-13.8 C
Toronto
শনিবার, জানুয়ারী ২২, ২০২২

রাতে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের হাইভোল্টেজ ম্যাচ

- Advertisement -

নতুন বছরের শুরুতেই ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে হাইভোল্টেজ ম্যাচ

নতুন বছরের শুরুতেই ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে হাইভোল্টেজ ম্যাচ। করোনা পরিস্থিতিতে সৃষ্ট অনিশ্চয়তা কাটিয়ে উঠতে পারলে, সুপার সানডেতে মুখোমুখি হবে চেলসি ও লিভারপুল। ম্যাচটি শুরু হওয়ার কথা বাংলাদেশ সময় রোববার (২ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ১০টায়। এদিকে লা লিগায় শিরোপার পথে আরও এগিয়ে যেতে গেতাফের বিপক্ষে মাঠে নামবে রিয়াল মাদ্রিদ। এই ম্যাচটি শুরু হবে সন্ধ্যা ৭টায়।

ধীরে ধীরে মাঠ ফিরেছিল চেনা রূপে। ফুটবলাররা মাতিয়ে রেখেছিলেন ইউরোপীয় স্টেডিয়াম। কিন্তু হুট করে আবারও মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে করোনাভাইরাস। স্থগিত হয়েছে প্রায় ২০টি ম্যাচ। একের পর এক ম্যাচ খেলোয়াড় কোভিড আক্রান্ত হওয়ায় আবারও বিপাকে দলগুলো।

- Advertisement -

বছরের দ্বিতীয় দিনেই মুখোমুখি ইপিএলের দুই পাওয়ার হাউজ লিভারপুল-চেলসি। কিন্তু নববর্ষের রোমাঞ্চের তুলনায় দুশ্চিন্তাই বেশি টেবিলের ২ ও ৩ নম্বর দলের। অলরেডদের অবস্থা এমনই যে এক রকম হালই ছেড়ে দিয়েছেন কোচ ক্লপ।

ইয়ুর্গেন ক্লপ বলেন, এর আগে কখনও এমন হয়নি যে, ১০-১৫ জন ফুটবলার একসঙ্গে আক্রান্ত। প্রতিদিনই কারও না কারও পজিটিভ ফলাফল আসছে। এভাবে শিরোপা জয় সম্ভব না। দলে কাকে পাবো, কাকে পাবো না- তা যেন লটারির মাধ্যমে নির্ধারণ হচ্ছে।

চেলসির বিপক্ষে ম্যাচটা হবে কি না, তা এখনও নিশ্চিত নয়। তবে ভ্যান ডাইক, থিয়াগো আলকানতারা, ফ্যাবিনহো, জোনসের মতো গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়রা অনুশীলনে ফেরায় কিছুটা স্বস্তি পাচ্ছেন ক্লপ। ফিট আছেন সালাহ-মানেরাও।

কোভিড পরিস্থিতি লিভারপুলের মতো না হলেও স্বস্তিতে নেই চেলসি। থমাস টুখেলের সঙ্গে বনিবনা হচ্ছে না রোমেয়ু লুকাকুর। গণমাধ্যমে সরাসরি সে কথা জানিয়ে দিয়েছেন বেলজিয়ান তারকা ফরোয়ার্ড। বিগ ম্যাচের কৌশল সাজানোর চেয়ে দায়িত্ব নিয়েই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতানো কোচকে নিয়েই ব্লুদের ডেরায় এখন আলোচনা বেশি।

থমাস টুখেল বলেন, বিষয়টা মোটেও ভালো লাগেনি। আমি মনে করি না, এখানে অখুশি থাকার কোনো কারণ আছে। জানিও না, আসলেই সে এভাবে বলেছে কি না। চটকদার শিরোনাম বের করা আসলে অনেক সহজ। তাই এসব নিয়ে যত কম কথা বলা যায় তাই ভালো। কারণ আমি ড্রেসিংরুমে শান্ত পরিবেশ চাই।

বল মাঠে গড়ানোর আগে পরিসংখ্যান অতটা শান্ত থাকতে দিচ্ছে না টুখেলকে। লিভারপুলের বিপক্ষে নিজেদের মাঠ স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে ইপিএলের শেষ ১১ ম্যাচে মাত্র ২ বারই জয় পেয়েছে চেলসি।

করোনা আঘাত করেছে রিয়াল মাদ্রিদ শিবিরেও। তবে, ঘরোয়া লিগ নিয়ে লিভারপুল-চেলসির চেয়ে নির্ভার তারা। লা লিগায় শীর্ষস্থান সুসংহত। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা ১৫ ম্যাচ অপরাজিত রিয়াল। স্প্যানিশ লিগে ১৬ নম্বরে থাকা গেতাফের বিপক্ষে ম্যাচে যে সংখ্যা আরও বাড়িয়ে নিতে চায় মাদ্রিদিস্তারা।

করোনামুক্ত হওয়ায় স্কোয়াডে ফিরতে পারেন কোর্তোয়া ও ভালভার্দে। আগেই সুস্থ হয়েছেন মার্সেলো-মদ্রিচ-ইস্কোরাও। গেতাফের মাঠ থেকে তাই বড় জয় আশা করতেই পারেন লস ব্ল্যাঙ্কোস কোচ কার্লো অ্যানচেলত্তি।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles