22.1 C
Toronto
সোমবার, মে ২০, ২০২৪

গয়েশ্বরকে সকালে পিটিয়ে দুপুরে খাওয়ালো পুলিশ

গয়েশ্বরকে সকালে পিটিয়ে দুপুরে খাওয়ালো পুলিশ
<br >মধ্যাহ্নভোজে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও ডিএমপির ডিবিপ্রধান হারুন অর রশিদ

ঢাকার প্রবেশমুখগুলোতে বিএনপি ও তাদের যুগপৎ আন্দোলনের দলগুলোর অবস্থান কর্মসূচিতে পুলিশের মারধরের শিকার হন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। পরে সেখান থেকে তাকে গাড়িতে করে রাজধানীর মিন্টো রোডে ঢাকা মহানগর পুশিলের (ডিএমপি) গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে বিকেলের আগেই তাকে নয়াপল্টনে অবস্থিত বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে রেখে যায় ডিবি। ছাড়া পাওয়ার আগে ডিএমপিরে ডিবিপ্রধান, অতিরিক্ত কমিশনার হারুন অর রশিদের সঙ্গে মধ্যাহ্নভোজে অংশ নিতে দেখা যায় গয়েশ্বর চন্দ্র রায়কে। সেখানে নানা পদের খাবার খেতে দেখা যায় বিএনপির এ নেতাকে।

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতাকর্মীদের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনাগুলো মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল কয়েকটি ছবি ও ভিডিওতে। যেখানে দেখা যাচ্ছে – ডিবি কার্যালয়ে একসঙ্গে খাবার খাচ্ছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) প্রধান হারুন অর রশীদ।

- Advertisement -

গয়েশ্বরের সামনে খাবার পরিবেশন করতেও দেখা গেছে ডিবিপ্রধানকে একটি ছবিতে।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, গয়েশ্বরের পাতে ভাত তুলে দিচ্ছেন ডিবিপ্রধান। বলছেন, একটু ভাত নেন, সোনারগাঁও থেকে আনিয়েছি আপনার জন্য। জবাবে গয়েশ্বর বলছেন, সোনারগাঁও যাওয়া পড়ে, তবে আমি খাই না।

জানা গেছে, শনিবার দুপুর ৩টার দিকে ডিবি কার্যালয়ে গয়েশ্বরকে আপ্যায়ন করা হয়। সোনারগাঁও হোটেল থেকে উন্নতমানের খাবার এনে খাওয়ানো হয় তাকে। এরপর একটি গাড়িতে করে তাকে নয়াপল্টনে বিএনপি কার্যালয়ে পৌঁছে দেওয়া হয়।

ডিবি কার্যালয় থেকে ছাড়া পেয়ে সাংবাদিকদেরও এমন তথ্যই দেন গয়েশ্বর।

শনিবার বিকালে সাড়ে ৩টার দিকে তিনি বলেন, সংঘর্ষের সময় আমার মাথা ফেটে যায়। রক্তাক্ত হয়ে পড়ি। পরে কোমর থেকে নিচ পর্যন্ত বেধড়ক পিটিয়েছে আমাকে। সেখান থেকে পুলিশ ধরে নিয়ে রাজারবাগের পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরে গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয়েও নেওয়া হয়েছিল। সেখান থেকে অফিসে দিয়ে গেল।

শারীরিক অবস্থা এখন কেমন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ইনজুরি হওয়ার পর সুস্থ হতে সময় লাগবে। এখন স্যালাইন দিতে হবে।

এর আগে আজ (শনিবার) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিএনপি নেতাকর্মীরা রাজধানীর ধোলাইখাল মোড়ে অবস্থান নিলে পুলিশ বাধা দেয়। এসময় পুলিশের সঙ্গে বিএনপি নেতাকর্মীদের ধাওয়া পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় আহত হন।

চিকিৎসাসেবা দিতে আহত গয়েশ্বরকে হাসপাতালে নিয়ে যায় পুলিশ। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে দুপুরে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যাওয়া হয় ডিবি কার্যালয়ে।

ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. ফারুক হোসেন এ তথ্য জানান।

এ বিষয়ে গণমাধ্যমকে ডিবিপ্রধান হারুন অর রশীদ বলেন, রাজধানীর ধোলাইখাল মোড়ে বিএনপি ও পুলিশের মাঝে পড়ে যান গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। তিনি বিএনপি কর্মীদের ছোড়া ইটের আঘাতে আহত হয়েছেন। তাকে সেভ করতেই মূলত ডিবিতে নিয়ে আসা হয়।

- Advertisement -

Related Articles

Latest Articles