24.8 C
Toronto
শুক্রবার, জুলাই ১, ২০২২

কুইবেকের যৌন হয়রানী মামলার আসামীর বিচার চলবে

- Advertisement -
কুইবেকের যৌন হয়রানী মামলার আসামীর বিচার চলবে - The Bengali Times
ফাইল ছবি

দ্বিতীয়বার যদি বিচার কার্যক্রমের আদেশ দেওয়া হয় তাহলে আদালতের কার্যক্রমের বিলম্বকে কোনো অভিযুক্তের মামলার কার্যক্রম স্থগিত হিসেবে ধরে নেওয়ার সুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন কানাডার সুপ্রিম কোর্ট। সর্বোচ্চ আদালতের শুক্রবারের রুলিংটি এসেছে কুইবেকের এক ব্যক্তিকে ঘিরে, যিনি তার কন্যাকে যৌন হয়রানীর মামলা থেকে ২০১৭ সালে অব্যাহতি পেয়েছিলেন। কিন্তু বিচারিক আদালতের ভুলের কারণে মামলাটি পুনরায় শুরু করার আদেশ দেওয়া হয়েছে।

আদালতকে এক্ষেত্রে ২০১৬ সালের জর্ডান রুলিংয়ের আবেদন বিবেচনায় নিতে হয়েছে। ওই রুলিংয়ে বলা হয়, চার্জ গঠনের ১৮ মাসের মধ্যে প্রাদেশিক আদালতে বিচারকাজ শেষ করার অধিকার রয়েছে অভিযুক্তের। সুপ্রিম কোর্টে বিচার শেষ করতে হবে ৩০ মাসের মধ্যে।
কুইবেকের এই অভিযুক্তের প্রথম বিচার শেষ হতে সময় লাগে ৭২ মাস। এর মধ্যে ৬২ মাস সময় লাগে ক্রাউন কোর্টে। কিন্তু এই সময়ে তিনি বিলম্বের জন্য স্থগিতাদেশ চাননি। অভিযুক্তের খালাস পাওয়ার রায় কুইবেক কোর্ট অব আপিল ২০১৮ সালে বাতিল করে নতুন করে বিচারের আদেশ দেন।

২০১৯ সালে দ্বিতীয় বিচার শুরু হওয়ার কয়েক মাস আগে অভিযুক্ত সফলভাবে এই যুক্তি দিতে সক্ষম হন যে, আগের বিচার প্রক্রিয়ায় দীর্ঘ সময় লেগে যাওয়ায় মামলার কার্যক্রম স্থগিতের আদেশ পাওয়া উচিত তার। ৮-১ মতামতের ভিত্তিতে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রিচার্ড ওয়াগনার বলেন, বিলম্বের ভিত্তিতে দ্বিথীয় বিচার বন্ধ বিচার ব্যবস্থার সুষ্ঠু প্রশাসনকে খাটো করার শামিল। দ্বিতীয় বিচার শুরু হওয়ার অর্থ হলো সাংবাদিক ঘড়ির সময় শূন্য থেকে শুরু হওয়া।

 

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles