ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে অভিনয় করলেই কেন চিৎকার করেন এই অভিনেত্রী?
দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম ডেস্ক
অ+ অ-প্রিন্ট
অভিনেত্রী কৃতি স্যানন
চরিত্রের দাবি মেনে ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে অভিনয় করতে অভিনেত্রীদের৷ এমনিতেই ক্যামেরার সামনে সমস্ত অনুভূতি অকপটভাবে তুলে ধরতে হয় তাঁদের৷ পেশা হলেও এ তো চাট্টিখানি কথা নয়৷ মানুষের যাবতীয় অনুভূতি এমনভাবে তাঁরা মুখের রেখায় ফুটিয়ে তোলেন, যা প্রভাবিত করে দর্শকদেরও৷  তার উপর যদি ঘনিষ্ঠ বা অন্তরঙ্গ কোনও দৃশ্য হয় তবে তো কথাই নেই৷ কেননা রসায়ন গাঢ় না হলে যতই রূপোলি পর্দা হোক, আর যতই গ্ল্যামার থাকুক পুরোটাই জোলো মনে হয়৷ তাই যতটা স্বাভাবিক সম্ভব ততটাই অন্তরঙ্গ হয়ে ওঠেন তাঁরা পর্দায়৷ কিন্তু তা করতে গিয়ে কেন চিকার করেন অভিনেত্রী কৃতি স্যানন৷

সম্প্রতি নিজেই এ কথা জানিয়েছেন কৃতি৷ ‘রবতা’ সিনেমায় সুশান্ত সিং রাজপুতের সঙ্গে তাঁর ঘনিষ্ঠতা নিয়ে নানা আলোচনা হয়েছে৷ এমনকী বিচ্ছেদের পর সুশান্তর অভিনেত্রীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা দেদার গসিপেরও জন্ম দিয়েছে৷ কিন্তু সহ-অভিনেতার সঙ্গে যত অন্তরঙ্গতাই থাক, ক্যামেরার সামনে কোনও ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে দাঁড়ানোর আগে চিল চিৎকার করেন অভিনেত্রী৷ তাহলে কি এ ধরনের দৃশ্যে অভিনয় করতে তিনি অস্বস্তি বোধ করেন৷ কৃতি জানাচ্ছেন, তা নয়৷ বরং সময়ের দাবি মেনেই সব ধরনের দৃশ্যে অভিনয় করতে তিনি পটু৷ ঘনিষ্ঠ দৃশ্য বা যে কোনও কঠিন দৃশ্য এলেই তিনি তাঁর মোবাইল ভ্যানে চলে যান৷ তারপর চিৎকার করে নিজের সব টেনশন ঝেড়ে ফেলে দেন৷ এরপর থেকেই ক্রমশ চরিত্রে ঢুকে পড়েন তিনি৷ চরিত্রের ঠিক যা দাবি, তা মেনে অন্য একটা মানুষ হয়ে ওঠেন তিনি৷ যে মানুষটাকে দেখা যায় পর্দায়৷ আর তাই এটাই তাঁর অস্ত্র৷ যে কোনও অন্তরঙ্গ দৃশ্যের আগে তিনি চিৎকার করেই নিজেকে তৈরি করেন৷ এমনকী ‘দিলওয়ালে’র মতো মাল্টিস্টারার ছবিতে কাজ করার সময়ও নিজের এই পদ্ধতি কাজে লাগিয়েছেন তিনি৷ সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

 

 

 

২২ মে, ২০১৭ ০০:৩৩:০৮