19.3 C
Toronto
সোমবার, জুন ২৭, ২০২২

সরবরাহ ব্যবস্থা স্বাভাবিক হবে কবে?

- Advertisement -
সরবরাহ ব্যবস্থা স্বাভাবিক হবে কবে? - The Bengali Times
ফাইল ছবি

সরবরাহ ব্যবস্থা করে নাগাদ স্বাভাবিক হবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক সে ব্যাপারে নিশ্চিত নয় বলে জানিয়েছেন ব্যাংক অব কানাডার একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা। মূল্যস্ফীতির চাপ কবে নাগাদ কমবে তা নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি করছে এটি।

অক্টোবরে কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলেছিল, ২০২২ সালের আগে আগে মূল্যস্ফীতি সর্বোচ্চে পৌঁছবে। এরপর প্রতি মাসে ধীরে ধীরে তা কমে আসবে।

ডেপুটি গভর্নর টনি গ্র্যাভেল বৃহস্পতিবার বলেন, মহামারির কারণে সৃষ্ট অনিশ্চয়তা ও নজিরবিহীন অর্থনৈতিক পরিস্থিতি কখন সরবরাহ সংকট চূড়ায় পৌঁছাবে সেই ধারণা প্রাপ্তি কঠিন করে তুলছে। এর ফলে দীর্ঘ সময় ধরে মূল্যস্ফীতির উচ্চ হার বজায় থাকতে পারে। এ কারণেই কেন্দ্রীয় সুদের হার অপরিবর্তীত রেখেছে।

ব্যাংক অব কানাডা বুধবার সুদের হার দশমিক ২৫ শতাংশে অপরিবর্তীত রাখে এবং অন্তত এপ্রিল পর্যন্ত এতে পরিবর্তনের কোনো সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছে।

গ্র্যাভেল বলেন, আগামী বছরের দ্বিতীয়র্ধ্বে মূল্যস্ফীতি কমে আসবে বলে প্রত্যাশা করছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। মূল্যস্ফীতি ও বর্ধিত মজুরি যাতে মূল্যবৃদ্ধির কারণ না হয় সেজন্য মুদ্রানীতি প্রণেতারা সেদিকে নজর রাখছেন। সরবরাহ ব্যবস্থার বিশৃঙ্খলা ও মূল্য বৃদ্ধির চাপ যদি ধারণার চেয়ে বেশি দিন স্থায়ী হয় এবং পণ্যের বর্ধিত চাহিদা অব্যাহত থাকে তাহলে মূল্যস্ফীতি আমাদের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবে।

অক্টোবরে কানাডায় বার্ষিক মূল্যস্ফীতি গত ১৮ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চে পৌঁছেছে। এ সময় ভোক্তা মূল্যসূচক গত বছরের অক্টোবরের তুলনায় ৪ দশমিক ৭ শতাংশ বেড়েছে।

অর্থমন্ত্রী ক্রিস্টিয়া ফ্রিল্যান্ড হাইজ অব কমন্সের ফিন্যান্স কমিটির এমপিদের বলেন, জনগণ ক্রয় ক্ষমতার যে সমস্যায় রয়েছেন তা নিয়ে আমি অবগত। আমরা এটা গুরুত্বে সঙ্গে নিয়েছি এবং আমরা এ ব্যাপারে বেশ উদ্বিগ্ন।

ব্যাংক অব কানাডার লক্ষ্য হচ্ছে মূল্যস্ফীতির এক থেকে তিন শতাংশের মধ্যে ধরে রাখা। এ বছর পণ্যের মূল্যস্ফীতি দাঁড়িয়েছে ৪ দশমিক ৪ শতাংশে। গত বছর যা ছিল ২ দশমিক ১ শতাংশ। মহামারি পূর্ববর্তী আগের দুই দশকে এ হার ছিল যথাক্রমে ১ দশমিক ৪ এবং ২ দশমিক ৪ শতাংশ।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles