15.7 C
Toronto
রবিবার, মে ১৯, ২০২৪

নিজের অর্ধেক বিছানা পুরুষদের ভাড়া দেওয়াই পেশা এই তরুণীর!

নিজের অর্ধেক বিছানা পুরুষদের ভাড়া দেওয়াই পেশা এই তরুণীর!
ছবি সংগৃহীত

রোজগারের জন্যই মানুষ কত কিছুই না করেন। অনেকে বাড়ি ভাড়া দেন। অনেকেই আবার প্রয়োজনে নিজের ব্যবহার করা জিনিসও ভাড়া দেন। কিন্তু নিজের বিছানা কখনো কাউকে ভাড়া দিতে শুনেছেন? শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। রোজগারের জন্য নিজের অর্ধেক বিছানা ভাড়া দেন মনিকা জারামিয়া নামের অস্ট্রেলিয়ার এক তরুণী।

পেশায় মডেল এই তরুণীর দাবি, রোজগারের জন্যই এমন অভিনব পথ বেছে নিয়েছেন তিনি। আর এতেই তিনি মাসে আয় করেন হাজার হাজার টাকা।

- Advertisement -

ইন্ডিয়া টাইমসসহ একাধিক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম জানিয়েছে, নিজের অর্ধেক ফাঁকা বিছানা অচেনা লোকদের ভাড়া দেওয়াই পেশা মনিকা জারামিয়ার। কোনো পুরুষকে তার সঙ্গে এক বিছানায় ঘুমানোর সুযোগ দিয়েই তিনি উপার্জন করেন হাজার হাজার টাকা। কিন্তু কীভাবে? আসুন জেনে নেওয়া যাক।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মনিকা জারামিয়ার সঙ্গে এক বিছানায় ঘুমানোর সুযোগ পেতে পারেন যে কেউ। তবে কিছু শর্ত অবশ্যই মানতে হবে। তাহলেই নির্দিষ্ট অঙ্কের টাকার বিনিময়ে তার পাশে শোয়ার সুযোগ মিলবে। তবে একে কিন্তু দেহব্যবসার সঙ্গে গুলিয়ে ফেললে চলবে না।

মূলত এই বিশেষ উপায়ে রোজগারের কথা মনিকার মাথায় এসেছে অন্য এক সূত্রে। এই মডেল জানান, সে দেশে ‘হট বেডিং’ নামে এক বিশেষ প্রথার চল রয়েছে। একই বিছানা অনেকে ব্যবহার করার উদ্দেশ্যই হলো সবসময় বিছানা গরম রাখা। সে কথা মাথায় রেখেই নিজের বিছানাটিও ভাড়া দেওয়ার কথা ভাবেন তিনি।

মনিকা জানান, আসলে বিচ্ছেদের পর দীর্ঘদিন তাকে একাই ঘুমাতে হত। এতে বিছানার একপাশ এতই ঠাণ্ডা হয়ে যেত যে রীতিমতো অসুবিধা হত তার। সেইসঙ্গে একাকিত্বের সমস্যা তো ছিলই। সব দিক ভেবেই নিজের বিছানায় অচেনা পুরুষদের ঘুমানোর অনুমতি দেন মডেল।

তবে বিনামূল্যে নয়, এর জন্য দিতে হয় ভাড়াও। তবে শর্ত একটাই। এখানে যৌনতার কোনো জায়গা নেই। অর্থাৎ অচেনা ব্যক্তি তার বিছানায় ঘুমালেও কোনোভাবেই তার সঙ্গে যৌনতায় লিপ্ত হওয়ার সুযোগ পাবেন না। আগে থেকেই তাদের এই শর্তের কথা জানিয়ে দেন মনিকা। তার দাবি, শর্ত মেনেই অনেকে তার বিছানায় ঘুমাতে আসেন।

এটাই তার একমাত্র রোজগারের পথ নয় বলেও জানান মনিকা। তিনি জানান, আরও কিছু কাজ নিয়ে সারা দিন ব্যস্ত থাকেন তিনি। নিজেকে পুরোদস্তুর ব্যবসায়ী বলতেই পছন্দ করেন মডেল। যেকোনো উপায়ে রোজগার করাই তার আসল উদ্দেশ্য। এমনকি ঘুমানোর সময়ও রোজগার বন্ধ রাখতে চান না তিনি। তাই সেই সময়টুকুও ভাড়া দেন বিছানার একপাশ।

মনিকার কথায়, এভাবে মাসের শেষেও তার কাছে অতিরিক্ত টাকা থাকে। যা ব্যবহার করে নিজের অন্যান্য প্রয়োজন মেটান তিনি।

অবশ্য তার এই রোজগারের পথ অবাক করেছে অনেককেই। তবে বুদ্ধি করে মনিকা যে রোজগারের বিকল্প রাস্তা খুঁজে বার করেছেন, তার জন্য এই মডেলের প্রশংসাও করেছেন নেটিজেনরা।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles