7.1 C
Toronto
শুক্রবার, মার্চ ১, ২০২৪

বায়েস ওয়ার্কশপ

বায়েস ওয়ার্কশপ

বাংলাদেশ সহ অন্যানো দেশ থেকে সাম্প্রতিক আসা এবং যারা আগে এসেছেন তাদের চাকরি, আবাসন এবং আরো কিছু বিষয় নিয়ে টোরোন্টোস্থ BIES এর একটি সুন্দর উদ্যোক।

- Advertisement -

“BIES’s Strategic Planning Workshop”
BIES সমন্ধে টরন্টোতে আমাদের কমুনিটির অনেকেই জানেন, আবার অনেকে হয়তো জানেন না। BIES মূলত এখানে বসবাসররত আমাদের কমুনিটির মানুষদের চাকরি বিষয়ক সহায়তা করে থাকে। সাথে সাথে আনুষাঙ্গিক আরও কিছু কাজ করে থাকে। তাদের ওয়েবসাইটে গেলে বিস্তারিত জানবেন। BIES সরকারি (প্রাদেশিক) ফান্ডেড একটি প্রতিষ্ঠান, তবে যে আহামরি ফান্ড পান তা ঠিক না। তাদের সীমিত ফান্ড এবং ওখানকার ভলেন্টিয়ারদের অক্লান্ত পরিশ্রম দ্বারা কাজগুলি করে থাকেন।
উনারা অনেকদিন ধরেই কাজগুলি করা যাচ্ছেন।

উল্লেখ, আমাদের কানাডিয়ান সরকার ইমিগ্রান্ট, রিফুজি বা ছাত্র-ছাত্রী আনার ব্যাপারে যতটা উদার ভাব দেখান, তাদের এখানে এসে চাকরি-বাকরি বা আপগ্রেডের জন্য ফান্ডিং প্রয়োগের ক্ষেত্রে Unfortunately, ততটা উদার নয়। এ বিষয়ে আমি ১৬/১৭ বছর আগে টরন্টো Metropoliton Universityতে পড়াশুনাকালীন একটি গবেষণায় যা দেখেছিলাম তার তুলনায় এখনকার অবস্থা আরও খারাপ, এই কথা আমরা কমবেশি সবাই উপলদ্ধি করতে পারি। বর্তমানে এখানে আশা মানুষদের চাকরি বা আবাসন সংকটের কথা আপনারা সবাই ভালো করে জানেন।

আগেকার দিনে কিছুটা ব্যালান্স থাকলেও এখন কিন্তু অবস্থা একেবারে ভিন্ন, এখানকার অবকাঠামো, বাসস্থান, স্বাস্থ বা চাকরি-বাকরি ইত্যাদি বিষয়ের সাথে সঙ্গতি না রেখে সাম্প্রতিক ইমিগ্রান্ট বা ছাত্র-ছাত্রী সহ যে পরিমানে টুরিস্ট ভিসায় মানুষকে আনছে তাতে উন্মাদের কার্টুনের “দেহায় মুরগি খাওয়ায় ডাইল” এর মতো অবস্থা। এমত অবস্থায় নতুন আশা মানুষগুলি যেমন বিপাকে পড়ছেন, তেমনি যারা অলরেডি এখানে আছেন তাদের নাভিশ্বাস হচ্ছে। বিষয়টি যেন আপনার বাড়িতে ৫ জন অতিথিকে জায়গা দেওয়ার সামর্থ কিন্তু আপনি দাওয়াত দিয়েছেন ৫০ জনকে এইরকম। এখন এতে আপনার আমার কঠিন অবস্থা হলেও সরকারের ঘরে ওই সমস্ত লোকের সঙ্গে করে আনা অর্থগুলি ইঞ্জেক্ট হচ্ছে। তবে যা দেখা যাচ্ছে তাতে করে এখানে ট্যাক্সপেয়াররা যেমন তাদের যথাযত পাওয়া থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন তেমনি নতুন আসা মানসুলগুলিরও অবস্থা করুন হচ্ছে। এ বিষয়ে আমি ব্যাক্তিগতভাবে আমার স্থানীয় MPকে একটি ইমেইল করেছিলাম, উত্তর এর মূল কথা ছিল, “we are working on it”. গতানুগতিক ।

BIES এর কালকে সন্ধ্যার আলোচনার বিষয় ছিল উপরক্ত বিষয়গুলি সমন্ধে কমিউনিটিতে যারা Community Development and Social Work কাজ করছেন তাদের সাথে মতবিনিময় করা। উনারা উনাদের স্ট্রাটেজিক প্ল্যান হিসাবে এইরকম আলোচনা করছেন। সকলের মতামত নিয়ে, সেগুলি পর্যালোচনা করে উনারা চেষ্টা করবেন কিভাবে উপরে উল্লেখিত বিষয়গুলিকে আরো বেশি করে এড্রেস করা যায়। ওখানে যারা ছিলেন সবারই বিষয়গুলি নিয়ে উদ্ভেগ/উৎকণ্ঠা এবং সম্মিলিতভাবে কিছু করার মনমনীষিকতা দেখে ভালো লেগেছে। আমি তাদের এই সুন্দর উদ্যোগ Highly Appreciate করি এবং আমাকে আমন্ত্রনের জন্য BIESকে, বিশেষ করে গোলাম মোস্তফা এবং ইমাম ভাইকে ধন্যবাদ।

অবশেষে যারা আমার এই লেখা পড়ছেন তাদের প্রতি আমার ব্যাক্তিগত অনুরোধ ! আসুন আমরা অন্ততঃ বাংলাদেশ থেকে দালালের কথা শুনে যারা টুরিস্ট ভিসা বা স্টুডেন্ট ভিসায় এখানে এসে স্থায়ীভাবে থেকে যেতে চায় তাদেরকে অনুৎসাহিত করি, এবং যারা সত্যি সত্যিই ট্যুরিস্ট বা স্টুডেন্ট হিসাবে পড়াশুনা করতে আসতে চান তাদেরকে উৎসাহিত করি। কারণ ওই মনোভাব নিয়ে এসে এখানে যখন তাদের করুন থেকে করুনতর অবস্থা দেখি তখন করার কিছু থাকে না এবং খুবই খারাপ লাগে।

তবে দালালের কথা শুনে বা নিজে নিজে যারা অলরেডি চলে এছেছেন তাদের যদি আপনার সামর্থ থাকে তাহলে সাহায্য করুন। এক্ষত্রে ওই সমস্ত মানুষদের থেকে আমি বেশি দায়ী করি আমাদের বর্তমান সরকারের পলিসি মেকার এবং রাজনীতিবিদদের। পৃথিবীজুড়ে আমরা উদারতার যে ভাব দেখাই বা নিজেদেরকে উন্নত বা শান্তির দেশ হিসাবে তুলে ধরি তাতে করে মানুষতো এখানে যে করেই হোক আসতেই চাইবে !!! কিন্তু তাদের তো দেখতে হবে তারা কতগুলি মানুষের চাপ সামলাতে পারবেন।

এই সমস্ত দেশে মানুষের জন্মহার অনেক কম তাই এখানে ইমিগ্রান্ট সবসময়েই লাগবে, সে জন্য বৈধভাবে চেষ্টা করে যত পারেন চলে আসুন !! তবে অবধৈভাবে নয় এবং বৈধভাবে এসে অবৈধভাবে থেকে যাওয়া এবং কাজ করা থেকে বিরত থাকুন, এতে আপনার জীবনটা Miserable হবে, যে টাকা খরচ করে আসবেন সেই টাকা তুলতে তো পারবেনই না, বরং জীবনটা হবে দুর্বিষহ ! গতকালকেই আমাদের পার্শবর্তী শহর ব্রাম্পটনে একজন রিফুজির ক্লেমেন্টের করুন মৃত্যুর কথা শুনলাম।

BIES আবারো ধন্যবাদ তাদের সীমিত ফান্ডিং এবং জনবল নিয়ে কমুনিটির মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য।

 

 

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles