-4.6 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ২৭, ২০২২

২০২২ সালকে স্বাগত জানাতে যুবকের অবাক কাণ্ড!

- Advertisement -
বর্ষবরণ করতে একটা-দুটো নয়, কনকনে ঠান্ডা পানিতে টানা ৪৫ মিনিট ধরে ২০২২টি ডুব দিলেন এক যুবক

বর্ষবরণ করতে একটা-দুটো নয়, কনকনে ঠান্ডা পানিতে টানা ৪৫ মিনিট ধরে ২০২২টি ডুব দিলেন এক যুবক। এমনই দাবি করেছেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের বাসিন্দা সদানন্দ দত্ত। খবর আনন্দবাজারের।

নতুন বছরের প্রথম দিনে তাপমাত্রা কমতে শুরু করেছে। ঠিক সেই সময়েই অবাক কাণ্ড ঘটিয়ে সকলকে চমকে দিলেন বিষ্ণুপুরের সদানন্দ। শনিবার (১ জানুয়ারি) নববর্ষকে স্বাগত জানাতে বিষ্ণুপুরের লালবাঁধের ঠান্ডা পানিতে পরপর ২০২২টি ডুব দিয়েছেন তিনি।

- Advertisement -

সদানন্দ জানিয়েছেন, বছর পাঁচেক আগে তার মাথায় আসে পানিতে ডুব দিয়ে বিশ্বরেকর্ড করার। কিন্তু কত সংখ্যক ডুব দিলে তা সম্ভব, সেটি জানা নেই সদানন্দর। তাই তিনি স্থির করেন, সালের সংখ্যা ধরেই ডুব দেবেন। সেই থেকে প্রতি বছর ডুব দিয়ে আসছেন তিনি। এবারও তার ব্যত্যয় ঘটেনি। শনিবার ২০২২ সালের প্রথম দিনে পরপর ২০২২টি ডুব দেন সদানন্দ।

মল্ল রাজাদের স্মৃতি বিজড়িত লালবাঁধের পাড়ে দাঁড়িয়ে সদানন্দের এই অভিনব কায়দার বর্ষবরণ উপভোগ করেছেন বিষ্ণুপুরের সাধারণ মানুষ।

সদানন্দ বলেন, আমি জানি না কত সংখ্যক ডুব দিলে বিশ্বরেকর্ড করা যায়। জানি না সেই বিশ্ব রেকর্ডের তকমা পেতে গেলে কীভাবে আবেদন করতে হয়। তবে আমি যত দিন বাঁচব, তত দিন আমি এই ভাবেই বর্ষবরণ করে যাব। বিষ্ণুপুর শহরের মানুষ এবং পর্যটকরা এটা দেখতে প্রতি বছর আসেন। আমাকে উৎসাহ দেন। এটাই আমার প্রেরণা।

বিষ্ণুপুরের বাহাদুরগঞ্জের বাসিন্দা সদানন্দের সঙ্গে লালবাঁধের সম্পর্ক সেই ছোটবেলা থেকে। সদানন্দর সাঁতারে দক্ষতা দেখে তাকে বিষ্ণুপুর পৌরসভা নিজস্ব সুইমিং পুলে অস্থায়ী প্রশিক্ষক হিসেবে নিয়োগ করে। কিন্তু করোনা সংক্রমণের আশঙ্কায় বছর দেড়েক আগে সুইমিং পুল বন্ধ হয়ে যায়। তার জেরে কর্মহীন হয়ে পড়েন সদানন্দ। কাজ হারালেও লালবাঁধের সঙ্গে যোগাযোগ ছিন্ন হয়নি সদানন্দর। হাড়কাঁপানো শীত বা প্রখর গ্রীষ্মে এখনও নিয়মিত লালবাঁধে হাজির হয়ে সাঁতারের নানা কৌশল তিনি অনুশীলন করেন বলে জানিয়েছেন সদানন্দ।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles