18.9 C
Toronto
বৃহস্পতিবার, জুলাই ২৫, ২০২৪

উনি শাকিবের নাম মুখে নিতে নিতে ক্লান্ত

উনি শাকিবের নাম মুখে নিতে নিতে ক্লান্ত
অপু বিশ্বাস

চিত্রনায়িকা শবনম বুবলীর সিনেমা ক্রমাগত ফ্লপ করায় নির্মিতব্য একটি ছবি থেকে তাকে বাদ দেন পরিচালক এমডি ইকবাল। তবে এ প্রসঙ্গে বুবলীর ভাষ্য ভিন্ন। তার দাবি, ছবি থেকে তিনি নিজেই সরে দাঁড়িয়েছেন। এর কারণ হিসেবে উল্লেখ করেছেন, শাকিব খানকে নিয়ে ইকবালের আপত্তিকর মন্তব্য। আর শাকিবকে নিয়ে যে আপত্তিকর ও অসম্মানজনক কথা বলবে, তার সঙ্গে সম্পর্ক রাখবেন না বুবলী।

বুবলীর এমন বক্তব্যকে হাস্যকর আখ্যা দিয়েছেন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। তিনি ব্যখ্যা দিয়ে বুঝিয়েও দিলেন বুবলী যা বলেছেন তা সঠিক নয়; বরং নিজে ছবি থেকে বাদ পড়ে শাকিবকে দেয়াল হিসেবে ব্যবহার করার চেষ্টা করেছেন। এটাকে দুর্বল ‘গেমপ্ল্যান’ হিসেবে আখ্যা দেন তিনি। আর ছবি থেকে বাদ না পড়লে শাকিবের প্রতি দরদ দেখানো এমন কোনো বাক্য ব্যবহার করতেন না তিনি। অপু বিশ্বাসের ভাষ্য, ‘আসলে সবখানে শাকিব খানের নাম মুখে নিয়ে উনি ক্লান্ত হয়ে গেছেন।’

- Advertisement -

অপু বিশ্বাস বলেন, উনি শাকিব খানের সম্মান নিয়ে কথা বলেন? যখন প্রিয়তমা সিনেমার প্রচারে গিয়ে অভিনেতা আফরান নিশো শাকিব খানকে নিয়ে নেতিবাচক কথা বলল, তখন ওনার (বুবলী) মুখে শোনা গেল সেই নিশোর প্রশংসা। সেসময় কীভাবে শাকিবকে নিয়ে বাজে মন্তব্য করা একজন মানুষের পক্ষে সাফাই গাইলেন তিনি? আপনারা এসবের ভিডিও পাবেন।

অপু বলেন, ‘আবার শাপলা মিডিয়ার সেলিম খানের সঙ্গে যখন শাকিব খানের বচসা শুরু হলো তারপর ওনার সিনেমায় দেখা গেল তাকে। লিডার আমি বাংলাদেশ সিনেমার মহরতে শাকিবের বক্তব্য ভাইরাল হয়েছিল। সেসময় সেলিম খানের সঙ্গে শাকিবের দ্বন্দ্ব তৈরি হয়। সেলিম খান শাকিবকে নিয়ে বাজে মন্তব্য করেন। এরপর বুবলী আমেরিকা থেকে বাচ্চা নিয়ে ফিরলেন। তারপর সেলিম খানের চোখ সিনেমায় কাজ করলেন। কেন তখন মনে হয়নি যে সেলিম খান শাকিবকে অসম্মান করে কথা বলেছেন। আর ইকবালের রিভেঞ্জ, বিট্রে তো সিনেমা শুরুর অনেক আগেই তিনি শাকিবকে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করেছেন। এটা তো সবাই জানে। তারপরও তার সিনেমায় কাজ করলেন।’ অপু বিশ্বাসের দাবি, এসব বক্তব্য বুবলীর ব্যক্তিত্ব নষ্ট করছে। ‘কোটি টাকার কাবিন’ খ্যাত অভিনেত্রী বলেন, ‘আজ উনি বলছেন শাকিব খানকে নিয়ে যারা নেতিবাচক মন্তব্য করবেন, তাদের সঙ্গে তিনি কাজ করবেন না। ওনাকে বলব, চুরি বিদ্যা বড় বিদ্যা, যদি না পড়ো ধরা। উনি চুরি করেন আর ধরা পড়েন। এসব থেকে ওনার ফ্যান ফলোয়াররা কী শিখবে? এমন মানসিকতা থেকে আসলে ওনার নিজেরই ক্ষতি হচ্ছে। আজ ওনাকে ইকবাল ভাই বিট্রে সিনেমা থেকে বের করে দিয়েছেন বলেই উনি শাকিব খানের নাম ব্যবহার করে নিজেকে আত্মরক্ষার চেষ্টা করছেন। আজ যদি তিনি ইকবালের সেই সিনেমা থেকে বাদ না যেতেন, তাহলে শাকিব খানকে নিয়ে হাজার বাজে মন্তব্য করলেও তার এমন বক্তব্য পাওয়া যেত না।’

নিজের একটি উদাহরণও টানেন শাকিব খানের অজস্র ব্যবসাসফল চলচ্চিত্রের অভিনেত্রী অপু বিশ্বাস। তিনি বলেন, ‘নিকেতনে এক ভাবির দাওয়াতে গিয়েছিলাম। তিনি আমার জন্য খাবারও নিয়ে এসেছিলেন। যখন শুনলাম ইকবাল ভাই আসবেন, আমি চলে এসেছি। আমার পরিবারের কাউকে অসম্মান করবে, আমি তার মুখোমুখিও হব না।’

অভিনেত্রী মিষ্টি জান্নাতও কিছুদিন আগে বুবলীকে খোঁচা মেরে কথা বলেছিলেন। অভিনেত্রী পরীমণিও বলেছেন। অপু বিশ্বাস মনে করেন, ‘ব্যক্তিত্বহীনতার কারণেই উনি আমাদের ইন্ডাস্ট্রির ছোট বোনদেরও কথা শুনেছেন। এমন করলে শুনতেই হবে।’

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles