18.4 C
Toronto
শনিবার, আগস্ট ১৩, ২০২২

মুম্বাইয়ে কারা মুসলিম নারীদের অনলাইনে ‘নিলামে’ তুলছে?

- Advertisement -
একটি অনলাইন প্ল্যাটফর্মে ছবি আপলোড হচ্ছে নানা বয়সী ও পেশার মুসলিম নারীদের

একটি অনলাইন প্ল্যাটফর্মে ছবি আপলোড হচ্ছে নানা বয়সী ও পেশার মুসলিম নারীদের। কারা করছে এটি? এমন একটি ঘটনা নজরে আসার পর দিল্লির এক নারী গণমাধ্যমকর্মী পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেন। একই সময় এক শিবসেনা সাংসদ মুম্বাই পুলিশের কাছে বিষয়টি তদন্তের আহ্বান জানান। সেই সঙ্গে রাজ্যের মন্ত্রী আশ্বিনী বৈষ্ণব এ ব্যাপারে কঠোর থেকে কঠোরতম ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন।

যে ঘটনাটি নিয়ে এমন তোলপাড় সেটি হলো ‘বুল্লিবাই’ অ্যাপে মেয়েদের ছবি আপলোড করা।

গত বছরের শুরুতে ‘সুল্লি বাই’ অ্যাপে ‘সুল্লি ডিল’ নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। ‘সুল্লি’ বা ‘সুল্লা’ মুসলমানদের জন্য ব্যবহৃত একটি অবমাননাকর শব্দ। অনেকে মনে করছেন, ‘বুল্লি’ এই ‘সুল্লি’রই পরিবর্তিত রূপ। ‘বুল্লিবাই’ অ্যাপটি দেখতে ‘সুল্লি ডিল’-এর ক্লোনের মতো। সুল্লি ডিলে নারীদের ছবি সাঁটিয়ে তাতে লেখা হয়েছে- ‘ডিল অব দ্য ডে’।

গতকাল শনিবার দিল্লি পুলিশের কাছে একজন নারী সাংবাদিক অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। তিনি তাঁর অভিযোগে বলেন, মুসলিম নারীদের বিব্রত ও অপমান করার উদ্দেশ্যে একটি ওয়েবসাইটে তাঁর একটি ঈষৎ পরিবর্তিত ছবি পোস্ট করা হয়েছে। তিনি দক্ষিণ দিল্লির সিআর পার্ক থানায় অনলাইনে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। যার একটি অনুলিপি তিনি তাঁর টুইটার হ্যান্ডেলে শেয়ার করেন। তিনি সোশ্যাল মিডিয়া ও ইন্টারনেটে ‘মুসলিম নারীদের হয়রানি ও অপমান’ করার চেষ্টাকারী অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে অবিলম্বে এফআইআর ও তদন্তের দাবি জানান।

অভিযোগে বলা হয়, “আমি আজ সকালে জানতে পেরে অবাক হই যে ‘বুল্লিবাই’ নামে একটি ওয়েবসাইট/পোর্টালে আমার একটি অনুপযুক্ত, অগ্রহণযোগ্য ছবি রয়েছে এবং সেটি টেম্পার করা। এ বিষয়ে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন। কারণ এটি আমাকে এবং অন্যান্য স্বাধীন নারী এবং সাংবাদিকদের হয়রানির উদ্দেশ্যে করা হয়েছে। দিল্লি পুলিশ টুইটারে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলে, বিষয়টি দ্রুত বিবেচনায় নেওয়া হবে।”

শিবসেনা সাংসদ বলেন, ‘আমি তথ্য-প্রযুক্তিমন্ত্রী আশ্বিনী বৈষ্ণব মহোদয়কে বেশ কয়েকবার অনুরোধ করেছি, যারা সুল্লি ডিলসের মতো প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে নারীদের টার্গেট করছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য। এটা উপেক্ষা করা সত্যিই লজ্জাজনক।’

মুম্বাই পুলিশ এ বিষয়ে অগ্রগতির প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলে, বিষয়টি বিশেষ বিবেচনায় নিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। একজন কর্মকর্তা জানান, মুম্বাই সাইবার পুলিশ ‘আপত্তিকর’ বিষয়টির তদন্ত শুরু করেছে।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles