22.7 C
Toronto
বুধবার, আগস্ট ১৭, ২০২২

উচ্চ মূল্যস্ফীতির চাপে শিক্ষার্থীরা

- Advertisement -
ফাইল ছবি

হান্নাহ সুলিভান ফ্যাকনিটজ যখন তাদের অ্যাপার্টমেন্টে জরিপ চালাচ্ছিলেন তখন প্রতি কোণায় মূল্যস্ফীতির চোখ রাঙানি। সেখানে যে কাপড়গুলো ডিটারজেন্ট ব্যয়বহুল হয়ে পড়ায় দুই সপ্তাহ ধরে ধোয়া হয় না।

ইউনিভার্সিটি অব ব্রিটিশ কলাম্বিয়ার গ্র্যাজুয়েট শিক্ষার্থী ফ্যাকনিটজ বলছিলেন, অনেকদিন হলো মেকআপ কিনতে পারিনি। আমি স্কুইশম্যালোজ সংগ্রহ করি। কিন্তু লন্ডন ড্রাগসে যেতে পারিনি। এই কারণে স্কুইশম্যালোজ কেনা হয়নি। টেকআউট সেবা যে নেবো সে সামর্থও নেই। ভালো বেতনের চাকরি সত্ত্বেও আমি কোনোরকমে টিকে আছি।

গত মে মাসে শিক্ষার্থীরা ৭ দশমিক ৭ শতাংশ মূল্যস্ফীতির চাপে ছিল, ১৯৮৩ সালের পর যা সর্বোচ্চ। সেই সঙ্গে ছিল কোভিড-১৯ এর কারণে অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, শ্রমিক সংকট ছিল, সরবরাহ ব্যবস্থা বিঘিœত হয়েছে এবং মন্দার পদধ্বনি শোনা যাচ্ছিল।

এর অর্থ হলো ক্রমবর্ধমান টিউশন ফি, আবাসন ও খাদ্যের খরচ এবং বই কেনা এমনকি মৌলিক চাহিদাগুলোও অনেক ব্যয়বহুল হয়ে পড়েছে, যা সামাল দেওয়ার সামর্থ শিক্ষার্থীদের নেই। অধিকাংশ শিক্ষার্থীই এ ধরনের মূল্য বৃদ্ধির সঙ্গে পরিচিত নয়। সর্বশেষ যখন মূল্যস্ফীতি সর্বোচ্চ ছিল সে সময় অনেকের জন্মও হয়নি। এবং পরবর্তী জীবনে যারা বিশ^বিদ্যালয় ও কলেজে ভর্তি হবে তারা উচ্চ মূল্যস্ফীতির অধীনে জীবন-যাপন স্মরণে আনতে পারবে না।

অন্টারিওর উইন্ডসরের বিএমও প্রাইভেট ওয়েলথের জ্যেষ্ঠ বিনিয়োগ পরামর্শক ডেভিড বয়ড বলেন, প্রয়োজন বনাম বিলাসিতার বিষয়টি সামনে চলে আসছে। উদাহরণ হিসেবে ফ্যাকনিটজ এরই মধ্যে ক্র্যাফট ডিনার শুরু করে দিয়েছে।

যেসব শিক্ষার্থী কর্মহীন আছে তাদেরকে চাকরি নেওয়ার বিষয়টি বিবেচনার পরামর্শ দিয়েছেন বয়ড। ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী ও হ্যালিফ্যাক্সের ডালহৌসি স্টুডেন্ট ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট অপর্ণা মোহন বলেন, খরচ মেটাতে অধিকাংশ শিক্ষার্থীই এরইমধ্যে দুটি চাকরিতে ঢুকে গেছেন। খাদ্য ও বাড়ি ভাড়া তাদের ওপর সবচেয়ে বেশি আর্থিক চাপ সৃষ্টি করছে।

রেন্টালসডটসিএর উপাতক্ত অনুযায়ী, জুনে কানাডায় বাড়ি ভাড়া বেড়েছে মাসিক গড়ে ১ হাজার ৮৮৫ ডলার, গত বছরের একই সময়ের তুলনায় যা ৯ দশমিক ৫ এবং ২০১৯ সালের জুনের তুলনায় ৩ দশমিক ৫ শতাংশ বেশি। হ্যালিফ্যাক্সে এক শয়নকক্ষের একটি ইউনিটের ভাড়া ছিল মে মাসে ১ হাজার ৭১২ ডলার, গত বছরের একই সময়ের তুলনায় যা ১২ শতাংশ বেশি।

 

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles