19.2 C
Toronto
সোমবার, আগস্ট ১৫, ২০২২

পুরনো বাড়িটি আগে বিক্রি করুন

- Advertisement -
ছবি/ভু আন

টরন্টোর এক সময়ের উত্তপ্ত আবাসন বাজারে নিস্তেজতার ইঙ্গিত অব্যাহত। এই অবস্থায় বিক্রেতারা ক্রমেই মরিয়া হয়ে উঠছেন বলে মনে করছেন টরন্টোর রিয়েলটর ব্রেট স্টেইন।

টরন্টোর স্টেইন রিয়েলটি গ্রুপের ব্রেট স্টেইন বলেন, কম দর প্রস্তাব করায় সম্ভাব্য ক্রেতারা দর কষাকষির আরও ক্ষমতা পাচ্ছেন। এই মুহূর্তে দর কষাকষির টেবিল উন্মুক্ত। চাওয়া দরের চেয়ে কম দর প্রস্তাবের কারণে বিক্রেতা হিসেবে আপনি অসম্মানীত হতে পারেন। কিন্তু আপনাকে খেলাটি খেলতে হবে। তথাকথিত বলটি এখন ক্রেতাদের কোর্টে। আপনি যদি ক্রেতা হয়ে থাকেন এবং যথেষ্ট সংখ্যক প্রতিযোগী না থাকে তাহলে দ্রুত কাজ করুন এবং সেটা আপনাকে দর কষাকষির সুবিধা দেবে। অনেকেই এই মুহুর্তে বাড়ি বিক্রির জন্য মরিয়া। কারণ, পরবর্তী বাড়িটি তারা এরই মধ্যে কিনে ফেলেছেন এবং নতুন বাড়ির মূল্য পরিশোধের জন্য পুরনো বাড়িটি তাদের বিক্রি করা প্রয়োজন। দ্রুতই বাড়িটি বিক্রি করা দরকার।

টরন্টো রিজিয়নাল রিয়েল এস্টেট বোর্ড বুধবার জানায়, জুনে টানা চতুর্থ মাসের মতো গ্রেটার টরন্টো এরিয়াতে বাড়ি বিক্রি কমেছে। গত বছরের জুনের তুলনায় চলতি বছরের জুনে জিটিএতে বাড়ি বিক্রি কমেছে ৪১ শতাংশ। ২০২১ সালের জুনে টরন্টো এরিয়াতে ১১ হাজার বাড়ি বিক্রি হলেও চলতি বছরের গত মাসে বিক্রি হয়েছে ৬ হাজার ৫০০টি।

টরন্টোতে জুনের বাড়ি বিক্রি আগের মাসের তুলনায়ও কমেছে। ৭ দশমিক ৭ শতাংশ মূল্যস্ফীতির সঙ্গে ব্যয়বহুল ঋণ আবাসন বাজারে নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে। ৬ জুলাইয়ের সুদের হার বৃদ্ধির পর আবাসন ঋণের সুদের হার দাঁড়িয়েছে ৫ শতাংশের বেশি। আগে যা ২ শতাংশেরও কম ছিল।

স্টেইন বলেন, অবশ্যই স্বল্প সময়ে এটা বিরাট পরিবর্তন। সুতরাং, যেহেতু আপনার সুদের হার বাড়ছে স্বাভাবিকভাবেই আপনার মাসিক কিস্তি বাড়ছে এবং ক্রেতাদের আস্থা কমছে। সুদের হার বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে এবং আগামীতেও এ বৃদ্ধি অব্যাহত থাকবে বলে মনে হচ্ছে। এই কথা মনে করে সম্ভাব্য ক্রেতাদের প্রতি আমার প্রথম পরামর্শ হলো আগের আপনার বিদ্যমান বাড়িটি বিক্রি করুন। তারপর নতুন বাড়িটি কিনুন। এই পাগলা বাজারে সবাই আগে কিনছিলেন। কারণ, তাদের ধারণা ছিল তাদের বাড়ির মূল্য বাড়বে। কিন্তু এখন আগে বিক্রি করুন। তারপর কিনুন।

এই কেনাবেচার কাজটাও অংক কষে করতে হবে বলে মনে করেন স্টেইন। তিনি বলেন, দাম যদি পড়তেই থাকে তাহলে কতদূর পর্যন্ত পড়বে? আপনি যদি ৫০ হাজার ডলার ছাড় পান তাহলে ১ শতাংশ সুদের হার বৃদ্ধির সঙ্গে এর তুলনা করলে কি দাঁড়ায়? এগুলো আপনাকে জানতে হবে। সেই সঙ্গে কি পরিমাণ মাসিক কিস্তি দিতে পারেন সেটাও ভাবতে হবে।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles