-14.8 C
Toronto
শুক্রবার, জানুয়ারী ২৮, ২০২২

কনস্টান্স লেক ফার্স্ট নেশনে ফুসফুসের সংক্রমণের প্রাদুর্ভাব

- Advertisement -
কনস্টান্স লেক ফার্স্ট নেশনের প্রধান রোমানো সাদারল্যান্ড বুধবার ভার্চুয়ালি জানান, একজনের ব্লাস্টোমাইকোসিসে আক্রান্ত হওয়ার তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে এবং তাকে অন্য একটি কমিউনিটির হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে

উত্তর অন্টারিওর কনস্টান্স লেক ফার্স্ট নেশনের বাসিন্দাদের মধ্যে ফুসফুসের সংক্রমণের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। সংক্রমণে এখন পর্যন্ত তিনজন মারা গেছেন। এ অবস্থায় বাড়তি স্বাস্থ্যসেবা প্রয়োজন বলে জানিয়েছে ফার্স্ট নেশনটি।

কনস্টান্স লেক ফার্স্ট নেশন কমিউনিটির লোকসংখ্যা ৯০০ এর কিছু বেশি।

- Advertisement -

ব্লাস্টোমাইকোসিস ও তিনজনের মৃত্যুর বিষয়টি সামনে আসার পর গত সোমবার সেখানে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ফার্স্ট নেশনটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এখন পর্যন্ত ৪৪ জন ফুসফুসের সংক্রমণে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে আটজন শিশু রয়েছে। স্যাতসেতে মাটি, পাতায় জন্মানো এক ধরনের ফাঙ্গাস এ জন্য দায়ী। এর উপসর্গ হিসেবে হাল্কা কাশি থেকে গুরুতর শ্বাসকষ্ট দেখা দিতে পারে। আক্রান্তদের মধ্যে ১৬ জনেক হাসপাতালে নিতে হয়েছে।

কনস্টান্স লেক ফার্স্ট নেশনের প্রধান রোমানো সাদারল্যান্ড বুধবার ভার্চুয়ালি জানান, একজনের ব্লাস্টোমাইকোসিসে আক্রান্ত হওয়ার তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে এবং তাকে অন্য একটি কমিউনিটির হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। আরও ১৩ জনও সম্ভবত আক্রান্ত হয়েছেন। এ সমস্যা মোকাবেলায় বাড়তি সেবার প্রয়োজন।

তিনি বলেন, জরুরিভিত্তিতে বাড়ি পরিদর্শন, মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ে পরামর্শ, অসুস্থ্য ব্যক্তিদের পরিবারকে সহায়তা এবং লোকজনের মধ্য থেকে আতঙ্ক দূর করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপের দরকার এখন। আমাদের জীবনযাত্রার নি¤œমানের কারণে এখনই এগুলো দরকার। আমাদের একযোগে কাজ করতে হবে এবং এই সঙ্কটের সময় ফেডারেল ও প্রাদেশিক সরকারের দ্বারস্থ হতে হবে। প্রয়োজনের সময় যেন আমাদের সাহায্য করা হয় সেজন্য আমরা প্রতিবেশি কমিউনিটি ও অংশীজনদের প্রতিও আহ্বান জানাচ্ছি।

ইন্ডিজেনাস সার্ভিস কানাডার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, কমিউনিটির চাহিদাগুলো সনাক্ত ও তা প্রদানে তারা সাদারল্যান্ড, পরকিউপিন জনস্বাস্থ্য ইউনিট, অন্টারিও সরকার, মাটওয়া চিফ কাউন্সিল ও অন্যান্য অংশীজনের সঙ্গে কাজ করছে। তাৎক্ষণিক সহায়তা প্রদানে মঙ্গলবারই আইএসসির একজন প্রতিনিধি সেখানে পৌঁছে গেছেন। এছাড়া বাড়তি নার্সিং, মানসিক স্বাস্থ্য ও সংকটকালীন সহায়তাও দেওয়া হবে।

ফুসফুসের সংক্রমণের এ প্রাদুর্ভাবকে বিচ্ছিন্ন ঘটনা বলে উল্লেখ করেন অন্টারিওর চিফ মেডিকেল অফিসার ডা. কিয়েরান মুর। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে এমনটা হয়ে থাকতে পারে বলে জানান তিনি। ডা. মুর বলেন, এটা খুবই বিরল সংক্রমণ। কমিউনিটির যত সংখ্যক মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন তা বেশ চমকানোর মতো।

- Advertisement -

Related Articles

- Advertisement -

Latest Articles