25.5 C
Toronto
সোমবার, আগস্ট ৮, ২০২২

ফেসবুকে ‘লাশের ছবি’ পোস্ট করে নিজেকে মৃত দাবি, তারপর যা ঘটলো …

- Advertisement -

ফেসবুকে ‘লাশের ছবি’ পোস্ট করে নিজেকে মৃত দাবি, তারপর যা ঘটলো ...

শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে প্রেমের টানে নিখোঁজ হওয়া এক কিশোরীকে উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। শনিবার গাজীপুরের হোতাপাড়া এলাকা থেকে প্রেমিক মাহদি মৃধাসহ তাকে উদ্ধার করা হয়। সে উপজেলার ভটপুর গ্রামের কোটেশ্বর বর্মণের কন্যা ও বনকুড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী। সে গত রবিবার (২৪ জুলাই) বিদ্যালয়ে যাওয়ার কথা বলে নিখোঁজ হয়।

পুলিশ জানায়, গাজীপুরের হোতাপাড়া এলাকার সিরামিক কারখানার শ্রমিক দশম শ্রেণির ছাত্র মাহদী মৃধার সাথে ৮ মাস আগে ফেসবুকে পরিচয় হয় ওই কিশোরীর। একপর্যায়ে দুজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ২৪ জুলাই মাহদী তার ফোন থেকে কিশোরীর মায়ের মোবাইলে জানায় তাকে বিদ্যালয় থেকে বৃত্তির টাকা দেওয়া হবে। এজন্য তাকে বিদ্যালয়ে আসতে হবে। বিদ্যালয়ে যাওয়ার পর ওই কিশোরী আর বাড়ি ফেরেনি। অনেক খোঁজাখুঁজি করে তার পরিবার নালিতাবাড়ী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।

এদিকে, ওই কিশোরী গাজীপুরের প্রেমিক মাহদী মৃধার কাছে চলে যায়। কিন্তু হিন্দু ধর্মের হওয়ায় মাহদীর পরিবার তাকে মেনে নিতে চায়নি। তাই গত সোমবার (২৫ জুলাই) গাজীপুর আদালতে এফিডেভিট করে ধর্ম ত্যাগ করে মুসলমান হয় ওই কিশোরী। তার বর্তমান নাম তাবাচ্ছুম মৃধা। এরপর থেকে দুজনে সংসার জীবন শুরু করে।
তবে তার পরিবার যেন তাবাচ্ছুমকে খুঁজে না পায়, এজন্য গত মঙ্গলবার (২৬ জুলাই) অনুরাধা সেন নামে ফেসবুক আইডি থেকে মুখ বাঁধা মৃত লাশের মতো একটি ছবি পোস্ট করা হয়। সেখানে বলা হয়, ‘খুঁজে লাভ নেই, ওকে মেরে ফেলা হয়েছে। এর জন্য দায়ী ওর বাবা-মা। সি ইজ ডেড।’

পরে ছবিটি দেখে তাবাচ্ছুমের পরিবার ফেসবুকের ওই আইডিতে কল দিলে বলা হয়, তাবাচ্ছুম আর বেঁচে নেই। এতে দুশ্চিন্তায় পড়ে তাবাচ্ছুমের পরিবার। পরে পুলিশকে জানালে অভিযান চালিয়ে গাজীপুরের হোতাপাড়া থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়। এরপর শনিবার প্রেমিক যুগলকে নালিতাবাড়ী থানায় আনা হয়।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে তাবাচ্ছুম জানায়, সে নিজের ইচ্ছায় মাহদীর কাছে গাজীপুর চলে যায়। মারা গেছে বলে ফেসবুকে প্রচার দিলে পরিবারের লোকজন তাকে আর খোঁজাখুঁজি করবে না। হাল ছেড়ে দেবে। এজন্য সে ওড়না দিয়ে নিজের মুখ বাঁধা মৃত লাশের মতো ছবি ফেসবুকে পোস্ট করে।

এ ব্যাপারে নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বছির আহমেদ বাদল জানান, এটি প্রেমঘটিত ব্যাপার। নিখোঁজ কিশোরীকে গাজীপুর থেকে উদ্ধার করে নালিতাবাড়ী থানায় আনা হয়েছে। তার পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হলে পরবর্তী আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

সূত্র : বাংলাদেশ প্রতিদিন

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles