6.2 C
Toronto
শনিবার, ডিসেম্বর ৩, ২০২২

শিশু অপহরণ করে মাকে অনৈতিক প্রস্তাব আট মাস পর ধরা

শিশু অপহরণ করে মাকে অনৈতিক প্রস্তাব আট মাস পর ধরা - the Bengali Times
প্রতীকী ছবি

রাজধানীর দক্ষিণখানে আট মাস আগে অপহরণ হওয়া চার বছরের শিশু ইমরানকে উদ্ধার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে গতকাল কুমিল্লা থেকে ইসমাইল হোসেন ওরফে জীবন ওরফে আকাশকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শিশুটির মাকে অনৈতিক প্রস্তাব দিয়েছিলেন অপহরণকারী। ডিবি বলছে, ইসমাইল মূলত একজন প্রতারক। সে একাধিক ছদ্মনাম ব্যবহার করত। অবশেষে ডিবির জালে সে আটকা পড়ে। নিজের ছেলে পরিচয়ে শিশু ইমরানকে টাকার বিনিময়ে বিক্রি করে দিয়েছিল ইসমাইল। গতকাল দুপুরে রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিবি কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ডিবির ওয়ারী বিভাগের ডিসি মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন এসব তথ্য জানান। তিনি বলেন, দীর্ঘ আট মাস পর ফিরে আসায় শিশুটি তার সঠিক নাম বলতে পারেনি এবং তার মা, দাদি ও পরিবারের সদস্য কাউকে চিনতে পারেনি। মা সন্তানকে চিনেছেন, কিন্তু সন্তান মাকে চিনতে পারেনি। অবশেষে নাড়ির টানে যখন শিশুটির মা তাকে জড়িয়ে ধরে কান্না শুরু করেন, তখন শিশুটিও তার মাকে কাছে পেয়ে আবেগ আপ্লুত হয়ে কাঁদতে থাকে।

ডিবি কর্মকর্তা আশরাফ আরও বলেন, ডিবি পুলিশের ছায়া তদন্তের মাধ্যমে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে দীর্ঘ আট মাস পর বিক্রি হওয়া শিশু ইমরানকে উদ্ধার করা হয়। মামলাটি তদন্তকালে আমরা জানতে পারি, শিশুটির নানি হামিদা খাতুন রাজধানীর দক্ষিণখানের জামতলা এলাকায় মেয়ে রাশিদা খাতুনকে নিয়ে ভাড়া বাসায় থাকতেন। রাশিদা বাসা বাড়িতে গৃহপরিচারিকার কাজ করেন। ছয় বছর আগে রাশিদার সঙ্গে মো. মাজারুল ইসলামের পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। দুই বছর পর পুত্রসন্তান ইমরানের জন্ম হয়। তিন মাস পর তার স্বামী যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়। পার্শ্ববর্তী বাসার ভাড়াটিয়া আসামি ইসমাইল রাশিদাকে বিভিন্নভাবে উত্ত্যক্ত করে এবং অনৈতিক প্রস্তাব দেয়। অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তার সন্তান ইমরানকে অপহরণ করে অন্য জায়গায় বিক্রি করে দেয়।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles