22.7 C
Toronto
বুধবার, আগস্ট ১৭, ২০২২

টিটিসির বিরুদ্ধে ৩০ লাখ ডলারের মামলা

- Advertisement -
বাধ্যতামূলক ভ্যাকসিনেশন নীতির সঙ্গে সম্পর্কিত বরখাস্তের ঘটনায় প্রায় ৩০ লাখ ডলারের মামলার মুখে পড়েছে টরন্টো ট্রানজিট কমিশন

গত বছর আরোপিত বাধ্যতামূলক ভ্যাকসিনেশন নীতির সঙ্গে সম্পর্কিত বরখাস্তের ঘটনায় প্রায় ৩০ লাখ ডলারের মামলার মুখে পড়েছে টরন্টো ট্রানজিট কমিশন। কর্মীদের অভিযোগ, ভ্যাকসিনেশন নীতিকে সামনে এনে অন্যায়ভাবে তাদেরকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

আদালতের যে নথি সিটিভি নিউজ টরন্টো দেখেছে তাতে অন্তত চারজন সাবেক কর্মীর ২৯ লাখ ডলারের মামলার বিষয়টি রয়েছে। টিটিসি প্রথমে ২০১৯ আগস্ট বাধ্যতামূলক কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনেশন নীতির বিষয়ে ঘোষণা দেয়। শুরুতে ২০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সব কর্মীকে ভ্যাকসিনেশন সংক্রান্ত তথ্য জানাতে বলা হয়। আর পূর্ণাঙ্গ ভ্যাকসিনেশনের পক্ষে প্রমাণপত্র প্রদর্শন করতে বলা হয় ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে। পরবর্তীতে কয়েক দফা এর মেয়াদ বাড়ানো হয় এবং প্রতিবারই এ নিয়ে কর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়।

টিটিসির মুখপাত্র স্টুয়ার্ট গ্রিন সিটিভি নিউজ টরন্টোকে দেওয়া এক বিবৃতিতে বলেন, আমাদের ভ্যাকসিনেশন নীতিটি তৈরি করা হয়েছিল কর্মক্ষেত্রে কর্মীদের সুরক্ষিত রাখতে। এ নিয়ে কর্মীদের সঙ্গে সঠিকভাবে যোগাযোগ করা হয়েছিল এবং পুরোপুরি ভ্যাকসিনেটেড হতে তাদেরকে সুযোগ দেওয়া হয়েছে। পরবর্তীতে এর মেয়াদ বর্ধিতও করা হয়।

যারা ভ্যাকসিন ডোজ সম্পূর্ণ করেছেন তাদেরকে কর্মক্ষেত্রে ফেরার যোগ্য হবেন এবং ভ্যাকসিনেশনের বাইরে থাকা কর্মীদের বরখাস্ত করা হবে। এই ঘোষণা অনুযায়ী, ভ্যাকসিন না নেওয়া কর্মীদের ২১ নভেম্বর থেকে ছুটিতে পাঠানো শুরু করে টিটিসি।

চাকরিচ্যুতি এড়াতে ২ জানুয়ারির মধ্যে দ্বিতীয় ডোজ ভ্যাকসিন নেবেন এমন আগ্রহের কথা জানিয়ে ৩ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রথম ডোজ ভ্যাকসিন নেওয়ার প্রমাণপত্র প্রদর্শন করতে হয় কর্মীদের।

পিয়তির বল্ডিজ তার বিবৃতিতে দাবি করেন, ভ্যাকসিন নিন, না হয় চাকরিচ্যুত হন এই পরিস্থিতির সামনে দাঁড়িয়ে তিনি ভ্যাকসিন নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেন এবং প্রথম ডোজের জন্য অ্যাপয়ন্টমেন্ট বুক করেন।

বল্ডিজের আইনী পরামর্শক কেভিন ফক্স সিটিভি নিউজ টরন্টোকে বলেন, তার মক্কেল প্রথম দিকে ভ্যাকসিন নেওয়ার ব্যাপারে দ্বিধান্বিত ছিলেন। স্বাস্থ্য নিয়ে তার মধ্যে উদ্বেগ ছিল। ভ্যাকসিনের জন্য তড়িঘড়ি করার কিছু নেই বলে মনে করেছিলেন তিনি। কিন্তু টিটিসির কাছ থেকে নোটিশ পাওয়ার পর তিনি ভ্যাকসিনের জন্য অ্যাপয়ন্টমেন্ট বুক করেছিলেন।

সময়সীমা অতিবাহিত হওয়ার ১৫ দিন পর বল্ডিজ ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজের জন্য অ্যাপয়ন্টমেন্ট বুক করেন ১৮ ডিসেম্বর। সময়সীমা চলে যাওয়ার পরও বল্ডিজের ২৭ জানুয়ারি সময়সীমা শেষ হওয়ার ১৯ দিন আগেই ৮ জানুয়ারি দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার সুযোগ ছিল। বল্ডিজ এখন পুরোপুরি ভ্যাকসিনেটেড এবং কমিশন তাকে চাকরিচ্যুত করেছে।

ফক্স বলেন, এটা শাস্তিমূলক এবং স্বেচ্ছাচারি। ওই সময় পর্যন্ত বল্ডিজ বাড়িতে থেকে কাজ চালিয়ে আসছিলেন এবং কোভিড-১৯ এ সংক্রমিত হওয়ার কিছুটা ঝুঁকিও ছিল তার।

আরেক কর্মী ক্যাথেরিন ওয়াটরসন ৩১ ডিসেম্বর যখন চাকরিচ্যুত হন তখন তিনি পুরোপুরি ভ্যাকসিনেটেড ছিলেন। ওয়াটারসন কমিশনের ব্যবস্থাপনা পর্যায়ে কর্মরত ছিলেন এবং ১১ বছর ধরে তিনি টিটিসিতে কাজ করে আসছিলেন। চাকরিচ্যুত আরেক কর্মী রোমাইন টোবানের টিটিসিতে কর্মজীবন ছিল ১৫ বছর। আর পাওলো পিমেন্টেলের টিটিসিতে চাকরি জীবন তিন দশকের। চাকরিচ্যুতির ঘটনায় তিনি কমিশনের বিরুদ্ধে ১২ লাখ ডলার ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলা দায়ের করেছেন।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles