12.5 C
Toronto
রবিবার, মে ২২, ২০২২

এলসিবিও থেকে রুশ পণ্য প্রত্যাহার

- Advertisement -
এলসিবিও থেকে রুশ পণ্য প্রত্যাহার - The Bengali Times
ফাইল ছবি

রাশিয়ায় উৎপাদিত পণ্য স্টোর থেকে সরিয়ে ফেলতে লিকার কন্ট্রোল বোর্ড অব অন্টারিওকে (এলসিবিও) নির্দেশনা দিয়েছেন অন্টারিওর অর্থমন্ত্রী পিটার বেথনেলফালভি। রাশিয়ার ইউক্রেন আক্রমণের জের হিসেবে এ নির্দেশনা।

শুক্রবার বিকালে দেওয়া এক বিবৃতিতে বেথলেনফালভি বলেন, প্রিমিয়ার ডগ ফোর্ড এরই মধ্যে জানিয়ে দিয়েছেন যে, ইউক্রেনের জনগণের বিরুদ্ধে রাশিয়ার আগ্রাসনের নিন্দায় মিত্রদের সঙ্গে যোগ দিয়েছে কানাডা। সেই সঙ্গে রাশিয়ার সরকারের ওপর নিষেধাজ্ঞায় ফেডারেল সরকারের সিদ্ধান্তের প্রতি আমাদের শক্ত সমর্থন রয়েছে। সব ধরনের নির্যাতন ও নিপীড়নের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবে অন্টারিওর জনগণ। সে হিসেবে রাশিয়ায় উৎপাদিত পণ্য সরিয়ে ফেলতে এলসিবিওকে আমি নির্দেশনা দিচ্ছি। এই কঠিন সময়ে আমরা ইউক্রেনের জনগণের পাশে দাঁড়ানো অব্যাহত রাখবো।

- Advertisement -

এর প্রতিক্রিয়ায় এলসিবিও পৃথক বিবৃতিতে বলেছে, প্রদেশজুড়ে যে ৬৭৯টি এলসিবিও স্টোর রয়েছে সেগুলোসহ ওয়েবসাইট. এলসিবিও কনভেনিয়েন্স আউটলেট এবং বিপণন চ্যানেল থেকে তৎক্ষণাৎ রাশিয়ায় উৎপাদিত পণ্য সরিয়ে ফেলার কাজ শুরু করেছি। এলসিবিও ইউক্রেন, এর জনগণ এবং অন্টারিওতে ইউক্রেনিয়ান কানাডিয়ান কমিউনিটির পাশের রয়েছে। এলসিবিও পাইকারি ক্রেতা, গ্রোসারি স্টোর ও লাইসেন্সধারীরা পণ্য ফেরত দিলে তা গ্রহণ করবে।

রাশিয়ার সঙ্গে এলসিবিওর ব্যবসার আকার কত সরকারের পক্ষ থেকে তা প্রকাশ করা হয়নি। শুক্রবার এলসিবিওর ওয়েবসাইটে রাশিয়ায় উৎপাদিত মাত্র ৯টি পণ্য দেখা যায়। তারপরও ইউক্রেন আক্রমণের ফলে রাশিয়ার ওপর অবরোধ আরোপের যে ক্ষুধা এটা তারই প্রতিফলন। এই আক্রমণকে বিশ^ নিরাপত্তার জন্য দ্বিতীয় বিশ^যুদ্ধের পর সবচেয়ে বড় হুমকি হিসেবে দেখা হচ্ছে।

এদিকে সম্ভাব্য নিষিদ্ধের বিষয়ে মন্ত্রিসভার জ্যেষ্ঠ সদস্যদের সঙ্গে প্রিমিয়ার ডগ ফোর্ড বসবেন বলে ঘোষণা দেওয়ার দুই ঘণ্টারও কম সময়েল মধ্যে রাশিয়ায় উৎপাদিত পণ্য সরিয়ে ফেলার ঘোষণাটি এলো। এক সংবাদ সম্মেলনে ডগ ফোর্ড বলেন, এলসিবিওর তাক থেকে রাশিয়ার পণ্য নামিয়ে ফেলার কথা ভাবছেন তিনি। পাশাপাশি অন্যান্য বাণিজ্যিক সম্পর্কও বন্ধের কথা ভাবছেন।

এ পদক্ষেপের সম্ভাবনার বিষয়ে সাংবাদিকরা জানতে চাইলে ফোর্ড বলেন, অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। এলসিবিও থেকে রাশিয়ার পণ্য নামিয়ে ফেলাটা হবে অন্টারিওর বিবেচনায় থাকা পদক্ষেপগুলোর ছোট একটি অংশ। রাশিয়ার সঙ্গে আমাদের যেসব ব্যবসা আছে তা নিয়ে আলোচনার জন্য অর্থমন্ত্রী বেথনেলফালভি এবং বাণিজ্যমন্ত্রী ভিক ফিডেলির সঙ্গে শিগগিরই আলোচনা করবো।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles