25.5 C
Toronto
সোমবার, আগস্ট ৮, ২০২২

মিউচুয়াল ফান্ড ও বন্ডে বিনিয়োগ করে ভালো রিটার্ন নিওয়ার আহ্বান বিএসইসির চেয়ারম্যানের

- Advertisement -

মিউচুয়াল ফান্ড ও বন্ডে বিনিয়োগ করে ভালো রিটার্ন নিওয়ার আহ্বান বিএসইসির চেয়ারম্যানের

মিউচুয়াল ফান্ড ও বন্ডে বিনিয়োগ করে ভালো রিটার্ন নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম।

বিএসইসি চেয়ারম্যান বলেছেন, ‘বর্তমানে ক্যাপিটাল মার্কেটে দুটি প্রোডাক্ট আছে, যা ভালো রিটার্ন দিচ্ছে। সেটি অলমোস্ট ফিক্সড অ্যান্ড সিকিউরড। একটি হলো মিউচুয়াল ফান্ড, যারা এক থেকে ২০ শতাংশ রিটার্ন দিচ্ছে। আরেকটি হলো বন্ড মার্কেট, যা ফিক্সড কুপন রেটে পেমেন্ট করে। এ দুটি ক্ষেত্রে আপনাদের কিছুই করতে হবে না। সময়ান্তে তারা অ্যাকাউন্টে ডিভিডেন্ড বা ফিক্সড কুপন পেমেন্ট পাঠিয়ে দেবে।’

শনিবার (৩০ জুলাই) ময়মনসিংহের টাউন হলে অ্যাডভোকেট তারেক স্মৃতি অডিটোরিয়ামে বিএসইসি এবং বাংলাদেশ একাডেমি ফর সিকিউরিটিজ মার্কেটের (বিএএসএম) উদ্যোগে আয়োজিত ‘বিনিয়োগ শিক্ষা কনফারেন্স ২০২২’ এর সমাপনী দিনে সভাপতির বক্তব্যে বিএসইসি চেয়ারম্যান এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ ও বিশেষ অতিথি হিসেবে ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের মেয়র ইকরামুল হক টিটু উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিএসইসির কমিশনার অধ্যাপক ড. শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ।

শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেন, ‘ফিক্সড ডিপোজিটের রেট কমে যাওয়া ও ইনফ্লেশনের রেট বেড়ে যাওয়ার কারণে সঞ্চয়ের যে সুযোগ ছিল, তা এখন নেই। তাই, এখন আপনাকে হাইয়ার রিটার্নের দিকে যেতে হবে। সেক্ষেত্রে আপনি বিচার-বিশ্লেষণে ভয় পেলে মিউচুয়াল ফান্ড বা বন্ডে বিনিয়োগ করতে পারেন। আর আপনি যদি রিস্ক নিতে চান, তাহলে জেনে-বুঝে, স্পেকুলেশন, অ্যাডভাইস ও ক্যালকুলেশনের মাধ্যমে বিনিয়োগ করুন।’

‘আজকের এ অনুষ্ঠনে বোঝানোর চেষ্টা করা হয়েছে যে, বিচার-বিশ্লেষণ করে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করার সক্ষমতা থাকতে হবে। এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট জ্ঞান না থাকলে কোনো কিছুই করা উচিত নয়। বিনিয়োগ শিক্ষার জন্য আমাদের দুটি প্রতিষ্ঠান কাজ করে যাচ্ছে। সেই ম্যাসেজটা আজ দিয়ে যাচ্ছি। আপনাদের বিনিয়োগ শিক্ষার সুযোগ উন্মুক্ত।’

শিবলী রুবাইয়াত বলেন, ‘রিস্ক নিয়ে ভালো লাভ করার ইচ্ছা থাকলে আপনাকে স্মার্ট ইনভেস্টর হতে হবে। স্মার্ট ইনভেস্টর হলে কখনো আপনি ক্ষতির সম্মুখীন হবে না। আমাদের এই মার্কেটে যারা স্মার্ট ইনভেস্ট করেন, তারা কিন্তু অনেক টাকা আয় করেন। যারা না বুঝে বা বিভিন্ন জনের কথা শুনে বিনিয়োগ করে, তারাই বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হন। এজন্য আপনাকে বিনিয়োগের বিষয়ে অধিক সচেতন হতে হবে। এ ধরনের শিক্ষা বা জ্ঞান-বুদ্ধি নিয়ে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগে আসতে হবে।’

বিএসইসির চেয়ারম্যান বলেন, ‘এখানে অনেক বুদ্ধিমান লোক আছে, যারা ইচ্ছে করেই গুজব ছড়িয়ে দেয়। তাদের এ গুজব ছড়ানোর বিষয়ে কোনো উদ্দেশ্য থাকে। অনেক সময় রাজনৈতিক উদ্দেশ্যেও গুজব ছড়ানো হয়। প্যানিক ক্রিয়েট করা হয়। তাই, গুজবে কান দেবেন না। আননেসেসারি পেনিকড হবেন না। বিনিয়োগ শিক্ষা আজ ও আগামীর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’

ময়মনসিংহের উন্নয়ন প্রসঙ্গে শিবলী রুবাইয়াত বলেন, ‘ময়মনসিংহের মেয়র একজন জ্ঞানী-গুণী ব্যক্তি। তিনি ময়মনসিংহ অঞ্চলকে অন্তরের অন্তঃস্থল থেকে ভালোবাসেন। উনার কাছ থেকে যেটা শুনতে পেয়েছি যে, সামনে ময়মনসিংহ শহর অনেক সুন্দর হবে। ময়মনসিংহ শহর একদিকে সরকারের রাজস্ব খাতের টাকা থেকে উন্নত হবে, আরেকদিকে আমরাও ক্যাপিটাল মার্কেট থেকে অল্টারনেটিভ ফাইন্যান্সের মাধ্যমে এই শহর, বিভাগ ও জেলার উন্নয়নের অনেক সল্যুশন বের করে দেবো। অল্টারনেটিভ ফাইন্যান্সের মাধ্যমে উন্নত বিশ্বের যে সমস্ত শহরের উন্নতি হয়েছে, সে বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এর মধ্যে মুনি বন্ড ও ইনফ্রাস্ট্রাকচারাল বন্ড আছে।’

অনুষ্ঠানে আরও ছিলেন বিএসইসির কমিশনার ড. রুমানা ইসলাম, বিএসইসির সাবেক কমিশনার আরিফ খান, ডিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. তারিক আমিন ভুঁইয়া, বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক সাইফুর রহমান, বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম, বিএসইসির বিনিয়োগ শিক্ষা বিভাগের নির্বাহী পরিচালক রিপন কুমার দেবনাথ, বাংলাদেশ একাডেমি ফর সিকিউরিটিজ মার্কেটের (বিএএসএম) মহাপরিচালক ড. তৌফিক আহমেদ, ডিএসই ব্রোকার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ডিবিএ) সভাপতি রিচার্ড ডি রোজারিও, রশীদ ইনভেস্টমেন্ট সার্ভিসেসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও ডিবিএর সাবেক সভাপতি আহমেদ রশীদ লালী প্রমুখ।

সূত্র: ঢাকাটাইমস

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles