27.5 C
Toronto
মঙ্গলবার, জুন ১৮, ২০২৪

ভোট দিয়ে ব্যারিস্টার সুমন বললেন, ‘টেনশনে ছিলাম’

ভোট দিয়ে ব্যারিস্টার সুমন বললেন, ‘টেনশনে ছিলাম’
ভোট দেয়ার পরে গণমাধ্যমে কথা বলছেন ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন ছবি সংগৃহীত

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট দিয়ে স্বস্তি প্রকাশ করেছেন হবিগঞ্জ-৪ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী সৈয়দ (ব্যারিস্টার) সায়েদুল হক সুমন। তিনি জানান, ভোট দেয়া নিয়ে তিনি খুব টেনশনে ছিলেন।

আজ রবিবার সকাল ৭টা ৫৫ মিনিটে ভোট কেন্দ্রে উপস্থিত হন ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। ৮টায় হাজি ইয়াছিন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে প্রথম ভোট দেন তিনি।

- Advertisement -

ভোট দিয়ে ব্যারিস্টার সুমন বলেন, ‘রাব্বুল আলামিনের কাছে শুকরিয়া আদায় করছি, সবকিছু শেষ করে আজকে নির্বাচনের দিনে আমরা উপস্থিত হতে পেরেছি কোনও ঝামেলা ছাড়াই। সহিংসতা বা কোনও ঝামেলা ছাড়াই এখন পর্যন্ত ভোট চলছে। আমি আমার ভোট দিয়েছি। এ কদিন খুব একটা টেনশনে ছিলাম যে, কুয়াশা থাকে। আজকের দিন সাড়ে ৭টা থেকে একেবারে উজ্জ্বল। দিনের আলো এবং সূর্যের আলো। আমার কাছে মনে হয়েছে, আমার এলাকারও একটা নতুন আলোকিত হওয়ার দিন আজকে।’

স্বতন্ত্র এ প্রার্থী আরও বলেন, ‘এখনও পর্যন্ত মনে হয় পরিবেশ শান্ত আছে। বাকিটা যত দিন গড়াবে, তখন দেখা যাবে। আপনাদের সামনে আসবো আবার। সারা দেশে আমি খুবই ভাগ্যবান যে, সবচেয়ে বেশি সাড়া পেয়েছি আমি। আমি ফুটবল নিয়ে কাজ করি তো অনেকদিন ধরে। বিভিন্ন এলাকায় যাই। ওখানে হাজার হাজার লক্ষাধিক মানুষ হয়। সাড়া পাওয়ার ব্যাপারটা, আগের থেকেই ছিল। আর নির্বাচনের কারণে আমার নিজের এলাকায় নিজের চোখে দেখতে পারছি। এটা নির্বাচনে না আসলে দেখতে পেতাম কিনা সন্দেহ। এটা অভূতপূর্ব সাড়া।’

হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর ও চুনারুঘাট উপজেলা নিয়ে গঠিত হবিগঞ্জ-৪ আসন। শিল্প-কারখানা ও চা বাগান অধ্যুষিত এ আসনে মোট ভোটার ৫ লাখ ১২ হাজার ৩০৮ জন। এর মধ্যে পুরুষ ২ লাখ ৫৭ হাজার ৮৮৪, নারী ২ লাখ ৫৪ হাজার ৪২৩ এবং তৃতীয় লিঙ্গের একজন ভোটার।

নির্বাচন কমিশন সূত্র জানায়, এ আসনে লড়াই করছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী ও ঈগল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী সায়েদুল হক সুমনসহ আটজন। অপর ছয় প্রার্থী হলেন- আবু ছালেহ (ইসলামী ঐক্যজোট), আহাদ উদ্দিন চৌধুরী (জাতীয় পার্টি), মোহাম্মদ আবদুল মমিন (বাংলাদেশ কংগ্রেস), মো. মোখলেছুর রহমান (বিএনএম), মো. রাশেদুল ইসলাম খোকন (বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোট) ও সৈয়দ মো. আল আমিন (বাংলাদেশ কংগ্রেস)।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles