26.4 C
Toronto
মঙ্গলবার, মে ২১, ২০২৪

কেন মাকে হত্যা করেছেন, আদালতে জানালেন মেয়ে

কেন মাকে হত্যা করেছেন, আদালতে জানালেন মেয়ে
<br >ঝুমা কর্মকার ও তার মেয়ে পূজা কর্মকার সিঁথি

প্রেমের সম্পর্ক মেনে না নেওয়ায় মা ঝুমা কর্মকারকে (৪৫) দিনেদুপুরে প্রকাশ্যে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করেছিলেন মেয়ে পূজা কর্মকার সিঁথি (২২)। আজ মঙ্গলবার সিরাজগঞ্জ জেলা অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বিল্লাল হুসাইনের আদালতে হাজির করা হলে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন সিঁথি। পরে আদালতের বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নুরে আলম ও কোর্ট ইন্সপেক্টর জুলফিকার মো. আসাদুজ্জামান গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

- Advertisement -

এর আগে, গতকাল সোমবার মা ঝুমা কর্মকার মেয়ে পূজা কর্মকার সিঁথিকে নিয়ে বাসে করে ঢাকায় যাচ্ছিলেন। দুপুর ১টার দিকে বাসটি ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের সিরাজগঞ্জের চান্দাইকোনা পৌঁছালে পূজা ব্যাগ থেকে ধারাল এটি ছুরি বের করে মায়ের পেটে ও বুকে আঘাত করেন। এ সময় বাসযাত্রীদের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন পূজাকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় ঝুমা কর্মকারকে উদ্ধার করে রায়গঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাকে ঘোষণা করেন। পরে নিহতের বাবা বাদী হয়ে রায়গঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। আজ মঙ্গলবার নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নুরে আলম বলেন, ‘সিঁথির সঙ্গে এক শিক্ষকের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। কিন্তু এই সম্পর্কটি মানতে চায়নি তার পরিবার। এ কারণে সিঁথিকে তার বাবা-মা আটকিয়ে রাখত। এতে তিনি বাবা-মার প্রতি ক্ষুব্ধ ছিলেন।’

নিহত ঝুমা কর্মকার শেরপুর পৌর শহরের উত্তর সাহাপাড়া এলাকার স্বর্ণ ব্যবসায়ী শেরপুর জুয়েলার্সের স্বত্বাধিকারীরথীন্দ্রনাথ কর্মকার শিবদাসের স্ত্রী। তাদের মেয়ে পূজা কর্মকার সিঁথি ঢাকায় নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়াশোনা করেন।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles