19.3 C
Toronto
সোমবার, জুন ২৭, ২০২২

‘ট্রুডোর কার্বন করের চেক আমাদের আরও দরিদ্র করবে’

- Advertisement -
‘ট্রুডোর কার্বন করের চেক আমাদের আরও দরিদ্র করবে’
কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো

অন্টারিও, আলবার্টা, সাস্কেচুয়ান ও ম্যানিটোবার বাসিন্দাদের জন্য প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর কার্বন কর নিয়ে সুসংসবাদ ও দুঃসংবাদ দুটোই আছে। সুসংবাদটি হলো ১৫ জুলাই থেকে এই প্রদেশের ব্যক্তি ও পরিবারগুলো চাইলে ট্রুডোর সরকারের কাছ থেকে ক্লাইমেট অ্যাকশন ইনসেনটিভ পেমেন্ট প্ল্যানের অধীনে করমুক্ত চেক অথবা সরাসরি ডিপোজিট পেমেন্ট পাবেন। আগে এটা ছিল আয়কর বিবরণীর ওপর দাবি করা ফেরতযোগ্য ট্যাক্স ক্রেডিট।

সংসদের দলনিরপেক্ষ ও স্বাধীন বাজেট অফিসার আইভস জিরুর মতে, দুঃসংসবাদটি হলো এই চেক গ্রহীতারা কার্বন ট্যাক্স পেমেন্ট বাবদ যা পাবেন তার চেয়ে বার্ষিক কার্বন কর পরিশোধ করতে হবে বেশি। ২০৩০ সাল পর্যন্ত প্রতি বছর এটা চলবে। ২০২৪ সাল পর্যন্ত ৮০ শতাংশ অন্টারিও পরিবার যে রিবেট চেক পাবেন কার্বন কর বাবদ তাদের পরিশোধ করতে হবে বেশি। একই ঘটনা ২০২৮ সাল পর্যন্ত আলবার্টাতেও ঘটবে।

পক্ষান্তরে ট্রুডো সরকার দাবি করে আসছে, কার্বন কর পরিশোধকারী ৮০ শতাংশ পরিবার আর্থিকভাবে স্বচ্ছল থাকবে। পরস্পরবিরোধী এই দাবিকে তাই নাটকীয় বলা যায়।

ট্রুডো সরকারের দাবি, অন্টারিওর পরিবারগুলো এ বছর কার্বন কর বাবদ এ বছর যে পরিমাণ অর্থ পরিশোধ করবে তার চেয়ে ১৩৪ ডলার বেশি কার্বন করের চেক পাবে। তবে জিরুর মতে, প্রকৃত পরিমাণটা ৩৬০ ডলার কম হবে। আলবার্টার পরিবারগুলো ৩৩৮ ডলারের সুবিধা পাবে বলে ফেডারেল সরকার দাবি করলেও কার্বন কর পরিশোধ করতে হবে ৬৭১ ডলার। এছাড়া সাস্কেচুয়ানে ৩১৯ ডলার সুবিধার বিপরীতে পরিশোধ করতে হবে ৩৯০ এবং ম্যানিটোবায় ২২৯ ডলারের বিপরীতে ২৯০ ডলার।

প্রতি ৫০ টন গ্রিনহাউস গ্যাস নিঃসরণের জন্য ট্রুডোর কার্বন করের পরিমাণ ২০৩০ সাল নাগাদ টনপ্রতি ১৭০ ডলারে পৌঁছাবে। জিরুর হিসাবে, অন্টারিওতে পরিবারপ্রতি কার্বন কর ববাদ নিট খরচ দাঁড়াবে বার্ষিক ১ হাজার ৪৬১ ডলার, আলবার্টায় ২ হাজার ২৮২ ডলার, সাস্কেচুয়ানে ১ হাজার ৪৬৪ ডলার এবং ম্যানিটোবায় ১ হাজার ১৪৫ ডলাল।

তিনি বলেন, ট্রুডোর কার্বন করের ফলে কানাডার প্রকৃত মোট দেশজ উৎপাদন কমবে বার্ষিক দশমিক ৪ শতাংশ এবং ২০৩০ সাল নাগাদ তা ১ দশমিক ৩ শতাংশে উন্নীত হবে। শ্রমিকদের মোট আয় কমবে এ বছর দশমিক ৫ এবং ২০৩০ সাল নাগাদ ২ দশমিক ৩ শতাংশ। এ বছর বিনিয়োগ থেকে আয় কমবে ২ দশমিক ৬ এবং ২০৩০ সাল নাগাদ ৩ দশমিক ৬ শতাংশ। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে জীবাশ্ম জ¦ালানিনির্ভর শিল্প বিশেষ করে পরিষেবা, পরিবহন এবং তেল ও গ্যাসের খাতের শ্রমিকরা।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles