-14.4 C
Toronto
সোমবার, জানুয়ারী ২৪, ২০২২

নিজেই নিজের হত্যার রহস্য জানিয়েছিলেন তিনি!

- Advertisement -
টেরেসিটা বাশা

জীবন ও মৃত্যু দুটোই রহস্যে ভরা। কেউই এই দুই জিনিসের রহস্য ভেদ করতে পারেনি। এমন কিছু ঘটনা মাঝে মাঝে ঘটে যা আসলে কল্পনাও করে না সবাই। তেমনই একটি রহস্যময় ঘটনার কথা জানব। ঘটনা ১৯৭৭ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি, শিকাগোতে। ২৭৪০ নর্থ পাইন গ্রোভ অ্যাভিনিউয়ের ১৫-বি নম্বর ফ্ল্যাটের বাসিন্দা ছিলেন টেরেসিটা বাশা। সেই বাসা থেকেই তেরেসিটার মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তবে সেই নারীর সাধারণ মৃত্যু হয়নি। তাকে পাওয়া গিয়েছিল কার্পেটে মোড়া দেহ দাউ দাউ করে আগুন জ্বলছিল এমন অবস্থায়।
নিজেই নিজের হত্যার রহস্য জানিয়েছিলেন তিনি!
ফাতেমা অ্যানি

২ মিনিটে পড়ুন
আগুন নেভানোর পর দেখা যায় তার বুকেও একটি ছুরি গেথে রয়েছে। শরীরে কোনো পোশাকও নেই। কিন্তু খুনের কারণ বা খুনির পরিচয় কিছুই জানা যাচ্ছিল না। তদন্তে টেরেসিটা সম্পর্কেই একের পর এক তথ্য উঠে আসতে থাকে। ঠিক এরই মাঝে একটি সূত্র তদন্তকারীদের হাতে আসে। সেটি টেরেসিটারই হাতে লেখা একটি চিরকুট। যেখানে এ. এস নামে একজন ব্যক্তির জন্য থিয়েটারের টিকিট সংগ্রহ করার কথা লিখে রেখেছিলেন টেরেসিটা। এরপর সেই লোকের খোঁজে নেমেও তার নামে কিছুই পাচ্ছিল না পুলিশ।

- Advertisement -

টেরেসিটার মৃত্যুর রহস্যটা যখন অতল গভীরে ভেসে যাচ্ছিল, ঠিক সেই মুহূর্তে ওই বছরই জুলাই মাসে মামলাটি নতুন করে খবরে আসে। হঠাৎই একটি নোট সব বদলে দেয়। নোটটি রাখা ছিল গোয়েন্দা স্ট্যানচুলার ডেস্কে। তাতে লেখা ছিল, টেরেসিটা খুনের অনুসন্ধান করতে এই নম্বরে ফোন করুন। ফোন নম্বরটি ছিল ইভানস্টন পুলিশ দপ্তরের। সেখানে ফোন করে স্ট্যানচুলা জানতে পারেন টেরেসিটা যে হাসপাতালে কাজ করতেন সেখানের এক সহকর্মীর কাছে তার হত্যাকারীর বিষয়ে তথ্য আছে। এরই মাঝে তদন্তে নেমে টেরেসিটার শেষ ফোন রেকর্ডিং শুনতে পারেন গোয়েন্দা স্ট্যানচুলা। যেখানে ফোনে তার বাসায় এক পুরুষ অতিথি আসার কথা জানান টেরেসিটা, তবে অতিথির নাম তিনি উচ্চারণ করেননি।

গোয়েন্দার সঙ্গে যোগাযোগ করেন টেরেসিটার সেই সহকর্মীর স্বামী যিনি নিজেও একজন ডাক্তার। তিনি যা বলেন, তা শুনে স্ট্যানচুলা ভেবেছিলেন তাকে ডেকে আষাঢ়ে গল্প ফেঁদে অপদস্থ করা হচ্ছে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বিষয়টি এড়িয়েও যেতে পারেননি স্ট্যানচুলা। তিনি জানিয়েছিলেন, তার স্ত্রীর ওপর না কি মাঝে মধ্যেই ভর করছে টেরেসিটার আত্মা। সেই আত্মায় তাদের কাছে মৃত্যুর পুরো ঘটনা জানিয়ে সাহায্য চেয়েছে, কিন্তু তারা ভয়ে কিছুই পুলিশকে জানাননি।

পরবর্তী টেরেসিটার সেই সহকর্মীর স্বামীর ভাষ্যমতে, আত্মা তার মৃত্যুর জন্য দায়ী করেছেন অ্যালান সাওয়ারি নামে এক ব্যক্তিকে। ঘটনাটি বিশ্বাস না করলেও স্ট্যানচুলা ঠিক করেন, খতিয়ে দেখবেন বিষয়টি। অ্যালান নামের ওই ব্যক্তিকে ডেকে পাঠিয়ে জেরা শুরু করেন তিনি। জানা যায়, ঘটনার দিন তিনি সত্যিই গিয়েছিলেন টেরেসিটার বাড়িতে। টিভি সারাতে সাহায্য করার নামে আসলে টেরেসিটার বাড়িতে ডাকাতি করারই অভিসন্ধি ছিল তার। বাড়িতে ঢুকেই তাকে আক্রমণ করেছিলেন অ্যালান। টেরেসিটার মৃত্যুর পরে প্রমাণ লোপাট করতে তার পোশাক খুলে কার্পেটে জড়িয়ে আগুন ধরিয়ে দেন। চুরি করেন টেরেসিটার গহনা এবং মূল্যবান সামগ্রীও।

Alan later pleaded guilty in court. Alan was sentenced to 14 years. But five years later he was released on parole. But what really made Teresitar’s spirit identify his killer? Detective Stanchula could not answer. According to him, he did not get any explanation. But the mystery of the terrestrial remains a mystery in the end.

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles