-8.2 C
Toronto
সোমবার, জানুয়ারী ২৪, ২০২২

মুরাদের কটূক্তি থেকে বাদ যাননি নায়িকা মৌসুমীও!

- Advertisement -
File picture

Recently, Dr. perverted, racist and ugly remarks about women leaders of the university came under fire. Murad Hasan. The latest film actor Emon and actress Mahiya Mahira phone conversation leaked a storm of criticism against Murad Hasan.

However, not only the heroine Mahi but also the national award winning heroine Mausumi was the victim of Murad’s insulting list. Not once, but twice!

- Advertisement -

Film lovers were also angry about the issue. However, it did not come out in public.

Murad Hassan said, “Resurrection to Resurrection” is a wonderful film. Super-duper hits. Mausumi is still acting. All is well, just reduce the weight. I am joining hands with those who will be acting in the film and requesting them to keep an eye on the waiter. ‘

গত ৩০ নভেম্বর ‘ময়ূরাক্ষী’ ছবির মহরত অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘এর আগে মৌসুমীকে নিয়ে কথা বলেছিলাম। অনেকেই মাইন্ড করেছেন। মৌসুমীকে টার্গেট করে বলেছি, তা তো নয়। আমি সবাইকে বলেছি। একজন নায়িকার ওয়েট কন্ট্রোল করতে হবে। নায়িকার ভূমিকায় কেউ যদি এমন ‘মোটাসোটা’ হয়, এতে বাংলাদেশের মর্যাদা ক্ষুণ্ন হয়।’

এর আগে বিতর্কিত মন্তব্য করে দেশজুড়ে সমালোচনার মুখে পড়েন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসান। সর্বশেষ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চিত্রনায়িকা মাহির সঙ্গে তার ফোনালাপ ফাঁস হয়। অডিওতে শোনা যায়, তিনি মাহিকে উদ্দেশ্য করে ধর্ষণের হুমকি ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দিয়ে তুলে নিয়ে আসার ধমকি দেন।

Dr. has sent his resignation letter to the secretariat after the instructions of the Prime Minister Sheikh Hasina due to indecent and unethical speech. Murad Hasan. On Tuesday (December 6th), he submitted his resignation letter to remove himself from the post of Minister of State for Information and Broadcasting, citing personal reasons. At present the letter is in the office of the secretary of the ministry.

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles