24.9 C
Toronto
বুধবার, আগস্ট ১০, ২০২২

চিকেন থান কাবাব রেসিপি

- Advertisement -
ফাইল ছবি

বাংলাদেশে রানের পরেই যে জিনিসটা জনপ্রিয়, সেটা হলো থান। আবার ভাববেন না থান কাপড় দিয়ে মুড়িয়ে বানানো কাবাব। যারা জানেন না, তাদের বলি; থান হলো মুরগির হাঁটুর উপর থেকে হিপ জয়েন্ট পর্যন্ত অংশ। মানুষের ক্ষেত্রে উরু। এই থান বাংলাদেশে এতই জনপ্রিয় যে, বিয়ে বাড়িতে খেতে বসলে সবাই দোয়া-দরূদ শুরু করে দেয় যেন পাতে রোস্টের রান-থান অংশ পড়ে। বুকের মাংস পড়লে সেটা ক্যামনে আরেকজনকে গচানো যায়, সে নিয়ে দুনিয়ার টাউটগিরি করবে..। একবার আমার কাজিনের বিয়েতে ভাগ্যক্রমে রান-থান রোস্ট পেয়েছিলাম। কিন্তু ওমা, হাত ধুয়ে এসে দেখি সেটা হয়ে গেছে বুকের মাংস! আমার একপাশে ছিল দুঃসম্পর্কের চাচাশ্বশুর, আরেকপাশে বসছিল বিয়ান..। দুজনই খুব ভালো। তাই কাকে সন্দেহ করবো? অনেকে আবার খাইজলদারের হাতে বিশটা টাকা গুঁজে ফিসফিসিয়ে বলে- ‘রান দিস’। আমি ভাই কম কথার মানুষ, তাই এইসব ছোটলোকি আলাপ আরেকদিন বলবো। এমন কি হিন্দি সিনেমাতেও খুঁজবে থান; মানে ক্যাটরিনার থান।
হায় রে বাঙালি..
**[সবাই কিন্তু ওরকম না]
.
যাই হোক, আপনারা অনেকেই চিকেন ব্রেস্টের কিমা দিয়ে কাবাব বানিয়ে খেয়েছেন। থানের মাংশ দিয়ে ভিন্ন স্বাদের তুখোড় কাবাব বানানো যায়। বুকের মাংস আর থানের মাংসে স্বাদের অনেক পার্থক্য আছে।
.
উপকরণ:
১. মুরগির থান থেকে কেটে নেওয়া মাংস আধা কেজি
২. মশলা: আদা মোটা ১ ইঞ্চি টুকরা ছেঁচে নেয়া, রসুন ৪ কোয়া, বড় পিঁয়াজ কুচি ১ টা, কাঁচামরিচ কুচি ৩ টা, গোলমরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, শুকনা মরিচের কুচি (চিলি ফ্লেক্স) ১ চা চামচ।
ঐচ্ছিক: নাটমেঘ গুঁড়া (জায়ফল) দুই চিমটি, ৪ টা কাঠবাদাম, ৪ টা কাজু বাদাম একসাথে ব্লেন্ডারে কুচি করে নিতে হবে।
৩. ডিম ১ টা
৪. কর্ন ফ্লাওয়ার ২ টেবিল চামচ
৫. ধনিয়া পাতা কুচি
৬. চিনি ১ চা চামচ
৭. লবন
৮ তেল।
.
.
প্রণালী:
মুরগি ব্লেন্ডারে দিয়ে ২ সেকেন্ড করে থামিয়ে থামিয়ে কুচি করে নিন, একদম মিহি করবেন না। মুড়ি সাইজের রাখলে ভালো। তাতে ১টা ডিম, দুই টেবিল চামচ কর্ন স্টার্চ, আধা চা চামচ লবন (কিছুটা বেশিও দিতে পারেন), ধনিয়া পাতা দিয়ে চার পাঁচ সেকেন্ড আবার মিশিয়ে নিন। ব্লেন্ডার না থাকলে মুরগি চাকু দিয়ে কুচি কিমা করে সব উপকরণ হাতেই মাখিয়ে নেবেন, কোনো সমস্যা নাই। স্বাদ আরো ভালো হবে।
তারপর কাঠির মধ্যে ছোট লম্বাটে কাবাব বানিয়ে অল্প তেলে উল্টিয়ে পাল্টিয়ে ভেজে ফেলুন। ব্যাস তৈরী। এরচাইতে মজার কাবাব আপনি দুনিয়ায় খাননি ।
.
বিঃ দ্রঃ
চাইলে চামড়া আর চর্বিসহ কিমা করবেন, স্বাদ বাড়বে। বেশি ভাজবেন না, লো- মিডিয়াম আঁচে বাদামি হলেই নামিয়ে ফেলবেন। মুরগি খুব তাড়াতাড়ি সেদ্ধ হবে। ডুবো তেলে ভাজলে শক্ত হয়ে যাবে। আর দয়া করে চাখতে যাবেন না, তখন অন্যদের কম পড়বে। অনেকের তো আবার হুঁশ থাকে না।
.
.
FAQ : Frequently Asked Questions
প্রশ্ন: ভাইয়া, মুরগির রান দিয়ে হবে?
উত্তর: আরো ভালো হবে।
প্রশ্ন: মুরগি দেশি না ব্রয়লার?
উত্তর: ব্রয়লার
প্রশ্ন: রেডিমেড কিমা দিয়ে হবে?
উত্তর: হবে, কিন্তু অতো স্বাদের হবে না
প্রশ্ন: আংকেল, এই কাবাব কী দিয়ে ভালো জমবে?
উত্তরে: সবচাইতে জমবে ঘিয়ে ভাজা নান দিয়ে। সাথে দই ছিটানো সালাদ (শসা, টমেটো, লেটুশ, পিঁয়াজ) রাখবি। ফ্রায়েড রাইস দিয়েও ভালো লাগে। গরম সাদা ভাত আর পাতলা মসুরের ডাল হলে তো কথাই নাই..

প্রশ্ন: বাবা, একটু গরম মশলা দিলে হতো না?
উত্তর: আন্টি, গরম মশলা দিয়ে তো খানই, তাই না? অবশ্য দিতে পারেন..
প্রশ্ন: দোস্ত, আমি অটোয়া গেলে বানাবি তো? বেশি করে ঝাল দিস
উত্তর: তুই প্রশ্ন কর ব্যাটা; FAQ এ শুধু প্রশ্ন করতে হয়
প্রশ্ন: এ ভাই, আমি গরিব মানুষ; দামি বাদাম-ফাদাম না দিলি হবি না?
উত্তর: হবিন। উডা কুনো বেপার না
প্রশ্ন: এই কাবাবের সুবিধা কী?
উত্তর: এর বিশেষ সুবিধা হলো অনেকগুলা কাবাব হয়। ভাজতে সময় লাগে কম, ফ্রিজে পলিথিনের ব্যাগে অনেক দিন কাঁচা অবস্থায় রেখে দেওয়া যায়। হঠাৎ মেহমান আসলে নিমেষেই ভেজে ফেলা যায়

প্রশ্ন: দুলাভাই, মাংস খুলে নেওয়া হাড়গোড় দিয়ে কী করবো?
উত্তর: স্যুপ বানাও। দেড় লিটার পানিতে হাড়গোড় ভালোমত সিদ্ধ করে, শুধু পানিটা নিয়ে আঁচ কমিয়ে এক টেবিল চামচ সয়াবিন তেল, আধা চামচ লবন, তিন টেবিল চামচ আটা/কর্ন ফ্লাওয়ার ঠান্ডা পানিতে গুলিয়ে অল্প অল্প করে ঢেলে নাড়তে থাকো। তিনটা ডিম ফেটিয়ে আস্তে আস্তে ছেড়ে নাড়তে থাকো। নামানোর আগে তিন-চারটা কাঁচা মরিচ ফালি, কিছু ধনিয়া পাতা বা পেঁয়াজের কলি কুচি দিয়ে ঢেকে দাও। দেখবা দারুন স্যুপ তৈরী! আর যদি টেস্টিং সল্ট দিতে চাও, দিও। সাথে কুড়মুড়ে কিছু সবজি পাকোড়া রাখবা
প্রশ্ন: ভাইয়ের ছাওয়াল, পকেট যে আমার একদম খালি। কী করি?

উত্তর: মুরুব্বি, টাকা না থাকলে বানানোর দরকার কী? হাসিখুশি থাকবেন, যা পাবেন তাই খাবেন আমার মতো। এক পোয়া মলা বা ঢ্যালা মাছ মাথাশুদ্ধ শুকনা মরিচ, কাঁচামরিচ, রসুন, পিঁয়াজ আর লবন দিয়ে একসাথে শিল-পাটায় বেটে সামান্য আটা ছিটিয়ে ছোট ছোট বড়া বানিয়ে তেলে মুচমুচে ভেজে ফেলবেন। গরম ইরিধানের ভাতের সাথে পাতলা মসুরের ডাল দিয়ে লেবু চিপে খাবেন। এরচাইতে মজার খাবার এ যাবৎকালে হয় নাই, হবেও না। এই দেখেন, আমার মানিব্যাগ ফাঁকা। কিন্তু আমাকে দেখে বোঝা যায়? কাউকে বুঝতে দি?

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles