারি বেডটি উপহার দিতে পেরে।’

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পরীমনি এ কথা তার ফেসবুকে কয়েকটি ছবিসহ একটি লম্বা পোস্ট দিয়ে অনুরাগীদের সঙ্গে শেয়ার করেছেন। নায়িকা লিখেছেন, ‘প্রেগনেন্সির এই সময়টায় আমি নিজেকে অনেক সময় দিয়েছি নানান ভাবে। নিজের মতো করে নতুন নতুন অনেক কিছু শিখেছি। তার মধ্যে একটি হলো অনলাইন শপিং!’

‘কী যে মজা লাগতো শুরুতে আমার। এতই মজা পেয়ে গিয়েছিলাম যে, এটাকে আমি রীতিমতো একটা খেলা বানিয়ে ফেলেছিলাম। মনে আছে, প্রথমবার যখন অনলাইনে শপিং করি তখন রাজ শুটিংয়ে দুর্গাপুর! বাসায় অনেকটাই একা হয়ে গিয়েছিলাম। তখনই একদিন শুরু করে দিলাম অনলাইন শপিং। নানান রকম শপিং!’

‘মাঝে মধ্যে এমনসব অদ্ভুত জিনিস অর্ডার করে বসতাম যে, বাসার লোকেরা এই নিয়ে হাসাহাসি শুরু করে দিতো। একটু পর পর বাসায় নতুন নতুন প্যাকেট খুলব, আমার কাছে এটাই মজা লাগতো। এতে বাসার সবাই একরকম বিরক্তই হওয়া শুরু করল একটা সময়। ধীরে ধীরে আমিও বুঝে গেলাম আসলেই তো শুধু শুধু অপচয় কেন করব।’

‘এরপর যা কিছু আসলেই দরকারি শুধু সে সবই এখন খুঁজে খুঁজে কিনে ফেলি। এসব নিয়েও কত রকম অভিজ্ঞতা হলো আমার। মানুষের এক এক রকম আচরণ। এসবে কখনো অবাক হয়েছি, কখনো খুব আনন্দ হয়েছে, মন খারাপ হয়েছে, কতবার বোকা বনেও গেছি আমি!’

‘আজও তাই। লাস্ট উইক থেকে আমরা দুজন আমাদের পুচকুর জন্যে কেনাকাটা শুরু করেছি। ঢাকার মধ্যে মোটামুটি সবকটি বেবি শপ শেষ করেছি। বাকি রইল এই অনলাইন পার্ট, ঘরে বসে আরাম করে ইচ্ছা মতো দেখো আর কেনো।মজাই সত্যি।’

‘Xebec’ থেকে আমি আমার পছন্দ মতো বেড অর্ডার করলাম। অর্ডার কনফার্ম করা হলো আমাকে। কিন্তু বাসায় ডেলিভারি হয়ে এলো বক্স ভর্তি উপহার! যদিও তারা বক্সের গায়ে লিখেছে বেডটি। কিন্তু খুলে দেখি এখানে তিনটি বেড। কী সুন্দর বেডগুলো! আমি সত্যি মুগ্ধ হয়ে যাই এরকম ভালোবাসার কাছে।’

সূত্র : ঢাকাটাইমস

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles