-14.8 C
Toronto
শুক্রবার, জানুয়ারী ২৮, ২০২২

ভোটে হেরে মসজিদ ভেঙে নিয়ে গেলেন চেয়ারম্যান

- Advertisement -

নির্বাচনে হেরে গিয়ে তিন বছর আগে ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্সের জমিতে নির্মাণ করে দেওয়া মসজিদ ভেঙে নিয়ে গেছেন চেয়ারম্যান। টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলায় এ ঘটনা ঘটেছে।

- Advertisement -

জানা গেছে, গত ১১ নভেম্বর উপজেলার বহুরিয়া ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর কাছে হেরে যান চেয়ারম্যান গোলাম কিবরিয়া সেলিম। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে তিনি এ ঘটনা ঘটান। সেলিম উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কুতুব উদ্দিনের ছেলে। মসজিদ ভেঙে নেওয়ার ঘটনাটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, ২০১৬ সালে বহুরিয়া ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে গোলাম কিবরিয়া সেলিম নির্বাচিত হন। ২০১৮ সালের দিকে ইউনিয়ন কমপ্লেক্সের জমিতে টিন দিয়ে একটি মসজিদ তৈরি করে দেন তিনি। কিন্তু এবারের নির্বাচনে হেরে যাওয়ার পর গত মঙ্গলবার তিনি মসজিদ ভেঙে ট্রাকে করে নিয়ে যান।

মসজিদের পাশের বাসিন্দা সরোয়ার আলম বলেন, এ ঘটনায় ইউনিয়নবাসীর সম্মান ক্ষুণ্ন হয়েছে। তিনি কাজটি ভালো করেননি। সেখানে গ্রামবাসী মিলে একটি পাকা মসজিদ নির্মাণ করব।

নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান নুরে আলম বলেন, ‘আমি এখনো শপথ নিইনি। ইউনিয়ন কমপ্লেক্সের ওয়াকফ করা জমিতে মসজিদটি নির্মাণ করা হয়েছিল, সেটি ভেঙে নেওয়ার অধিকার চেয়ারম্যানের নেই।’

এ বিষয়ে গোলাম কিবরিয়া সেলিম বলেন, ‘আমার খালাতো ভাই ইব্রাহিম হোসেনের ব্যক্তিগত টাকায় ওই নামাজখানাটি টিন দিয়ে তৈরি করা হয়েছিল। গত কয়েক মাস ধরে সেখানে কেউ নামাজ আদায় করছে না। খালাতো ভাইয়ের অনুমতি নিয়েই নামাজখানাটি অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।’

উপজেলা ইমাম সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল লতিফ বলেন, নামাজখানা হলেও তিনি তা ভেঙে নিয়ে যেতে পারেন না। এ ধরনের কাজ ইসলাম সমর্থন করেন না।

সূত্র : আমাদের সময়

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles