17.5 C
Toronto
রবিবার, মে ২৯, ২০২২

মুখ খুললেন টিপুর স্ত্রী, রাজনৈতিক প্রতিহিংসায় টিপু খুন হয়েছেন বলে দাবি

- Advertisement -
মুখ খুললেন টিপুর স্ত্রী, রাজনৈতিক প্রতিহিংসায় টিপু খুন হয়েছেন বলে দাবি - The Bengali Times
শাজাহানপুরে গুলিতে নিহত আওয়ামী লীগ নেতা জাহিদুল ইসলাম টিপুর স্ত্রী ফারহানা ইসলাম ডলি

মুখ খুললেন শাজাহানপুরে গুলিতে নিহত আওয়ামী লীগ নেতা জাহিদুল ইসলাম টিপুর স্ত্রী ফারহানা ইসলাম ডলি। যমুনা টেলিভিশনকে বললেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণেই খুন করা হয়েছে টিপুকে। জানান, খুনের দুদিন আগেই হত্যার হুমকিতে দুইবার ফোন পেয়েছিলেন টিপু। ভাড়াটে খুনিকে মদদ দেয়া আর পরিকল্পনাকারীসহ সবাইকে দ্রুত গ্রেফতারের দাবি করেছেন পরিবার নিয়ে শঙ্কায় থাকা ঢাকার এ ওয়ার্ড কাউন্সিলর।

কেঁদে কেঁদেই দিন কাটছে ঢাকা দক্ষিণের সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর ফারহানা ইসলাম ডলির। গুলিতে নিহত মতিঝিল থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম টিপু তার স্বামী। ফেনীতে টিপুর দাফন শেষে ঢাকায় চলে আসেন তিনি। তারপর থেকেই দৌড়ঝাঁপ করছেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কার্যালয়ে। সবশেষ, সোমবার (২৮ মার্চ) রাতে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে র‍্যাব-৩। মধ্য রাতে তাকে বাসায় পৌঁছে দিয়ে যাওয়া হয়। এসব নিয়ে কথা না বললেও জানালেন, সন্তানদের নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় আছেন তিনি।

- Advertisement -

নিহত টিপুর স্ত্রী ও মামলার বাদি ফারহানা ইসলাম ডলি বলেন, জীবনে কখনও কল্পনাও করিনি যে আমার হাজবেন্ড কারো হাতে খুন হবেন। আমার ছেলেটা অনেক ছোট, ছেলে-মেয়েকে নিয়ে একটা অসহায় অবস্থায় আছি। আমার নিজের জীবন নিয়েও চিন্তিত, কারণ আমার মাথার ওপর কোনো ছাদ নেই। ছেলে-মেয়ে নিয়ে যে গভীর জলে পড়েছি সেখান থেকে উঠতে হবে আমাকে।

ডলি জানান, খুনের দুদিন আগে ফোনে হুমকি দেয় সন্ত্রাসীরা। হুমকির সাথে, দুবাইয়ে পালিয়ে থাকা শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসান ও ভারতে পালিয়ে থাকা সন্ত্রাসী ফ্রিডম মানিকের নাম পেয়েছে গোয়েন্দা পুলিশ। ডলি মনে করেন, এসব সন্ত্রাসী ছাড়াও কোনো কোনো গডফাদারও জড়িত আছে টিপু খুনের সাথে।

ফারহানা ইসলাম ডলি আরও বলেন, পরিকল্পিতভাবে খুনটি করানো হয়েছে। পরিকল্পনা যারা করেছে তাদের ওপরও লোক আছে। কারা পরিকল্পনা করলো ও করালো তাদেরকে ধরে আইনের আওতায় আনার দাবি জানাচ্ছি।

গোয়েন্দা তথ্য বলছে, টিপুর সাথে স্থানীয় রাজনৈতিক কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে বিরোধ ছিল। টিপুর ঘনিষ্ঠ সহযোগী আবুল কালামের ছেলে, যুবলীগ কর্মী বোচা বাবু খুনের সাথে জড়িতরা মামলা মিটমাটের জন্য টিপুকে চাপ দিতো। সেটা না করায় ক্ষুব্ধ ছিল স্থানীয় একটি পক্ষ। খুনের পেছনে তাদের দিকেও ইঙ্গিত করেন কাউন্সিলর ডলি। বলেন, এলাকার মধ্যে কোনো খুন হলেই তারা এটার দায় টিপুকে দেয়ার জন্য উৎসাহিত থাকে।

টিপু ও কলেজ ছাত্রী প্রীতি হত্যা মামলার বাদি ডলি জানান, খুনের পরিকল্পনাকারীরা প্রভাবশালী। তাই মামলার তদন্ত যাতে ভিন্নখাতে না নেয়া হয়।

 

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles