21.7 C
Toronto
মঙ্গলবার, জুলাই ১৬, ২০২৪

চুরির অপবাদে দুই কিশোরকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন

চুরির অপবাদে দুই কিশোরকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন

বগুড়ার নন্দীগ্রামে চোর সন্দেহে দুই কিশোরকে গাছের সাথে বেঁধে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। মসজিদের দানবাক্স থেকে টাকা চুরির অপবাদে প্রকাশ্যে বাজারে অমানবিক নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পরলে এলাকাজুড়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়। নন্দীগ্রাম পৌরসভার নামুইট তিনমাথা বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

- Advertisement -

নির্যাতনের শিকার দুই কিশোর উপজেলার তাঁরাটিয়া গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে মুর্শিদুল ও ভাটরা গ্রামের মিজানুর রহমানের ছেলে সুমন আহম্মেদ। এঘটনায় রোববার রাতে নির্যাতনের শিকার সুমনের বাবা মিজানুর রহমান বাদী হয়ে ৮ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন। ওই মামলায় রোববার রাতেই পুলিশ নামুইট গ্রামের মাতব্বর নজরুল ইসলাম ও কাচু প্রামানিককে গ্রেপ্তার করে।

স্থানীয় ও থানা সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার পৌরসভা নামুইট তিনমাথা বাজারে ওয়াক্ত নতুন জামে মসজিদের দানবাক্স থেকে টাকা চুরির অভিযোগ তুলে দুই কিশোরকে রাস্তা থেকে ধরে আনে নামুইট গ্রামের মাতব্বর নজরুল ইসলাম ও কাচু প্রামানিক।

পরে গ্রামের কয়েকজন মোড়ল একত্রিত হয়ে দুই কিশোরকে রশি দিয়ে গাছে বেঁধে সালিশ বসায়। অমানবিক নির্যাতনের সময় গ্রাম্য মোড়লদের হাতে—পায়ে ধরেও রক্ষা পায়নি ওই দুই কিশোর। নির্যাতনের সময় মুর্শিদুলের ভিক্ষুক মা মোড়লদের পায়ে পড়ে কান্না করেও নির্যাতনের হাত থেকে ছেলেকে রক্ষা করতে পারেননি।

নির্যাতনের শিকার সুমন বলেন, আমরা বাবা—ছেলে অটোভ্যান চালিয়ে খাই। গত বুধবার সকালে দুই বন্ধু অটোভ্যান নিয়ে নন্দীগ্রামের দিকে যাচ্ছিলাম। নামুইট মোড়ে ভ্যান থামানোর সাথে সাথে পেছন থেকে চোর চোর করে চিৎকার করে নামুইট গ্রামের মাতব্বর নজরুল। পরে কয়েকজন লোক এসে যাচাই না করেই আমাদের মারতে মারতে রাস্তার পাশে নিয়ে যায়। কিছু বুঝে ওঠার আগেই চোর আখ্যা দিয়ে এক ঘণ্টা অমানবিক নির্যাতন করা হয়। আমরা এর বিচার চাই।

নন্দীগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজমগীর হোসাইন বলেন, চুরির অপবাদে গাছে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় দুই জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ভিডিওসহ তথ্য পেয়ে পুলিশ অভিযানে নেমেছে। এ ঘটনায় ৮ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।

সূত্র : বিডি২৪লাইভ

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles